ইন্টারন্যাশনাল

হামলার ৯ মিনিট আগেই নাশকতার ইঙ্গিত পেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী

হামলার ৯ মিনিট আগেই নাশকতার ইঙ্গিত পেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দু’টি মসজিদে হামলার ঘটনার নয় মিনিট আগেই নাশকতার ইঙ্গিত পেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডার্ন। তিনি বলেন, তার কাছে একটি ইমেইল এসেছিল। ওই ইমেইলটি তার সঙ্গে আরও ৩০ জনকে পাঠানো হয়েছিল।   প্রধানমন্ত্রী জানান, কোথায় হামলা হবে তা উল্লেখ করা না থাকলেও নাশকতার কথা ওই ইমেইলে ছিল। তিনি বলেন, ইমেইলে মতাদর্শের প্রসঙ্গটি বেশি করে ব্যাখা করা হয়েছিল। শুক্রবার ওই হামলার পর এক বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে এটি একটি কালো দিন হিসেবে চিহ্নিত থাকবে।   এদিকে, নিউজিল্যান্ডের অস্ত্র আইনে জরুরি ভিত্তিতে পরিবর্তনের জন্য সোমবার দেশটির মন্ত্রিসভা বৈঠকে বসতে যাচ্ছে।শুক্রবারে ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পরই দেশটির প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন নিউজিল্যান্ডের অস্ত্র আইনে পরিবর্তন আনা হবে।   হামলাকারী অস্ট্রেলিয়ার নাগর
হামলা নিয়ে বিরূপ মন্তব্য, সিনেটরের মাথায় ডিম

হামলা নিয়ে বিরূপ মন্তব্য, সিনেটরের মাথায় ডিম

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলা বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ার অতি ডানপন্থী সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং মুসলিমবিদ্বেষী মন্তব্য করায় তাঁর মাথায় ডিম ভেঙেছেন এক তরুণ। সঙ্গে সঙ্গে সিনেটর অ্যানিং অবশ্য ওই তরুণকে একাধিক চড়থাপ্পড়, কিলঘুষি মেরেছেন। পরে এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা অ্যানিংকে সরিয়ে নেন। গত শনিবারের ঘটনা এটি।   অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড অঙ্গরাজ্যের সিনেটের ফ্রেজার অ্যানিং। শুক্রবার বিকেলে তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, বামপন্থী রাজনীতিক ও গণমাধ্যম ক্রাইস্টচার্চের হামলার জন্য আগ্নেয়াস্ত্র আইন বা জাতীয়তাবাদী চিন্তাভাবনাকে দোষারোপ করবেন। তবে এটি খুবই গতানুগতিক চিন্তা। ক্রাইস্টচার্চ হামলার পেছনে দায়ী মূলত মুসলিম অভিবাসন। তিনি প্রশ্ন রাখেন, মুসলিম অভিবাসন ও সহিংসতা যে অঙ্গাঙ্গি জড়িত, ক্রাইস্টচার্চ হামলার পরও কি কেউ তা অস্বীকার করতে পারবে?   সঙ্গে সঙ্গে নিন্দার ঝড় বয়ে যায় সারা বিশ্বে। এই
বন্ধুর পাঠানো টেলিগ্রাম পেলেন ৫০ বছর পর

বন্ধুর পাঠানো টেলিগ্রাম পেলেন ৫০ বছর পর

টেলিগ্রামের প্রয়োজনীয়তা আগেই ফুরিয়েছে। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নও তাদের টেলিগ্রাম সেবা বন্ধ করে দিয়েছে ২০০৬ সালে। ইন্টারনেটের এই যুগে তাই হঠাৎ করে গত মাসে একটি টেলিগ্রাম পেয়ে অবাক হয়ে যান যুক্তরাষ্ট্রের রবার্ট ফিঙ্ক নামের এক ব্যক্তি। সেখানে তার বন্ধুদের লেখা একটা অভিনন্দন বার্তা ছিল। যদিও তা ছিল ৫০ বছর আগের। জানা গেছে, ১৯৬৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফিঙ্ক গ্রাজুয়েশন ডিগ্রী লাভ করেন্। ওই সময় তার এক বন্ধু তাকে অভিনন্দন জানিয়ে একটা টেলিগ্রাম করেন। তাতে লেখা ছিল ‘তোমার ডিগ্রী নেওয়ার সময় অভিনন্দন জানানোর জন্য উপস্থিত থাকতে না পারায় আমরা দুঃখিত। তবে আমাদের ভালোবাসা ও শুভকামনা সবসময় থাকবে তোমার জন্য।’- শুভেচ্ছান্তে ডা.ফিচম্যান এবং মিসেস ফিচম্যান। টেলিগ্রামটি পাঠানো হয়েছিল ১৯৬৯ সালের ২ মে। কিন্তু তার একদিন আগেই ফিঙ্ক তার আপার্টমেন্টটা ছেড়ে দিয়েছিলেন। এ কারণে চিঠিটা তিনি আর পাননি
‘তোমাদের নামাজের সময় আমি পাহারা দেব’

‘তোমাদের নামাজের সময় আমি পাহারা দেব’

লোকটির নাম অ্যান্ড্রু গ্রেস্টোন। বয়স ৫৭ বছর। তিনি যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টারের লেভেনশুলমের স্থানীয় একটি গির্জার সঙ্গে যুক্ত। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার ঘটনার পর তিনি বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন ব্রিটিশ মুসলমানদের প্রতি।   বন্ধুত্বের এই হাত বাড়ানোর বিষয় বিষয়ে অ্যান্ড্রু গ্রেস্টোন বলেন, ‘সকালে ঘুম থেকে উঠে শুনি, নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলা হয়েছে। যদি ব্রিটিশ মুসলমানদের জুমার নামাজে এমনটা হতো, তবে কী ভয়ংকর হতো, সেটা ভেবে আমি শিউরে উঠি। এ ঘটনায় আমরা কীভাবে সাড়া দিতে পারি, তা নিয়ে ভাবতে থাকি। হয় ভয়, না হয় বন্ধুত্ব দিয়ে এমন পরিস্থিতিতে সাড়া দেওয়া যায়। আমি স্থানীয় মসজিদে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। তাদের স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিতে চাইলাম, তারা আমার বন্ধু।’   অ্যান্ড্রু জানান, তিনি লেভেনশুলমের স্থানীয় একটি গির্জার সঙ্গে যুক্ত। তিনি বলেন, লেভেনশুলম মিশ্র ও বহু সংস্কৃ
পাঁচ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে তাণ্ডব চালায় হামলাকারী ব্রেন্টন

পাঁচ আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে তাণ্ডব চালায় হামলাকারী ব্রেন্টন

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ শহরে হ্যাগিল পার্ক এলাকায় দুই মসজিদে হামলাকারী বন্দুকধারী  ব্রেন্টন ট্যারান্ট তাণ্ডব চালানোর সময় পাঁচটি নিবন্ধিত আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী। জেসিন্ডা আরডার্ন বলেছেন, ‘হামলার প্রধান সন্দেহভাজন একজন নিবন্ধিত আগ্নেয়াস্ত্রধারী। সে তাণ্ডব চালানোর সময় পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেছে। এর মধ্যে দুটি আধা-স্বয়ংক্রিয় (সেমি-অ্যাটোমেটিক) ও দুটি শটগান ছিল।’   ‘এই ব্যক্তি কীভাবে এসব আগ্নেয়াস্ত্র ও লাইসেন্স পেল এবং কীভাবেই বা সে হামলা চালানোর জন্য এই দেশে প্রবেশ করল সেসব বিষয় কর্তৃপক্ষ খতিয়ে দেখছে।’ প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমি এই মুহূর্তে একটি কথাই বলতে পারি, আমাদের অস্ত্র আইনে পরিবর্তন আনা হবে।’ আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিষিদ্ধের বিষয়টিও বিবেচনা করা হবে বলে জানান তিনি। শুক্রবার জুমার নামাজের সময় কালো কাপড় ও হেলমেট পরা এক
নিউ জিল্যান্ডের খুনি আদালতে

নিউ জিল্যান্ডের খুনি আদালতে

শুধু খুনের অভিযোগ এনে আদালতে হাজির করা হয়েছে নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে গুলি চালিয়ে অর্ধশত মানুষ হত্যাকাণ্ডে গ্রেপ্তার প্রধান সন্দেহভাজন ব্রেন্টন ট্যারেন্টকে।   ২৮ বছর বয়সী অস্ট্রেলিয়ার এই নাগরিককে শনিবার ক্রাইস্টচার্চের ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে হাজির করা হয়। আগামী ৫ এপ্রিল পরবর্তী হাজিরার দিন পর্যন্ত তাকে আটক রাখার আদেশ হয়েছে।   রয়টার্স জানিয়েছে, আদালতে হাজির করা সময় ট্যারেন্টের হাতে ছিল কড়া, গায়ে ছিল বন্দিদের সাদা পোশাক। আদালতে কোনো কথা বলেননি তিনি। তার পক্ষে কোনো জামিন আবেদনও হয়নি।   বিবিসি জানিয়েছে, ট্যারেন্টের বিরুদ্ধে শুধু খুনের অভিযোগ আনা হয়েছে।   তবে তার বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ আনা হতে পারে বলে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে রয়টার্স জানিয়েছে।   অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন হামলাকারী ট্যারেন্টকে ‘উগ্র ডানপন্থি একজন সন
মুহূর্তেই মসজিদে শুধু লাশ আর লাশ

মুহূর্তেই মসজিদে শুধু লাশ আর লাশ

হামলা শুরু হওয়ার আগে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদটি ছিল বেশ শান্ত, নীরব আর শান্তিপূর্ণ। মসজিদের ঈমাম খুতবা পড়ছিলেন। চারদিকে যেন পিনপতন নীরবতা। স্থানীয় সময় তখন ঠিক ১টা ৪০ মিনিট। আচমকা মসজিদের ভেতরে এলোপাতাড়ি গুলির শব্দ শোনা যায়। আনুমানিক ২০ মিনিটের মধ্যেই খুব কাছ থেকে মুসল্লিদের গুলি করে হত্যা করে হামলাকারী।   ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান রমজান নামের এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে হামলার এমন বিবরণ প্রকাশ করেছে। রমজান নামের ওই প্রত্যক্ষদর্শী মসজিদের ভেতরে ভয়াবহ ও নৃশংস সেই হামলার বর্ণনা দিয়েছেন সাংবাদিকদের। তিনি জানান, হামলাকারীর হাত থেকে বাঁচতে অনেকে মেঝেতে অন্য লাশের পাশে শুয়ে পড়লেও শেষ রক্ষা হয়নি।   রমজান নামের ওই ব্যক্তি বলেন, ‘এটা (হামলা) শুরু হয় মসজিদের মূল কক্ষ থেকে। আমি ছিলাম পাশের কক্ষে। তাই আমি দেখতে পারিনি কে গুলি করছিল। কিন্তু দেখছিলাম পাশের কক
নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭

নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি কেন্দ্রীয় মসজিদে বন্দুকধারীদের হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭ জন। এই ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে এই হামলার পেছনে আরও অপরাধীরা জড়িত থাকতে পারে।   ডিনস এভে অবস্থিত মসজিদ আল নুর এবং লিনউড এভের লিনউড মসজিদে গোলাগুলির ঘটনায় ২৭ মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে স্থানীয় বেশ কয়েকটি সূত্র।   কমপক্ষে দু'জন বন্দুকধারী ওই হামলা চালিয়েছে। এদের মধ্যে একজন অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক বলে ধারণা করা হচ্ছে। যখন তিনি মসজিদে হামলা চালাচ্ছিলেন তখন নিজেই সেই দৃশ্য ভিডিও করেছেন। ওই ভিডিওতে তাকে বলতে শোনা গেছে যে, এটি একটি সন্ত্রাসী হামলা। ক্রাইস্টচার্চ হাসপাতালের বাইরেও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।       প্রায় ছয় মিনিট ধরে হামলা চালানো হয়েছে। এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, প্রথমে মসজিদের বাইরে গুলি চালানো হয়েছে। এরপর হামল
যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু আলোচনা বাতিল করতে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু আলোচনা বাতিল করতে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু অস্ত্র নিয়ে আলোচনা বাতিল করতে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। মার্কিন দাবিগুলো মেনে নেয়ার ব্যাপারে পিয়ংইয়ংয়ের কোন ইচ্ছা নেই বা এ ব্যাপারে আলোচনার ব্যাপারে চুক্তিবদ্ধ হওয়ারও কোন আগ্রহ নেই বলে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী চোয় সন হুইয়ের সংবাদ সম্মেলনের বরাতে জানিয়েছে রুশ গণমাধ্যম তাস। রয়টার্স, ইয়ন তাস বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে আলোচনা বাতিলের ব্যাপারে শিগগিরই দেশটির নেতা কিম জং উন আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেবেন। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে গত ২৭-২৮ ফেব্রুয়ারি কিমের কার্যত একটি ব্যর্থ বৈঠকের পরই পিয়ংইয়ং তাদের পরমাণু অস্ত্র ত্যাগ না করার ব্যাপারে আভাস দিয়েছিলো। এদিকে, চীনের পার্লামেন্ট সেশন শেষে বার্ষিক সংবাদ সম্মেলনেও উত্তর কোরিয়া নিয়ে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রিমিয়ার লি
এবা হত্যার ‘প্রতিশোধ’ নিতে নিউজিল্যান্ডের মসজিদে রক্তাক্ত হামলা!

এবা হত্যার ‘প্রতিশোধ’ নিতে নিউজিল্যান্ডের মসজিদে রক্তাক্ত হামলা!

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক ::  নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টার্চে দুটি মসজিদে হামলার ঘটনায় মারা গেছে ৪৯ জন। হামলাকারীর নাম ব্রেন্টন টেরেন্ট (২৮)। হামলা চালানোর আগে ৭৩ পৃষ্ঠার ঘোষণাপত্রে ১৬ হাজার ৫০০ শব্দে এ হামলার কারণ ব্যাখ্যা করেন এই বন্দুকধারী। যার মধ্যে উল্লেখ করা হয়েছে, এবা আকারলাউন্ড নামের ১২ বছরের সুইডিশ শিশুর কথা। ২০১৭ সালে স্টকহোমে ট্রাক হামলার সময় মারা যায় এবা। তিনি লিখেছেন, দুই বছর আগের এ ঘটনা নাটকীয়ভাবে আমার চিন্তায় পরিবর্তন নিয়ে আসে। সময়টা ছিল ২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে মে। ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল ওই হামলার ঘটনা ঘটে। আমি এ সহিংসতার পর আর চুপ থাকতে পারিনি। কারণ পরিস্থিতি বদলে গিয়েছিল আর সে বদল এনেছিল এবা...  স্কুল ছুটির পর এবা তার মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিল...