ইন্টারন্যাশনাল

‘অবর্ণনীয় নিষ্ঠুরতার নীতি অনুসরণ করছে ট্রাম্প’

‘অবর্ণনীয় নিষ্ঠুরতার নীতি অনুসরণ করছে ট্রাম্প’

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত দুই বছর শুধু মার্কিন গণতন্ত্রের ওপর আঘাতই হেনেছেন। তাই আমেরিকানদের উচিত গণতন্ত্র উদ্ধার করতে লড়াই চালিয়ে যাওয়া। এমনই আহ্বান জানিয়েছেন হিলারি ক্লিনটন। হিলারি লিখেছেন, রিপাবলিকানরা আমাকে পরাজিত করে সীমান্তে অভিবাসী পরিবারগুলো আলাদা করাসহ অবর্ণনীয় নিষ্ঠুরতার নীতি অনুসরণ করছে। ট্রাম্প এবং তার সহযোগীরা এমন সব ঘৃণ্য কাজ করছেন, যেগুলো ঠিক করা প্রায় অসম্ভব। তিনি লিখেছেন, আমি মনে করি বিন্দুর মতো কিছু একটা আমাদের হতবুদ্ধি করে রেখেছে। তাই আমাদের চোখ বলের ওপর পড়ছে না। আর বলটি হলো আমেরিকান গণতন্ত্রকে রক্ষা করা। নাগরিক হিসেবে আমাদের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব এটি। কারণ এখন আমাদের গণতন্ত্র সঙ্কটের মুখে। রবিবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের সাময়িকী দ্য আটলান্টিকে প্রকাশিত এক নিবন্ধে হিলারি এসব কথা লিখেছেন বলে জানিয়েছে দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট। দেশটির গত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ ন
বিমান উপহার নিয়ে যা বললেন এরদোগান

বিমান উপহার নিয়ে যা বললেন এরদোগান

কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির থেকে বিলাশবহুল বিমান উপহার পাওয়ার বিষয়ে মুখ খুলেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। এরদোগানকে কাতারের আমির গত সপ্তাহে একটি বিলাসবহুল বোয়িং ৭৪৭-৮ উপহার দেন। ৫শ মিলিয়ন ডলার মূল্যের বিমান নিয়ে কিছুটা সমালোচনার মুখে পড়েন এরদোগান। যুক্তরাজ্যের বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন বলা হয়েছে, বিমানটি উপহার নয়; বরং সেটি কেনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান বিরোধী দল রিপাবলিকান পিপলস পার্টির এক আইনজীবী। তিনি বলেন, এই বিমানটি কেনা হয়েছে, অনুদানে আসেনি। তবে তুরস্কের এমন অর্থনৈতিক সংকটে বিমানটি কেনা উচিত হয়নি। এরপর আত্মপক্ষ সমর্থনে মুখ খুলেছেন এরদোগান। এরদোগান জানিয়েছেন, বিমানটি কিনতে চাওয়া হয়েছিলো। কিন্তু কাতারি আমির বলেছেন, ‘আমি তুরস্কের কাছ থেকে টাকা নেবো না। এটা আমি উপহার দেবো।
তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে রাশিয়া!

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে রাশিয়া!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সোভিয়েত বিপ্লবের পর নিজেদের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়া শুরু করেছে রাশিয়া। দেশটির পূর্ব সীমান্ত তথা সাইবেরিয়ায় গত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া মহড়াটি শেষ হচ্ছে আজ সোমবার (১৭ সেপ্টম্বর)। ৭ দিন ব্যাপী ‘ভসটক ২০১৮’ নামের এই বিশাল সামরিক মহড়াকে রাশিয়ার তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রাক-প্রস্তুতি বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা। আলোচিত এই মহড়ায় রাশিয়ার প্রতিবেশী চীন ও মঙ্গোলিয়াও অংশ নিয়েছে। তবে উত্তর আটলান্টিক সামরিক জোট (ন্যাটো) সদস্য তুরস্ককে এ মহড়ায় অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ জানানো হলেও দেশটি তা করেনি। বরং মহড়া পর্যবেক্ষণে সাইবেরিয়ায় টিম পাঠিয়েছে তুরস্ক। রুশ বার্তা সংস্থার খবরে বলা হয়েছে, ৭ দিনের এই মহড়ায় রুশ সামরিক বাহিনীর অন্তত ৩ লাখ সদস্য অংশ নিয়েছে। এছাড়া মহড়ায় এক হাজার যুদ্ধবিমান ও ৩৬ হাজার ট্যাঙ্ক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ‘ভসটক ২০১৮’ নামের এই বিশাল সামরিক মহড়ায় চীন ৩ হাজার

নর্থ ক্যারোলিনায় হারিকেন ফ্লোরেন্সের আঘাত

যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনার উপকূলে আঘাত হেনেছে হারিকেন ফ্লোরেন্স। এর অপ্রতিরোধ্য গতি ও প্রবল ঝড় ডেকে এনেছে মানবিক বিপর্যয়। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে চলতে থাকা ঝড়টি রূপ নিয়েছে এখন বিধ্বংসী হিসেবে। আর তা থেকে উদ্ধারের জন্য নিদারুণভাবে অপেক্ষা করছে অনকে মানুষ। ঘণ্টা প্রতি প্রায় ৯০ কিলোমিটার বেগে এবং তিন ইঞ্চি বৃষ্টিপাত নিয়ে ক্যাটাগরি এক হারিকেনটি শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে আঘাত হানে। অঞ্চলটি উইলমিংটনের পূর্বে রিটসভিলে বিচের কাছে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা যায়, ফ্লোরেন্স সেন্টারকে নর্থ ও সাউথ ক্যারোলিনার উপকূলে আরও পুরো একটি দিন অপেক্ষা করতে হতে পারে। দমকা বাতাস ও বন্যায় যারা ঘরের ভেতর আটকে গেছেন, তাদের জন্য এটি বিপজ্জনক হয়ে উঠছে। নর্থ ক্যারোলিনা শহর থেকে উদ্ধারকারীরা ১০০-এর বেশি অবরুদ্ধ মানুষকে বের করে আনে। কিন্তু ১০ ফুট উচ্চতার ‘বিধ্ব
যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নিষেধাজ্ঞা রাশিয়ার ওপর

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নিষেধাজ্ঞা রাশিয়ার ওপর

  বুধবার মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ খবর জানানো হয়। সাবেক রুশ গুপ্তচরের ওপর রাসায়নিক প্রয়োগের অভিযোগে রাশিয়ার ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বিভাগীয় মুখপাত্র হিদার ন্যুয়ার্ট জানান, এটি নিশ্চিত যে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে রুশ গুপ্তচরের ওপর রাসায়নিক বা স্নায়বিক ওষুধ প্রয়োগ করা হয়েছে। এ কারণেই রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। ব্রিটেনের সলিসবারিতে রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তাঁর মেয়ে ইউলিয়ার ওপর এ বছর মার্চে রাসায়নিক প্রয়োগের ঘটনা ঘটে। এতে তারা দুজনেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাঁরা সুস্থ হন।  
ফের বিমানবন্দরে রকেট হামলা

ফের বিমানবন্দরে রকেট হামলা

লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির একমাত্র বিমানবন্দরে বুধবার আবারও রকেট হামলা পরিচালনা করা হয়েছে। এই হামলায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট মনিটরের বরাত দিয়ে জানা যায়, ত্রিপোলির মিতিগা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি গত শুক্রবার পুনরায় চালু করলে আজ সেখানে হামলা চালানো হয়। এর আগে ত্রিপোলি এবং এর আশপাশের অঞ্চলে জঙ্গিদের মধ্যকার ভয়ঙ্গকর সংঘাতের কারণে বিমানবন্দরটি বন্ধ করে দেয়া হয়। বিমানবন্দর সূত্র থেকে জানা যায়, লিবিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটকে তার গতিপথ পরিবর্তন করে ত্রিপোলি থেকে প্রায় ২০০ কিলোমিটার পূর্বে মিসরাতা বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। ত্রিপোলি বিমানবন্দরে থাকা সকল বিমান মিসরাতায় নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে।
রেল প্রকল্পে ও বিদ্যুৎ সরবরাহর উদ্বোধন করলেন হাসিনা-মোদি

রেল প্রকল্পে ও বিদ্যুৎ সরবরাহর উদ্বোধন করলেন হাসিনা-মোদি

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে সহযোগিতার অংশ হিসেবে আজ বাংলাদেশের জাতীয় গ্রিডে ভারত থেকে আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দিল্লী থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে পশ্চিমবঙ্গের বহরমপুর গ্রিড থেকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার আন্তঃবিদ্যুৎ সংযোগ গ্রিডে এ বিদ্যুৎ সরবরাহের উদ্বোধন করেন। এ ছাড়া, বংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আখাউড়া-আগরতলা ডুয়েল গেজ রেললাইন প্রকল্পের বাংলাদেশ অংশের নির্মাণ কাজও আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। একই অনুষ্ঠানে দুই প্রধানমন্ত্রী মৌলবীবাজার জেলার কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেল সংযোগ পুনর্বাসন প্রকল্পেরও নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন। ভিডিও কনফারেন্সে পশ্চিম বঙ্গের মুখমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ও ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বক্তব্য রাখেন।
পুতিন এবং রাশিয়ার অসমাপ্ত অর্থনৈতিক উন্নয়ন

