এন্টারটেইনমেন্ট

অভিনেত্রী মায়া ঘোষ আর নেই

অভিনেত্রী মায়া ঘোষ আর নেই

দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করতে করতে অবশেষে হার মানলেন মুক্তিযোদ্ধা ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী মায়া ঘোষ। আজ রোববার, ১৯ মে সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে তিনি দেহত্যাগ করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন তার পুত্র দীপক ঘোষ।   তিনি জানান, যশোর কুইন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে পরপারে পাড়ি জমান মায়া ঘোষ।   দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন মঞ্চ, নাটক ও চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী মায়া ঘোষ। তার দুই পুত্র দীপক ঘোষ ও প্রদ্যুত ঘোষ জানান, ২০০০ সালে মায়া ঘোষের শরীরে প্রথম ক্যানসার ধরে পড়ে। ২০০১ সালের ফেব্রুয়ারিতে কলকাতার সরোজগুপ্ত ক্যানসার হাসপাতালে চিকিৎসা শুরু হয়। ধারাবাহিকভাবে চলে চিকিৎসা। ২০০৯ সালের দিকে অনেকটা সুস্থ হয়ে ওঠেন। এরপর কিডনি, লিভার ও হাঁটুর সমস্যা দেখা দেয়। তারও চিকিৎসা চলছিল।   ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে আবারও ক্যানসার ধরা পড়ে। পুনরায় কলকাতার সরোজগুপ্ত
মোটা মানুষদের ফ্রিতে ঢাকা শহর ঘোরাচ্ছেন মারজুক

মোটা মানুষদের ফ্রিতে ঢাকা শহর ঘোরাচ্ছেন মারজুক

মারজুক রাসেল দেশের সুপরিচিত একজন অভিনেতা এবং গীতিকার। বর্তমানে ঈদের নাটক নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। হঠাৎ করেই মারজুক রাসেলের দেখা মিললো একটু ভিন্নভাবে। একদল মোটা মানুষকে সঙ্গে নিয়ে পুরো ঢাকা শহর ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি। বিনিময়ে নেয়া হচ্ছে না কোনো টাকা।   এমন মজার ঘটনা ঘটেছে ‘মাই নেম ইজ জনি’ নামের একটি নাটকে। নাটকটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন হিমু আকরাম। এখানে বদরাগি জনি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মারজুক রাসেল। গাজিপুরের পূবাইলে বিভিন্ন স্থানে শুটিং শুরু হয়েছে নাটকটির।   এখানে বাদশা চরিত্রে অভিনয় করেছেন কামাল হোসেন বাবর। আরও আছেন আনন্দ খালিদ, শহিদুন্নবি, নীলা ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, মাসুদ রানা মিঠু, বিল্লু, তাসফিয়া প্রমুখ।   গল্পটি প্রসঙ্গে মারজুক রাসেল বলেন, ‘এখানে আমি জনি চরিত্রে অভিনয় করেছি। সে রাগি, এক রোখা স্বভাবের। গ্রাম থেকে লাঠিয়াল ভাড়া করা, প্রতিশোধ নেয়া- সব মি
কানের লাল গালিচায় প্রিয়াঙ্কা-দীপিকার চমক

কানের লাল গালিচায় প্রিয়াঙ্কা-দীপিকার চমক

বিশ্ব চলচ্চিত্রের অন্যতম বড় আসর কান চলচ্চিত্র উৎসব চলছে। গত ১৪ মে থেকে শুরু হয়েছে ৭২তম কান চলচ্চিত্র উৎসব। জমকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পার হলো উৎসবের তৃতীয় দিন। বৃহস্পতিবার কানের লাল গালিচায় হাজির হয়েছিলেন বলিউডের নায়িকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও দীপিকা পাড়ুকোন।   চমক দেখিয়েছেন তারা। এই দুই তারকা গ্ল্যামারাস রূপে রাঙিয়ে দিয়েছেন আগত অতিথি ও দর্শকদের মন। প্রিয়াঙ্কা পরেছিলেন কালো ও সোনালি রঙের মিশেলে গাউনে। সঙ্গে ছিলো হিরের গহনা। এবারই প্রথম কান চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। সুইস অলঙ্কার প্রতিষ্ঠান চপার্ডের প্রতিনিধি হিসেবে তিনি কানে গেছেন তিনি।   অন্যদিকে দীপিকাকে দেখা গেছে সাদা-কালো পোশাকে। সেটি ছিল নরওয়ের ডিজাইনার পিটার ডানডেসের নকশা করা ক্রিম গাউন। গত দুই বছরের মতো এবারও দীপিকা এসেছেন প্রসাধনী প্রতিষ্ঠান লরিয়াল প্যারিসের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে। এই বছর তিনি আরও দুই দ
প্রকাশ হলো সুবীর নন্দীর গাওয়া ৫ বছর আগের গান

