Day: November 1, 2018

মাথা নত করবেন না মির্জা ফখরুল

মাথা নত করবেন না মির্জা ফখরুল

ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মধ্য দিয়ে এই সরকারকে পরাজিত করার ঘোষণা দিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তারা মাথা নত করবেন না। দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির মামলায় আবার সাত বছরের কারাদণ্ডের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাজধানীতে বিএনপির ছয় ঘণ্টার অনশনে এ কথা বলেন ফখরুল। গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে এই কর্মসূচি হয়। সকাল ১০টা থেকে বিকাল তিনটা পর্যন্ত এই অনশনে বসেন বিএনপি এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। তবে তাদের অনশন ভাঙান বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী এমাজউদ্দিন আহমদ। যেদিন এই কর্মসূচি হয়, একই দিন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক হিসেবে বিএনপিও গণভবনে যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপ করতে। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে জোটের দাবি এবং সরকারের দাবির মধ্যে ব্যবধান কমিয়ে সমঝোতায় আসার বিষয়ে ফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেন আশাবাদী বলে জানিয়েছেন। তবে বিএনপি এই সংলাপের সাফল্য
৪ তারিখে সিদ্ধান্ত জানাবো: সিইসি

৪ তারিখে সিদ্ধান্ত জানাবো: সিইসি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ আগামী ৪ তারিখে কমিশনের সভা শেষে জানানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি অবহিত করে তফসিলের তারিখ নিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের একথা জানান। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে জানাতে এসেছিলাম। ভোটার তালিকা, নির্বাচনের কেন্দ্র ইত্যাদি নিয়ে কথা হয়েছে। প্রত্যেক নির্বাচনের আগেই এরকম হয়ে থাকে। সেই হিসবে প্রস্তুতি নিয়ে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করলাম। রাষ্ট্রপতি প্রস্তুতি নিয়ে সন্তুষ্ট।’ নির্বাচন কবে হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তফসিলই তো হয়নি। কমিশনের সঙ্গে আলাপ করে আগামী ৪ তারিখের সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এটা রুটিন কাজ। কখন নির্বাচন হবে, আমাদের প্রস্তুতি কী সে
গণভবনে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা

গণভবনে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপে অংশ নিতে গণভবনে প্রবেশ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের ২১ সদস্যের প্রতিনিধি দল প্রবেশ করেন। তাদের মধ্যে বিএনপি নেতা ড. আবদুল মঈন খান সন্ধ্যা ছয়টায় গণভবনে পৌঁছান। সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ। সংলাপে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৪ দলের ২৩ প্রতিনিধি এবং গণফোরাম সভাপতি ড. কামালের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ২১ জন প্রতিনিধি অংশ নেবেন।
সংলাপ ফলপ্রসূ হবে বলে মনে হয় না: এরশাদ

সংলাপ ফলপ্রসূ হবে বলে মনে হয় না: এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আওয়ামী লীগের সংলাপ ফলপ্রসূ হবে বলে মনে হয় না। নির্বাচনে ইভিএমের ব্যবহার নিয়ে এরশাদ বলেন, ইভিএম পরীক্ষিত নয়। এটি আমরা সন্দেহের চোখে দেখি। ইভিএম দিলে কারচুপির ঘটনা ঘটতে পারে। তাই জাতীয় পার্টি এর পক্ষে নেই। বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুরে একদিনের সফরে এসে পর্যটন মোটেলে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগের সাথে ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে এরশাদ বলেছেন, হাসিনার পদত্যাগসহ ৭ দফার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের যে সকল দাবি রয়েছে সেটি মানা হাসিনার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই সংলাপটি ফলপ্রসূ হবে বলে আমার মনে হয় না। আওয়ামী লীগ বলেছে সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে কিন্তু জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট চেয়েছে সংবিধানের বাহিরের অনেক কিছু। বিএনপি’র নির্বাচনে অংশ নেয়া সম্পর্কে এরশাদ বলেন, খালেদা জিয়া জেলে, তারেক রহমান দেশের বাহিরে। দলে নেতৃত্ব দেবে
ফিক্সিং কান্ডে নিষিদ্ধ লঙ্কান কোচ

ফিক্সিং কান্ডে নিষিদ্ধ লঙ্কান কোচ

ফিক্সিংয়ে কান্ডে জড়িত থাকায় শ্রীলঙ্কার বোলিং কোচ নুয়ান জয়সাকে নিষিদ্ধ করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকটে কাউন্সল (আইসসি)। পাশাপাশি তাকে কারণ দর্শাতেও বলা হয়েছে। কারণ দর্শানোর জন্য তাকে ১৪ দিনের সময় দেয়া হয়েছে। আইসিসির সংক্ষিপ্ত বিবৃতি থেকে জানা যায়, জয়সার বিরদ্ধে ম্যাচ পাতানোর চেষ্টা ও এ সংক্রান্ত অবৈধ ও দুর্নীতিতে যুক্ত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। তিনি শ্রীলঙ্কার একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের রেজাল্টের উপর প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করেছেন। এমনকী একজন খেলোয়াড়কে দিয়ে ম্যাচ পাতানোর চেষ্টাও করেছেন। এ নিয়ে দ্বিতীয় কোনো শ্রীলঙ্কান হিসেবে আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিটের (এসিইউ) অভিযোগের তীরের মুখে পড়লেন। তার আগে চলতি মাসের শুরুর দিকে শ্রীলঙ্কান সাবেক ব্যাটসম্যান, প্রধান নির্বাচক ও সাবেক অধিনায়ক সনাৎ জয়াসুরিয়াকে অভিযুক্ত করে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছিল এসিইউ। জয়াসুরিয়া বিরদ্ধে আনীত অভিযোগের সঙ্গে জয়সার কোনো য
সূচনা বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী: সবাই মিলে দেশটাকে গড়তে হবে

সূচনা বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী: সবাই মিলে দেশটাকে গড়তে হবে

ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের স্বাগত জানিয়ে সূচনা বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীগণভবনে সংলাপের শুরুতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের স্বাগত জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, 'গণভবন জনগণের ভবন। সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি।' সংলাপের শুরুতে সূচনা বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, 'আওয়ামী লীগ গত ৯ বছর ক্ষমতায় থেকে দেশের যা উন্নয়ন করেছে তা সবাই দেখতে পেয়েছেন। এখন সবাই মিলে দেশটাকে গড়তে হবে। কারণ, দেশটা আমাদের সবার। সবাই মিলে দেশটাকে গড়তে হবে।' তিনি আরও বলেন, 'আজকে এই অনুষ্ঠানে আপনারা এসেছেন জনগণের ভবনে। এই গণভবনে আপনাদের স্বাগত জানাই। দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি এবং দীর্ঘ সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখেছি। এটা বাংলাদেশের উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখার ক্ষেত্রে বিরাট অবদান রাখবে বলে মনে করি। এই দেশটা আমাদের। সব মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা, দেশকে এগিয়ে ন