৪ তারিখে সিদ্ধান্ত জানাবো: সিইসি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ আগামী ৪ তারিখে কমিশনের সভা শেষে জানানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি অবহিত করে তফসিলের তারিখ নিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের একথা জানান।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে জানাতে এসেছিলাম। ভোটার তালিকা, নির্বাচনের কেন্দ্র ইত্যাদি নিয়ে কথা হয়েছে। প্রত্যেক নির্বাচনের আগেই এরকম হয়ে থাকে। সেই হিসবে প্রস্তুতি নিয়ে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করলাম। রাষ্ট্রপতি প্রস্তুতি নিয়ে সন্তুষ্ট।’

নির্বাচন কবে হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তফসিলই তো হয়নি। কমিশনের সঙ্গে আলাপ করে আগামী ৪ তারিখের সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এটা রুটিন কাজ। কখন নির্বাচন হবে, আমাদের প্রস্তুতি কী সেগুলো রাষ্ট্রপতিকে জানানো হয়েছে। আগামী ৪ তারিখ তফসিল নিয়ে কমিশন বৈঠক করবেন। এরপরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

সিইসি আরও বলেন, ‘বিএনপির গঠনতন্ত্র বিষয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা নিয়েও আগামী কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সংবিধান অনুযায়ীই নির্বাচন হবে। নির্বাচনের প্রস্তুতিতে রাষ্ট্রপতি সন্তুষ্ট।’

চলমান সংলাপ বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘চলমান সংলাপ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার ক্ষেত্রে কোনো প্রভাব ফেলবে না। আমরা আমাদের মতো করে তফসিল ঘোষণা করবো।’ নির্বাচনে সব দল অংশ নেবে কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক নেতাদের উদ্দেশে আমাদের কিছু বলার নাই। বিশ্বাস আছে যে সবাই নির্বাচনে আসবে।’

এর আগে, বিকাল ৪টার দিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বে ৬ সদস্যের ইসির একটি প্রতিনিধি দল বঙ্গভবনে পৌঁছান। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠক করেন তারা। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) প্রতিনিধি দলে ছিলেন- চার নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও ব্রি. জে. (অব.) শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী এবং ইসি সচিব মো. হেলালুদ্দীন আহমদ।

উল্লেখ্য, সংবিধান অনুযায়ী সংসদের পাঁচ বছরের মেয়াদ পূরণের আগের ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা। এর আগে, দশম সংসদের প্রথম অধিবেশন বসেছিল ২০১৪ সালের ২৯ জানুয়ারি। সেই হিসাবে সংবিধান অনুয়ায়ী আগামী বছরের ২৮ জানুয়ারির মধ্যে জাতীয় সংসদ নির্বাচন আয়োজনের আইনি বাধ্যবাধ্যকতা রয়েছে। আর ৩১ অক্টোবর থেকে ৯০ দিন গণনা শুরু হয়েছে।