সর্দি সারানোর উপায়

গরম-ঠান্ডার এই সময়ে হুট করেই ঠান্ডা লেগে যেতে পারে। সর্দির বিরক্তিকর যন্ত্রণা আর সেইসঙ্গে মাথাব্যথা তো রয়েছেই। আর সেখান থেকে একবার কাশি বসে গেলে তো কথাই নেই! যন্ত্রণার একশেষ যেন! তবে এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে মেনে চলতে পারেন কিছু ঘরোয়া উপায়।

 

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে খাঁটি সরিষার তেল হাতে নিয়ে নিঃশ্বাসের সঙ্গে টানুন, নাভিতে, পায়ের তলায় ও মাথার তালুতে মালিশ করুন। সর্দি অনেকটাই সেরে যাবে।

 

সর্দি সারাতে কালোজিরার তেল খুব ভালো কাজে দেয়। তবে এই তেলে বেশ ঝাঁজ থাকে। কালোজিরার তেল না পেলে একটি রুমাল/কাপড়ে কালো জিরা নিয়ে কাপড় দিয়ে পেঁচিয়ে নাক দিয়ে টানুন। এতেও সর্দি দূর হবে।

 

আরও পড়ুন: ইফতার হোক স্বাস্থ্যকর

প্রতিদিন সময়মতো গোসল করলে সর্দি অনেকটা নিয়ন্ত্রণে থাকে। আদা দিয়ে রং চা খেতে পারেন।

 

গোসলের পর ভালো করে চুল শুকান। যাদের নিয়মিত সর্দি থাকে তাদের ফ্রিজের ঠান্ডা পানি না খেয়ে হালকা কুসুম গরম পানি নিতে পারলে ভালো।

 

রাতে খাবার পরে কুসুম কুসুম গরম পানিতে লেবু চিপে খান। অনেক পুরানো সর্দিও সেরে যাবে।

 

তাহলে ১ টেবিল চামচ মধুতে ১/৪ চা চামচ হলুদ গুঁড়া দিয়ে কয়েকবার খেলেই সর্দি ভালো হয়ে যাবে।

 

আরও পড়ুন: রোজায় গ্যাস্ট্রিক দূর করতে যা খাবেন

দই শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে। প্রতিদিন টকদই খেতে পারেন। এতে শরীর ভালো থাকবে। এতে ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, জিংক, ভিটামিন বি ২, ভিটামিন বি ১২ আছে।

 

মাশরুম যেকোনো খাবারে ব্যবহার করতে পারেন। এটি ভিটামিন বি ও বিভিন্ন অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের উৎস। শরীরকে রোগ প্রতিরোধক্ষম রাখতে ভিটামিন বি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ভাইরাসজনিত সংক্রমণের ঝুঁকি কমায় মাশরুম।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.