Tue. Sep 17th, 2019

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

১ দিনে ৮ লাখ ডলারের গহনা কিনেছিলেন নাজিব রাজাক

1 min read

মালয়েশিয়ার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে এক দিনে আট লাখ মার্কিন ডলারের অলংকার কেনা হয়েছিল। ইতালির একটি অলংকারের দোকান থেকে এসব কেনা হয়েছিল বলে কুয়ালালামপুরের আদালতে জানিয়েছেন সরকারি কৌঁসুলিরা।

 

আদালতে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ৮ আগস্ট ইতালিতে সুইস অলংকার বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ডি গ্রিসোগোনো থেকে নাজিব রাজাকের ভিসা ও মাস্টারকার্ডের প্লাটিনাম ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে আট লাখ তিন হাজার মার্কিন ডলারের অলংকার কেনা হয়। এর কয়েক মাস পর হাওয়াইয়ের একটি বুটিকের দোকান থেকে এক লাখ আট হাজার মার্কিন ডলারের পণ্য কেনা হয়। একই ক্রেডিট কার্ডে এক লাখ ২৭ হাজার রিঙ্গিত (মালয়েশিয়ার মুদ্রা) খরচ করা হয় ব্যাংককের বিলাসবহুল শাংরি-লা হোটেলে। এই লেনদেনের সবকয়টির অর্থ পরিশোধ করা হয়েছিল নাজিবের অ্যামব্যাংকের হিসাব থেকে।

 

২০১৮ সালে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেওয়া নাজিবের বিরুদ্ধে সরকারি তহবিলের অর্থ আত্মসাৎসহ একাধিক দুর্নীতির মামলা চলছে। ওই মামলাগুলোতে প্রমাণ হিসেবে এই ক্রেডিট কার্ডের বিলগুলো আদালতে উপস্থাপন করা হয়।

 

মালয়েশিয়ার অর্থনীতির উন্নয়নের জন্য ২০০৯ সালে ওয়ানএমডিবি তহবিল গঠন করা হয়েছিল। নাজিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ  ওই তহবিলের ৪০০ কোটি মার্কিন ডলার নাজিবের জ্ঞাতসারে দুর্নীতির মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী খরচ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে চলচ্চিত্রে বিনিয়োগ, প্রমোদতরী ক্রয়, আবাসন খাতে ব্যয় এবং তারকাদের নিয়ে বিনোদন। অভিযোগ রয়েছে, তহবিল থেকে ৬০ কোটি ৮১ লাখ মার্কিন ডলার গিয়েছে নাজিবের  ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবে। এই অর্থ  ব্যয় করা হয়েছে নাজিব ও তার স্ত্রী রোজমাহ মানসুরের বিলাসবহুল চাহিদা মেটাতে।

 

ক্ষমতা থেকে বিদায়ের পর গত বছর নাজিবের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছিল মালয়েশিয়ার পুলিশ। ওই সময় তার বাড়ি থেকে ২৭ কোটি ৩০ লাখ ডলারের বিলাসবহুল পণ্য জব্দ করা হয়, যার মধ্যে রয়েছে এক ৪০০ গহণা, ৫৬৭টি হাতব্যাগ, ৪২৩টি ঘড়ি, দুই হাজার ২০০ আংটি, এক হাজার ৬০০ ব্রোচ এবং ১৪টি টায়রা।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Developed By by Positive it USA.

Developed By Positive itUSA