Mon. Feb 17th, 2020

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

সিলেট-তামাবিল মহা-সড়ক‘র মাটি কেটে গ্রামীণ রাস্তা তৈরী

1 min read

জৈন্তাপুর (সিলেট):
সিলেট জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ডেমা গ্রামের রাস্তা সংস্কারের নামে সিলেট-তামাবিল মহাসড়কের রাস্তার মাটি কেটে গ্রামীণ রাস্তার উন্নয়ন কাজ করছে উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি সদস্য। সড়ক ও জনপথ কর্মকর্তা বলেন তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
জানা যায় ৮ জানুয়ারী দিবাগত রাতে সিলেটের একমাত্র মহাসড়ক সিলেট-তামাবিল। উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের ডেমা গ্রামের গ্রামীণ সড়কটির সংযোগ স্থল সিলেট তামাবিল মহাসড়ক। উপজেলার কর্মসৃজন প্রকল্পের আওতায় কাজ করছেন দরবস্ত ইউপি‘র ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য ও জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন মেম্বার। তিনি কর্মসৃজন প্রকল্পের শ্রমিক নিয়োগ না করে এস্কেভেটর মেশিন দিয়ে জনগুরুত্বপূর্ণ সিলেট-তামাবিল মহাসড়কের রাস্তার মাটি কেটে নিয়ে ডেমা গ্রামীণ রাস্তা ভরাটের কাজ করছেন।
স্থানীয় এলাকাবাসী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকে জানান প্রকল্পের কাজের জন্য মাটি থাকা সত্ত্বেও ইউপি সদস্য গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মাটি কেটে রাস্তার ক্ষতি সাধন করেছেন। এলাকাবাসী আরোও জানান দ্রুত তদন্ত পূর্বক জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তার ক্ষতি সাধনকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী করেন। একজন প্রভাবশালী নেতা এরকম জঘণ্য কাজ করার কারনে তার দেখাদেখি অন্যরাও এরকম ঘৃনিত কাজ করার সাহস পাবে এবং জনবান্ধব উন্নয়নশীল আওয়ামী সরকারের উন্নয়ন কাজে বাঁধাগ্রস্ত হবে।
এ বিষয়ে সিলেট তামাবিল মহাসড়কের সাব এসিষ্ট্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার মাসুম আহমদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, মাটি কর্তনের বিষয়টি তিনি শুনেছেন। এলাকাটি আমার নয়, বিষয়টি জানার পর দায়িত্বরত সাবএসিষ্ট্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার সুমন সাহেবকে অবহিত করেছি।
এ ব্যপারে সুমন সাহেবের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, স্থানীয় এলাকাবাসী ছবি তুলে আমাকে পাটায় এবং মোবাইল ফোনে মাটি কাটার বিষয় অবহিত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য জালাল উদ্দিন এস্কেভেটরের মাধ্যমে রাতের অন্ধকারে সিলেট-তামাবিল সড়কের মাটি কর্তন করে নিচ্ছেন। আমি ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠিয়েছি তদন্ত করে একাজ বন্ধ রাখার জন্য। তিনি আরোও বলেন তদন্তে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক কেটে মাটি নেওয়ার বিষয়টি প্রমানিত হলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ নিয়ে দরবস্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাহারুল আলম বাহারের সাথে আলাপকালে তিনি জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, আমি ইউপি সদস্যের সাথে আলাপ করে ব্যবস্থা গ্রহন করব।
অভিযুক্ত আওয়ামীলীগ নেতা ও ইউপি সদস্য জালাল উদ্দিন মেম্বার মাটি কর্তনের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন এখানে পুরাতন গর্ত ছিল আমি কিছু মাটি কেটেছি মাত্র।
জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমদ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই, তবে আমি খোঁজ খবর নিয়ে দেখছি।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.