সিলেটের প্রবাসীর ব্যক্তিগত জায়গা দখল করে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ


ক্রাইম ডেক্স ঃ
সিলেট নগরীতে এক প্রবাসীর জায়গায় অন্য জনের রাস্তা নির্মাণ করে দিয়েছেন কি? আওয়ামীলীগ নেতা সিটি কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ।
নগরীর শিবগঞ্জ মজুমদারপাড়া সোনালী-২৭ বাসাটি কয়েকজন যুক্তরাজ্য প্রবাসীর। এ বাসার পেছনে রয়েছে ব্যক্তিমালিকাধিন আরো একটি বাসা। ওই বাসার জন্য রাস্তা বের করে দেওয়ার দায়িত্ব নেন কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ বলে জানান ক্ষতিগস্তরা। তিনি কোন প্রকার অনুমতি কিংবা সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে নোটিশ না দিয়েই বাড়ির দেয়াল ভাঙ্গতে শুরু করেছেন।
অভিযোগে থেকে জানাযায় ১০ ডিসেম্বর সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নামে কয়েকজন নির্মাণ কর্মচারী দিয়ে এ কাজ শুরু করানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশলী লিপু সিংহ।
প্রবাসী পরিবারের পক্ষে শিবগঞ্জ মজুমদারপাড়ার মরহুম ছমরু মিয়ার পুত্র সুয়েব আদমজী এ অভিযোগ করেন।
তিনি আরো জানান, সোনালী ২৭নং বাড়ির সম্মুখভাগে ৩০ফুট রাস্তা তাদের খরিদা দখলীয় স্বত্ব। ১৯৬৯ সনে রাস্তা প্রশস্ত করণের জন্য তার বাবা মরহুম ছমরু মিয়া এ ভূমি ক্রয় করেন।
এই ভূমির বাউন্ডারী দেয়াল ভেঙ্গে কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ অপর এক ব্যক্তির বাড়িমুখী রাস্তা নির্মাণ করতে শুরু করেছেন। অনেক আপত্তি-বিপত্তি ও অনুরোধ জানিয়েও রাস্তা নির্মাণ ও দেয়াল ভাঙ্গা থেকে বিরত রাখতে পারছে না প্রবাসী পরিবার। তাই বাড়ির অন্যতম মালিক যুক্তরাজ্য প্রবাসী সুয়েব আদমজী গত ১০ ডিসেম্বর সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বরাবরে লিখিত এ অভিযোগ দায়ের করেন।
সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সংশ্লিষ্ট শাখা অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করলে ও অভিযোগের পর কাজ বন্ধ ছিল কার্যত্ব ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি আজও।
উল্লেখ্য প্রবাসীরা এ দেশের মূল চালিকা শক্তি। আর দেশে তাদের সম্পদ দখল যদি হয়ে যায় তা হলে এটা কি দেশের জন্য শুভনিয়াতা বুজা উচিত সমাজপ্রতিদের। প্রবাসীর দখল হয়ে থাকলে তা উদ্ধার করে দেওয়া প্রয়োজন সিটি কর্পোরেশন ও প্রশাসনের।