পুতিন এবং রাশিয়ার অসমাপ্ত অর্থনৈতিক উন্নয়ন

কিছুদিন আগে অনুষ্ঠিত রাশিয়ার প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচনে ভ্লাদিমির পুতিন তিন-চতুর্থাংশেরও বেশি ভোট পেয়ে চতুর্থবারের মতো রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। এ জয়ের মাধ্যমে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে ২০২৪ সাল পর্যন্ত পুতিনের ক্ষমতা পাকাপোক্ত হলো। এর আগে ২০০০-৮ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ছিলেন পুতিন। দেশটির গঠনতন্ত্রে পরপর দুই মেয়াদের বেশি প্রেসিডেন্ট হওয়ার অনুমোদন না থাকায় ২০০৮-১২ সাল পর্যন্ত দিমিত্রি মেদভেদেভ দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন এবং পুতিন তার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন। কার্যত মেদভেদেভ ছিলেন একজন ছায়া প্রেসিডেন্ট, যেখানে পুতিনের ইশারায়ই দেশটির সবকিছু পরিচালিত হতো। ২০০৮ সালে রাশিয়ার গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন আনা হয়, যাতে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতার মেয়াদ চার বছর থেকে বাড়িয়ে ছয় বছরে উন্নীত করা হয়। ফলে ২০১২-১৮ সাল পর্যন্ত তৃতীয় মেয়াদে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেশ পরি
সৌন্দর্যে ভরা সুইজারল্যান্ড

সৌন্দর্যে ভরা সুইজারল্যান্ড

সুইজারল্যান্ডের যেদিকে তাকানো যায়, মনে হয় যেনো পোস্টকার্ডে আঁকা ছবি। গরুদের চারণভূমিগুলো ভীষণ সুন্দর। হাইকারদের জন্য স্বর্গ হিসেবে পরিচিত সুইজারল্যান্ডে ঘুরতে গেলে ইয়ুংফ্রাও, মোনশ বা আইগের চূঁড়া দেখতে যাওয়া উচিত।   সুউচ্চ এবং দ্রুতগামী   ছোট্ট এই দেশটিতে ১৮শ’রও বেশি রেললাইন রয়েছে। বিখ্যাত হলো সেরমাট থেকে সেন্ট মরিৎসগামী গ্ল্যাসিয়ার এক্সপ্রেস। বিশ্বের অন্যতম সুন্দর রেলপথ। ২০০৮ থেকে এটি ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় যুক্ত হয়েছে। গরু এবং গরুর ঘণ্টা   ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’ ছবিটির কারণে সুইজারল্যান্ডের এই গরুর ঘণ্টা ভারতীয় উপমহাদেশে এখন সুপরিচিত। এই দেশে সুন্দর গরুর প্রতিযোগিতা, গরুর দৌঁড় প্রতিযোগিতাসহ গরুকে ঘিরে নানা আয়োজন হয়ে থাকে এবং গরুকে কোনো রকম আঘাত করা যাবে না।   পনীরের দেশ   সুইজারল্যান্ডকে পনীরের দেশ বলা হয়ে থাকে।
অনুপ্রবেশ ইস্যুই এখন পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক হাতিয়ার

অনুপ্রবেশ ইস্যুই এখন পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক হাতিয়ার

আসামের মতোই পশ্চিমবঙ্গে এখন প্রধান রাজনৈতিক ইস্যু হয়ে উঠছে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশ। দেশটির শীর্ষ আদালতের নির্দেশনা মেনেই আসাম সরকার দুই দফায় তাদের নাগরিক তালিকা থেকে প্রায় দেড় কোটি ভোটারকে বাদ দিয়েছে।   বিরোধীদের অভিযোগ বাদ যাওয়া এসব মানুষ বাঙালি এবং দেশ ভাগের সময় তারা পূর্ববঙ্গ থেকে আসামে বসতি গড়েছিলেন।       আসামের পর ত্রিপুরা, বিহারেও একইভাবে নাগরিক তালিকা সংশোধনের কাজ হতে পারে বলে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। যদিও সরকারিভাবে এখনো কোনও ঘোষনা আসেনি। তবে বিজেপি শাসতি হলেও ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব নাগরিক তালিকা সংশোধন করতে নারাজ। যদিও সরকারের জোটসঙ্গীরা বলছে, আসামের মতোই রাজ্যটির ভৌগলিক অবস্থা এবং সেখানেও প্রচুর সংখ্যক অনুপ্রবেশকারী রয়েছেন।   অন্যদিকে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নিতিশ কুমারও নাগরিক তালিকা সংশোধনের বিরুদ্ধে। তবে বিহারের অন্য র