৯৯৯ ফোন করে ছয় কিশোর উদ্ধার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০ ০৯:০৫

৯৯৯ ফোন করে ছয় কিশোর উদ্ধার

শরণখোলা (বাগেরহাট) ঃ
৯৯৯ এ ফোন করে উদ্ধার হলো সুন্দরবনে হারিয়ে যাওয়া ছয় কিশোর। প্রায় ১৮ ঘন্টা পর পুলিশ সুন্দরবন থেকে উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে শরণখোলার উপজেলার ধানসাগর স্টেশনের আওতাধীন সুন্দরবনে। উদ্ধার হওয়া কিশোররা হচ্ছে, উপজেলার দক্ষিন আমড়াগাছিয়া গ্রামের ইসাহাক খলিফার পুত্র জয় (১৬), ফারুক খলিফার পুত্র সাইমুন (১৬), শহিদুল খলিফার পুত্র জুবায়ের (১৭), শহিদুল খলিফার পুত্র মাইনুল ইসলাম (২১), জাহাঙ্গীর তালুকদারের পুত্র রহিম (১৭) ও রায়েন্দা বাজারের জাহাঙ্গীর খলিফার পুত্র ইমরান (১৯)।
পুলিশ জানায়, বুধবার সকাল ১০টায় ওই ছয় কিশোর বন্ধু মিলে কৌতুহলবশত উপজেলার রাজাপুর এলাকা থেকে সুন্দরবনে প্রবেশ করে। বনে প্রবেশের কিছুক্ষন পরে তারা পথ হারিয়ে ফেলে। পথ খুজে না পেয়ে সন্ধ্যা হলে তারা বনের বিভিন্ন গাছে আশ্রয় নেয়। কিশোরদের মধ্যে রায়েন্দা সরকারি পাইলট হাই স্কুলের এসএসসি পরক্ষার্থী জয় বুদ্ধি খাটিয়ে তার মোবাইল থেকে ৯৯৯ এ খবর দেয়। সেখান থেকে তারা সরাসরি শরণখোলা থানায় কথা বলিয়ে দেয়। এরপর থানা ও ধানসাগর নৌ-পুলিশ স্থানীয়দের নিয়ে সুন্দরবনে তল্লাশি চালায়। তারা মাইকিং করে কিশোরদের সন্ধান পাওয়ার চেষ্টা করে। এরপর মোবাইলে যোগাযোগের মাধ্যমে ভোর ৪ টায় সময় তাদের সন্ধান মিলে। তারা লোকালয় থেকে প্রায় ৫/৬ কিলোমিটার গভীর বনে ডুকে পড়ছিল।
জয় জানায়, তার মোবাইলে ব্যালেন্স ছিল না। কিন্তু সে জানতো ব্যালেন্স না থাকলেও ৯৯৯ এ ফোন করা যায়। তাই সে বুদ্ধি খাটিয়ে ৯৯৯ ফোন করে সহযোগীতা চায়।
শরনখোলা থানার অফিসার ইন চার্জ এসকে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান, কিশোরদের উদ্ধার করে থানায় এনে তাদের অভিভাবকদের খবর দেয়া হয়। দুপুরে সবাইকে মিষ্টি খাইয়ে কিমোরদের অভিভাবকদে রহাতে তুলে দেয়া হয়।

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •