‘সবার ঘরে বাতি জ্বলে আমার ঘর অন্ধকার’

প্রকাশিত:সোমবার, ০৫ অক্টো ২০২০ ০২:১০

‘সবার ঘরে বাতি জ্বলে আমার ঘর অন্ধকার’

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের টিলাগাঁও গ্রামে বসবাস করছেন ৭০ বছরের বৃদ্ধ এরশাদ মিয়া। চলতি বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কমলগঞ্জকে শতভাগ বিদ্যুতায়নের ঘোষণা দেন।

কিন্তু টিলাগাঁও গ্রামের সবাই বিদ্যুৎ পেলেও আলোকিত হয়নি এরশাদ মিয়ার ঘর। এরশাদ মিয়ার অভিযোগ, তিনি টাকা দিতে পারেননি বলে বিদ্যুৎ দেয়া হয়নি।

স্থানীয় সূত্র জানায়, দুই যুগের অধিক সময় আগে বাড়ি নির্মাণ করে পরিবার-পরিজন নিয়ে বসবাস করলেও প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বিনামূল্যের বিদ্যুৎ থেকে বঞ্চিত হয়েছেন এরশাদ মিয়া।

কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের টিলাগাঁও গ্রামের সবাই সরকারের বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সুবিধা পেলেও পাননি এরশাদ মিয়া। বর্তমানে এরশাদ মিয়ার ঘরে কুপির আলোতে আলোকিত হয়।

এ বিষয়ে এরশাদ মিয়া বলেন, স্থানীয় কিছু প্রভাবশালীকে টাকা দিতে না পারায় আমাকে বিদ্যুৎ থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। এখন সবার ঘরে বাতি জ্বলে আমার ঘর অন্ধকার।

তিনি বলেন, আমরা তিনবেলা ভাত খেতে পারি না। টাকা দিয়ে কিভাবে বিদ্যুৎ বাড়িতে আনব? প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে অনুরোধ, আমরা যেন বিদ্যুৎ পাই। প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা ছাড়া বোধহয় আমরা বিদ্যুৎ পাব না।

মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কমলগঞ্জ জোনাল অফিসের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার ওবায়দুল হক বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে এরশাদ মিয়া অফিসে এসে আবেদন করলে বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা করা হবে।

ওবায়দুল হক বলেন, আমরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পক্ষ থেকে মাইকিং করেছি; যারা সরকারি বিদ্যুৎ পাননি তাদের পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে যোগাযোগ করতে বলেছি। কিন্তু এরশাদ মিয়া যোগাযোগ করেননি। তিনি আবেদন করলে বিদ্যুৎ দেব।

এই সংবাদটি 1,229 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