১৫০ টি ভারতীয় ট্রাকসহ চালক ৩ মাস ধরে আ টকা বনোপোল বন্দরে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ২৫ জুন ২০২০ ০৮:০৬

১৫০ টি ভারতীয় ট্রাকসহ চালক ৩ মাস ধরে আ টকা বনোপোল বন্দরে

বনোপোল প্রতনিধিি :
বনোপোল বন্দরে ৩ মাস আগে ভারত থকেে আমদানি পণ্য নয়িে আসা ১৫০ টি ট্রাক ও ট্রাকচালক পণ্য খালাস শষে করলওে করোনার কারণে দশেে ফরিতে পারছনে না। ফলে থাকা, খাওয়া ও পরবিাররে সাথে যোগাযোগ বচ্ছিন্নি হওয়ায় চরম বপিাকে পড়ছেনে তারা। এছাড়া আটকে থাকা ভারতীয় ট্রাকরে কারণে বন্দরে বড়েছেে যানজট।
এদকিে ভারতে রফতানি পণ্য নয়িে যাওয়া র্অধ শতাধকি খালি ট্রাক তনি মাস ধরে আটকা পড়ছেে ভারতরে পট্রোপোল বন্দর।ে করোনার কারণে লকডাউন চলায় ট্রাকগুলো দশেে আনা যাচ্ছে না। এতে পণ্য পরবিহন করতে না পরেে বকোয়দায় পড়ছেনে ট্রাকরে চালকসহ শ্রমকিরা।বনোপোল বন্দর র্কতৃপক্ষ বলছ,ে ট্রাকগুলো যাতে দ্রুত দশেে আনা যায়, সজেন্য যোগাযোগ করা হচ্ছ।ে তবে বন্দর র্কতৃপক্ষ চালকদরে প্রতদিনি খাবার সরবরাহ করছনে।
ভারতীয় ট্রাক চালক রাজা বলনে, ৩ মাস আগে বনোপোল বন্দরে আমদানি পণ্য নয়িে এসছে।ি কন্তিু খালাস শষে হলওে বএিসএফ করোনা রোধে আমাদরে দশেে ফরিতে দচ্ছিে না। বন্দরে আটকে পড়ায় ঠকি মতো খাওয়া হচ্ছে না আমাদরে। কোনো রকমে ট্রাকে রাত কাটাতে হচ্ছে তাদরে। এছাড়া যোগাযোগ বন্ধ হয়ে পড়ায় পরবিাররে খোঁজও নতিে পারছনি।ে
বনোপোল বন্দর শ্রমকি ইউনয়িনরে নতো রাজু আহম্মদে বলনে, শতাধকি ভারতীয় ট্রাক পণ্য খালাস শষেে বন্দররে শডেে পড়ে আছ।ে এখন আমদানি শুরু হয়ছে।ে র্বষার সময় শডেরে নচিে পণ্য খালাস করতে হয়। কন্তিু ভারতীয় ট্রাকরে কারণে সখোনে বাংলাদশেি ট্রাক রাখা সম্ভব হচ্ছে না।
বাংলাদশেি ট্রাক শ্রমকি তরকিুল ইসলাম জানান, করোনার প্রার্দুভাবরে আগে বাংলাদশেি ট্রাকচালকরো রফতানি পণ্য নয়িে ভারতে প্রবশে করনে। এ সময় বএিসএফ সদস্যরা ৭৫ টি ট্রাক রখেে চালকদরে পাঠয়িে দয়ে। ফলে ওপারে ট্রাকগুলো আটকা পড়ে আছ।ে এতে শ্রমকিরা পণ্য পরবিহন করতে না পরেে বকোর বসে আসনে।
বনোপোল বন্দররে উপপরচিালক (ট্রাফকি) মামুন কবীর তরফদার বলনে, সব কছিু বনোপোল বন্দররে ওপর নর্ভির করে না। কছিু চালক এরই মধ্যে ভারতে ফরিছেনে। যোগাযোগ চলছ,ে আশা করছ,ি দুই-একদনিরে মধ্যে অন্যরাও ফরিে যাবনে। তাদরে কম-বশেি খোঁজখবর নওেয়া হচ্ছ।ে আর বনোপোলরে ওপারে ভারতরে পট্রোপোল বন্দরে শ্রমকিরো প্রবশে করতে না পারায় ভারত অংশে আটকে থাকা বাংলাদশেি ট্রাক ফরেত আনা সম্ভব হচ্ছে না।ট্রাকগুলো ফরিয়িে আনার চষ্টো চলছে বলওে জানান তনি।ি
করোনাভাইরাস রোধে গত ২২ র্মাচ থকেে স্থল পথে বনোপোল বন্দররে সাথে আমদানি ও রফতানি বাণজ্যি বন্ধ করে দয়ে ভারতীয় র্কতৃপক্ষ। এ সময় দুই বন্দরে পণ্য নয়িে আটকা পড়নে অনকে চালক। গত ৭ জুন থকেে এ পথে আমদানি বাণজ্যি চালু হলওে রফতানি এখনও বন্ধ রয়ছে।ে করোনার ভয়ে ভারতীয় র্কতৃপক্ষ বাংলাদশেে আটকে পড়া র্অধশতাধকি ট্রাকচালককে নজি দশেে ফরেত নচ্ছিে না। এছাড়া বাংলাদশেি ট্রাকচালকদরেও ভারতে ঢুকতে দচ্ছিে না। তবে এসব বাধা ভারত অংশে থাকলওে বাংলাদশে অংশে কোনো প্রতবিন্ধকতা দখো যায়ন।ি

এই সংবাদটি 1,226 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •