সূচনা বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী: সবাই মিলে দেশটাকে গড়তে হবে

ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের স্বাগত জানিয়ে সূচনা বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীগণভবনে সংলাপের শুরুতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের স্বাগত জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘গণভবন জনগণের ভবন। সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি।’

সংলাপের শুরুতে সূচনা বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ গত ৯ বছর ক্ষমতায় থেকে দেশের যা উন্নয়ন করেছে তা সবাই দেখতে পেয়েছেন। এখন সবাই মিলে দেশটাকে গড়তে হবে। কারণ, দেশটা আমাদের সবার। সবাই মিলে দেশটাকে গড়তে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজকে এই অনুষ্ঠানে আপনারা এসেছেন জনগণের ভবনে। এই গণভবনে আপনাদের স্বাগত জানাই। দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি এবং দীর্ঘ সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখেছি। এটা বাংলাদেশের উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখার ক্ষেত্রে বিরাট অবদান রাখবে বলে মনে করি। এই দেশটা আমাদের। সব মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা, দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং দেশের সার্বিক উন্নয়ন- এটাই আমাদের মূল লক্ষ্য। আমি এটা বিচারের ভার আপনাদের ওপর ছেড়ে দেবো। দীর্ঘ ৯ বছর ১০ মাস হতে চললো আমরা সরকারে রয়েছি। এই সময়ের মধ্যে দেশের কতটা উন্নয়ন করতে পেরেছি সেটা নিশ্চয়ই আপনারা বিবেচনা করে দেখবেন। এটুকু বলতে পারি, বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ ভালো আছে, তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেছে। দিনবদলের যে সূচনা করেছিলাম, সেই দিনবদল হচ্ছে। এটাকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন করে যাচ্ছি আমরা। দীর্ঘ সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রেখেছি। দেশের উন্নয়নের এই গতিধারা অব্যাহত রাখতে হবে।’

বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, ‘লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা, আমাদের মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আমরা এই স্বাধীনতা অর্জন করেছি। এই স্বাধীনতার সুফল যেন প্রতিটি মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছাতে পারি, সেটাই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য। আর সেই লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করছি।’

উল্লেখ্য, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিভিন্ন দাবি নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে সংলাপে বসেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। আজ বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টা থেকে এই বৈঠক চলছে।