সংসদ থেকে চিরবিদায় নিলেন সাবেক মন্ত্রী মাঈদুল ইসলাম

কুড়িগ্রাম-৩ (উলিপুর) আসনের জাতীয় পার্টির এমপি ও সাবেক মন্ত্রী এ কে এম মাঈদুল ইসলামের নামাযে জানাজা রোববার (১৩ মে) জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় তাকে সংসদ থেকে চিরবিদায় দেন তার দীর্ঘদিনের সহকর্মী ও সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

 

তিনি বৃহস্পতিবার (১০ মে) রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। তিনি এক পুত্র ও দুই কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

 

 

 

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, বিরোধী দলীয় নেতার পক্ষে বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদের পক্ষে পরিবেশ ও বন মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং জাতীয় পার্টির পক্ষে মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদারের নেতৃত্বে দলের নেতৃবৃন্দ মরহুমের মরদেহে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।

 

মরহুমের জানাজায় আরও উপস্থিত ছিলেন হুইপ মো. শহীদুজ্জামান সরকার, শ্রম ও কর্মসংসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক চুন্নু, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী মো. মসিউর রহমান রাঙ্গা প্রমূখ। এছাড়া সাবেক ও বর্তমান সংসদ সদস্যবৃন্দসহ সর্বস্তরের নাগরিক, রাজনৈতিক সহকর্মী, গুণগ্রাহী, সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ জানাজায় শরিক হন।

 

এর আগে মরহুমের কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোকপাত করেন মরহুমের রাজনৈতিক সহকর্মীবৃন্দ। পরে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

 

 

 

 

 

পেশায় শিল্পপতি মাঈদুল ইসলাম ছয়বার এমপি নির্বাচিত হয়েছেন। জিয়াউর রহমান ও এইচ এম এরশাদ সরকারের মন্ত্রিসভাতেও তিনি দায়িত্ব পালন করেন।

 

আজ আসরের পর গুলশানের আজাদ মসজিদে আরও দুই দফা জানাজা হবে মাঈদুল ইসলামের। পরে বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *