Day: September 7, 2018

২০০ টাকা ধার করেই কোটিপতি হলেন দিনমজুর!

কয়েক দিন আগে পর্যন্ত মাত্র কিছু টাকার জন্য ধার করে চালাতে হতো দৈনন্দিন জীবন, আজ সেই হয়ে গেল কোটিপতি।দুঃস্বপ্ন রাতারাতি বদলে গেল সুদিনে। কয়েক দিন আগে পর্যন্ত মাত্র কিছু টাকার জন্য ধার করে চালাতে হতো দৈনন্দিন জীবন, আজ সেই হয়ে গেল কোটিপতি।এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, পঞ্জাবের সঙ্গুরুর জেলার মানদাভি গ্রামের বাসিন্দা মনোজ কুমার কয়েকদিন আগে একটি লটারি টিকিন কেনেন। ওই লটারির টিকিটের জন্য ২০০ টাকাও ধার করেছিলেন তিনি। পেশায় শ্রমিক মনোজের পক্ষে ২০০ টাকাই জোগাড় করতে কালঘাম ছুটে যাওয়ার মতো অবস্থা হয়। কিন্তু তার পরেই ঘুরে গেল তাঁর ভাগ্যের চাকা। কয়েকদিন আগে পঞ্জাব স্টেট লটারিজ সংস্থা লটারি বিজেতাদের নাম ঘোষণা করে। সেখানে দেখা যায় মনোজ দেড় কোটি টাকা জিতেছেন। মনোজ জানিয়েছেন, ‘‘লটারির টিকিটের টাকাও আমাকে ধার করে কিনতে হয়েছে। আমি ভাবতেই পারিনি যে এতো টাকা জিততে পারব কোন
গুরুতর অসুস্থ, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেয়া হোক খালেদা জিয়াকে

গুরুতর অসুস্থ, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেয়া হোক খালেদা জিয়াকে

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ২৪ ঘণ্টার  মধ্যে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেয়ার দাবি জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। আজ পুরাতন ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ দাবি জানান। তিনি বলেন, আজ সাক্ষাতে ম্যাডামকে যেভাবে দেখেছি তাতে তিনি কিভাবে আগের দিন আদালতে এসেছেন সেটা ভাবছি। তিনি বাম হাত নাড়াতে পারেননা। বাম পাশ পুরো অবশ হয়ে গেছে। চোখেও প্রচন্ড ব্যথা হয়। চোখের ভবিষ্যত কি সেটা বলা যাচ্ছে না। আমরা মনে করি কারাগারের ভেতরে রেখে তাকে চিকিৎসা না দেয়ায় এই অবস্থা হয়েছে।তাই আমরা মনে করি আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে তাকে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেয়া হোক। ইউনাইটেড, অ্যাপোলো বা যে কোন বেসরকারি বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করা হোক। আগে চিকিৎসা তার পর বিচার। খালেদা জিয়ার বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। তিনি ৩ বারের সাব
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অর্থ বিনিয়োগের মাধ্যমে ভিসা এবং গ্রীন কার্ড প্রাপ্তি প্রসঙ্গে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অর্থ বিনিয়োগের মাধ্যমে ভিসা এবং গ্রীন কার্ড প্রাপ্তি প্রসঙ্গে।

যুক্তরাষ্ট্রে অর্থ বিনিয়োগের মাধ্যমে পৃথিবী বিভিন্ন রাষ্ট্র থেকে বিনিয়োগকারী ভিসা প্রদান করা হয়। বিনিয়োগকারী ব্যক্তি এবং প্রতিষ্টান কে এই ক্ষেত্রে স্ব স্ব দেশ থেকে আইনানুযায়ী নিজের টাকা নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাংক এবং অন্যান্য আর্থিক সংস্থার মাধ্যমে আইনানুগ ভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আনা হয়।এই প্রসঙ্গে বাংলাদেশের বিনিয়োগকারীদের সম্পর্কে আলোচনা করা যাক; বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিকভাবে চুক্তিভুক্ত রাষ্ট্র বিধায় বাংলাদেশ বণিকদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিনিয়োগের মাধ্যমে ভিসা এবং গ্রিনকার্ড প্রাপ্তির প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। নূন্যতম মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে বিনিয়োগের মাধ্যমে আপনি গ্রীন কার্ড পেতে পারেন। আপনার নূন্যতম  পাঁচ লক্ষ  ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে আপনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সরাসরি গ্রীন কার্ড আবেদন করতে পারেন।