সিলেটে স্থগিত কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ ছাড়াই আরিফ ১৪০ ভোটে এগিয়ে

মিসবাহ উদ্দীন আহমদ :: সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ১৩২ কেন্দ্রের বেসরকারী ফলাফলে বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী এগিয়ে থাকলেও এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা হয়নি। ২৪ ও ২৭ নং ওয়ার্ডের দু’টি কেন্দ্রে গত ৩০ জুলাই ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছিল। এগুলোতে আগামী ১১ আগস্ট ফের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এরপরই আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে সিলেটের নতুন নগরপিতার নাম। তবে এখন পাল্টে গেছে পুরনো সব হিসেব-নিকেশ। আরিফুল হক চৌধুরীর পক্ষ থেকে বুধবার দুুপুরে জানানো হয়েছে ৩০১ জন ভোটার এলাকাতেই নেই। মৃত্যু ও প্রবাসে বসবাস এবং চাকুরিতে বদলির কারণে এরা ভোট দিতে পারবেন না। সেই হিসেবে তার বিজয় নিশ্চিত হয়ে গেছে।

 

জানাগেছে, স্থগিত দুই কেন্দ্রের সব ভোটও কামরান পেলেও কামরান বিজয়ী হতে পারছেন না। কারণ তখনও আরিফ ১৪০ ভোটে এগিয়ে থাকবেন। নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে আরিফ পেয়েছেন ৯০ হাজার ৪৯৬ ভোট। নৌকা প্রতীকে কামরান পেয়েছেন ৮৫ হাজার ৮৭০ ভোট। তাদের ভোটের ব্যবধান ৪ হাজার ৬২৬। সিসিকের মোট ১৩৪টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ১৩২টিতে ভোট গ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন হয় ৩০ জুলাই। স্থগিতকৃত ওই দুই ভোটকেন্দ্রে ভোটের সংখ্যা ৪ হাজার ৭৮৭। এর মধ্যে মারা গেছেন ও প্রবাসে রয়েছেন ২৯৮ জন ভোটার। চাকুরির কারণে আরও তিনজন বদলি হয়েছেন। সেই হিসেবে দুই কেন্দ্রে ভোটের দিন আরোও ৩০১টি ভোট কাস্ট না হওয়ারই কথা। এগুলো বাদ দিলে এই ওয়ার্ডে ভোটসংখ্যা দাঁড়ায় ৪৪৮৬টি ভোট। এগুলোর সবও যদি কামরান পেয়ে যান তবুও তিনি বিজয়ী হতে পারবেন না। কারণ তখন আরিফ কামরানের চেয়েও ১৪০ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে থাকবেন।

 

আরিফুল হক চৌধুরী জানিয়েছেন, সিসিকের স্থগিত হওয়া গাজী বুরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের মোট ভোটারের মধ্যে মারা গেছেন ৮০ জন ও বিদেশে আছেন ৮০ জন। এ কেন্দ্রে মোট ভোটার সখ্যা ২২২১, এর মধ্যে পুরুষ ভোটার- ১১৫৩ ও মহিলা ভোটার ১০৬৮ জন। এ ক্ষেন্দ্রে এর মধ্যে মারা গেছেন, ৮০ জন ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আছেন ৮০ জন। ওয়ার্ড ছেড়ে চলে গেছেন অন্তত আরো ২৫/৩০জন।

 

অন্যদিকে স্থগিত হওয়া হবিনন্দী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের মোট ভোটার সখ্যা ২৫৬৬। মোট ভোটারের মধ্যে মারা গেছেন ৩৮ জন ও বিদেশে আছেন ১০০ জন, চাকুরী জনিত কারণে বদলী হয়েছেন ৩ জন।

 

গত ৩০ জুলাই সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৩৪টি কেন্দ্রের মধ্যে উক্ত দুই কেন্দ্র ছাড়া ১৩২টি কেন্দ্রের ফল ঘোষণা করেন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান। এতে বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের চেয়ে ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে আছেন।

 

ফল ঘোষণা করে রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, ১৩২টি কেন্দ্রের ভোট গণনায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীর প্রাপ্ত ভোট ৯০ হাজার ৪৯৬। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের প্রাপ্ত ভোট ৮৫ হাজার ৮৭০।

 

প্রসঙ্গত, সিলেট সিটি করপোরেশন মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৫৬ জন, যার মধ্যে বৈধ ভোট ছিল ১ লাখ ৯১ হাজার ২৮৯টি। বাতিল হয় ৭ হাজার ৩৬৭টি ভোট।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.