সিসিক নির্বাচন মেয়র পদে কামরানের জয়ের স্বপ্ন দেখছে আওয়ামী লীগ

এনামুল হক জুবের :

সিলেট নগরীর বেশির ভাগ আওয়ামী লীগের কর্মী- সমর্থক মনে করেন, ব্যক্তিগতভাবে অন্যদের চেয়ে বদর উদ্দিন আহমদ কামরান সিলেটে এখনো জনপ্রিয়। গত শুক্রবার সিসিকের মেয়র পদে  এই জনপ্রিয় ব্যক্তিকে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থি মনোনীত করা  হয়। সিলেটের নেতা-কর্মীরা আশাবাদী এবার কামরান বিজয়ী হবেন। সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এবারই প্রথম মেয়র পদে দলীয় প্রতীকে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।  এর আগে সিলেট সিটির তিনটি নির্বাচনে দু’টিতে কামরান মেয়র পদে বিপুল ভোটে বিজয়ী হন। তবে, ২০১৩ সালের নির্বাচনে ১৮ দলের একক প্রার্থি বিএনপি’র আরিফুল হক চৌধুরীর কাছে ৩৫ হাজার ভোটে পরাজিত হলেও ভেঙ্গে পড়েননি কামরান। দলীয় রাজনীতিতে বরাবরই সক্রিয় কামরান বর্তমানে সিলেট মহানগর কমিটির সভাপতি। এবারও দলীয় মনোনয়ন লাভে তাকে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি। তার অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী আসাদ উদ্দিনসহ সকলেই এখন সিলেটে নৌকার পক্ষে মাঠে নেমে পড়ায় উজ্জীবিত নেতা কর্মীরা এবার জয়ের স্বপ্ন দেখছেন। বদরউদ্দিন আহমেদ কামরানও সিসিকের মেয়র পদ পুনরুদ্ধারের আশা করছেন।  দলীয় মনোনয়ন লাভের পর এক প্রতিক্রিয়ায় কামরান বলেন, দল যেহেতু আমার ওপর আস্থা রেখেছে, সবার সহযোগিতায় মেয়রের পদটি পুনরুদ্ধার করতে চাই। তিনি  বলেন, দলীয় সভাপতি আমাকে বছর খানেক আগেই সিগন্যাল দিয়ে রেখেছিলেন এবং কাজ করতে বলেছেন। আমি সেই লক্ষ্যেই মাঠে ছিলাম। জনগনের সঙ্গে কাজ করে গেছি। আমি গত নির্বাচনে হারার পরও জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাইনি, সব সময় মানুষের পাশে ছিলাম। আশা করি এবার আর জনগণ আমাকে ফেরাবে না।

দলীয় মনোনয়ন লাভের পর বদর উদ্দিন আহমদ কামরান রোববার বিকেলে হযরত শাহজালাল (র.) এর মাজার জিয়ারত ও শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। মাজার জিয়ারত শেষে কামরান বলেন, আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে নৌকা প্রতিকের বিজয় নিশ্চিত করবো। গত নির্বাচনে দলের কোন্দলের কারণে হেরেছিলেন কী না এক সংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে কামরান বলেন, এবার আর গতবারের মতো হবে না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বিশাল সংগঠন। এই দলে মান অভিমান থাকতে পারে। প্রতিযোগিতা থাকতে পারে। তবে, এবার আমাদের মধ্যে কোনো মতপার্থক্য নেই। নেত্রী যেভাবে নির্দেশ দিয়েছেন সেভাবে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাব।

এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, একটি গণতান্ত্রিক দলে অনেকেই মনোনয়ন চাইতে পারেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ সবসময়ই ঐকবদ্ধ। ঐক্যবদ্ধভাবেই আমরা এবার সিটি নির্বাচনে বিজয় ছিনিয়ে আনবো।  এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের হাতে নৌকা প্রতীক তুলে দিয়েছেন। এই নৌকা কামরান ভাইয়ের নয়, এটি আওয়ামী লীগের নৌকা, স্বাধীনতার প্রতীক নৌকা, শেখ হাসিনার নৌকা। ফলে আমরা ব্যক্তি দেখবো না, নৌকার প্রশ্নে আমরা ঐক্যবদ্ধ।

১৯৭৭ সালে অল্প বয়সে কামরান সিলেট পৌরসভার কমিশনার নির্বাচিত হওয়ার পর সকলের নজরে আসেন। পরবর্তীতে তিনি পৌরসভার চেয়ারম্যান ও সিলেট সিটির টানা দুইবারের নির্বাচিত মেয়র ছিলেন। ২০১৩ সালে সিটি নির্বাচনে কামরানের বড় ব্যবধানে পরাজয়ের পেছনে নানা কারণ রয়েছে বলে মনে করেন স্থানীয় নেতারা। সে সময় রাজধানীর শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামীর নেতা-কর্মীদের দমন পীড়ন ধর্মপ্রাণ মানুষ সহজে মেনে নিতে পারেননি, ভোটে তার প্রভাব পড়েছিলো- এমনটি মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লষকরা।  তারা আরো মনে করেন, সেময় কামরানের পরাজয়ের পেছনে মূল কারণ ছিলো বিএনপি’র ঐক্য এবং ১৮ দলের শরীক জামায়াত ও খেলাফত মজলিসসহ অন্যদের মাঠে সক্রিয় থাকা। সিলেটে সাংগঠনিকভাবে আওয়ামী লীগের চেয়ে বিএনপি তুলনামূলকভাবে কিছুটা দূর্বল। সিটি কর্পোরেশনের প্রথম দু’টি নির্বাচনে বিএনপি’র একাধিক প্রার্থি থাকায় কামরান মেয়র পদে সহজেই জয়লাভ করেছিলেন।

এবার বিএনপি’তে প্রার্থি মনোনয়ন নিয়ে বিরোধ তুঙ্গে। মহানগর বিএনপি’র বেশিরভাগ নেতা-কর্মী মেয়র আরিফের বিপক্ষে। দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৬ নেতার ৫ জনই আরিফকে মনোনয়ন না দিয়েই তাদের মধ্য থেকে কাউকে মনোনীত করার জন্য দলের হাই কমান্ডের প্রতি দাবি জানিয়েছেন। এ অবস্থায় শেষ পর্যন্ত আরিফুল হক চৌধুরী না মহানগর সেক্রেটারী বদরুজ্জামান সেলিম এ দু’জনের মধ্যে কে পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন তা এখনো স্পষ্ট নয়। সোমবার  এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিএনপি’র দলীয় প্রার্থির নাম ঘোষণা করা হয়নি। তবে, যিনি মনোনয়ন পাননা কেন দলের মধ্যে যে বিভাজন দেখা দিয়েছে তার প্রভাব পড়বে নির্বাচনে।

এদিকে, সিলেটে সাংগঠনিকভাবে বেশ শক্তিশালী জামায়াত এবার তাদের মনোনীত প্রার্থি দলের মহানগর আমীর এ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়েরকে ২০ দলের একক প্রার্থি করার জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। জামায়াতকে এবার ছাড় না দিলে জোটের একক প্রার্

Leave a Reply

Your email address will not be published.