প্রকাশ হলো সুবীর নন্দীর গাওয়া ৫ বছর আগের গান

বারান্দাতে রোদ পড়েছে একলা কাঠের চেয়ার, দূরবীনে চোখ দেখবো তাকে বসবে কী হায় সে আর’ সদ্য প্রয়াত বরেণ্য কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দীর গাওয়া এমনই কথার একটি অপ্রকাশিত গান প্রকাশিত হলো। শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা জানাতে সম্প্রতি ‘এক নির্ঝর কোলাবরেশন’ পরিবার গানটি প্রকাশ করেছে।   গানটি শোনা যাচ্ছে নির্মাতা ও স্থপতি এনামুল করিম নির্ঝরের ইকেএনসি'র ইউটিউব চ্যানেলে।   এনামুল করিম নির্ঝর জানান, মৃত্যুর পূর্বে গুণী শিল্পী সুবীর নন্দী যুক্ত ছিলেন ‘এক নির্ঝরের গান’ প্রকল্পের সঙ্গে। ‘বারান্দাতে’ শিরোনামের গানটিতে তিনি কণ্ঠ দিয়েছিলেন ২০১৪ সালে। গানটি লিখেছেন ও সুর করেছেন নির্ঝর নিজেই। সংগীত আয়োজন করেছেন রিয়াজুল করিম লিমন।   নির্ঝর প্রত্যাশা করছেন সুবীর নন্দীর গানটি তার ভক্তদের মনে দাগ কাটবে। শিল্পীর না থাকার হাহাকারের বেদনায় মিশে যাবে এই গানের সুর ও কথার আবেদন।  
এক রাতে নেই পাঁচ তারকার আইডি, শোবিজে হ্যাকিং আতঙ্ক

এক রাতে নেই পাঁচ তারকার আইডি, শোবিজে হ্যাকিং আতঙ্ক

শোবিজের প্রতি যেন হ্যাকারদের বদনজর পড়েছে। তারা প্রতিযোগিতায় নেমেছে কে কার চেয়ে কত দ্রুত কত তারকার ফেসবুক বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আইডি হ্যাক করতে পারে। প্রায় প্রতি মাসেই হ্যাকিংয়ের শিকার হচ্ছেন কোনো না কোনা তারকা।   এবার এক রাতেই চার চারজন জনপ্রিয় তারকা তাদের ফেসবুকের আইডি হারালেন। তারা হলেন অভিনেতা অপূর্ব, লাক্স তারকা টয়া, অভিনেত্রী পূজা চেরী ও গায়ক ইমরান। আজ মঙ্গলবার চারজন তারকার ফেসবুক আইডি ডিজেবল দেখাচ্ছে। ফেসবুকে তাদের আইডিটি পাওয়া যাচ্ছে না।   অন্যদিকে অভিনেত্রী ও নির্মাতা মেহের আফরোজ শাওনের হ্যাক হয়েছে ইন্সট্রাগ্রাম আইডি। তিনি জাগো নিউজকে জানান, কেউ বা কারা তার ফেসবুক ও ইন্সট্রাগ্রাম অ্যাকাউন্টটি হ্যাক করতে চেয়েছে। ফেসবুকটি হ্যাক করতে না পারলেও ইন্সট্রাগ্রামটি ঠিকই দখলে নিয়ে গেছে। এটা বিরক্তিকর একটি অভিজ্ঞতা।   তারকাদের দাবি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্
ঈদে মুক্তি পাবে না শাকিব-নুসরাতের ‘শাহেনশাহ’

ঈদে মুক্তি পাবে না শাকিব-নুসরাতের ‘শাহেনশাহ’

বেশ অনেক দিন ধরেই আলোচনায় আছে ঢালিউডের নাম্বার ওয়ান নায়ক শাকিব খান অভিনীত ‘শাহেনশাহ’ ছবিটি। বেশ কয়েকবার মুক্তির তারিখ নির্ধারণ করা হলেও শেষ পর্যন্ত মুক্তির অপেক্ষাতেই আছে ছবিটি। ঈদে সারাদেশে মুক্তি পাবে বলে শাকিব ভক্তরা আশায় বুক বেঁধে আছেন, তখন জানা গেলো ঈদেও মুক্তি পাচ্ছে না ‘শাহেন শাহ’।   মঙ্গলবার দুপুরে ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার ম্যানেজার বাদল জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন এবার ঈদে মুক্তি পাবে না ‘শাহেনশাহ’। ঈদে শাকিব খান অভিনীত ‘পাসওয়ার্ড’ ও ‘নোলক’ সিনেমা দুটি মুক্তি পাওয়ার কথা। তাই শাকিবের শাহেন শাহ দেশে পরে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে শাপলা মিডিয়া।   শাহেনশাহ নির্মাণ করেছেন শামীম আহমেদ রনি। এই ছবির মাধ্যমেই প্রথমবার বড় পর্দায় জুটি বেঁধেছেন শাকিব খান ও নুসরাত ফারিয়া। পাশাপাশি নায়িকা হিসেবে আরো আছেন নবাগতা রোদেলা জান্নাত। এই বছরের শুরুতে সিনেমাটির টিজা
এটিএম শামসুজ্জামানের চিকিৎসায় ১০ লাখ টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

এটিএম শামসুজ্জামানের চিকিৎসায় ১০ লাখ টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

বরেণ্য অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ১০ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে।   সোমবার (১৩ মে) রাজধানীর পুরান ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে এটিএম শামসুজ্জামানের মেয়ে কোয়েলের হাতে এই অনুদানের চেক তুলে দেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।   এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন, সংগীত শিল্পী রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।   প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা অসুখে ভুগছিলেন এটিএম শামসুজ্জামান। হঠাৎ অসুস্থবোধ করায় গত ২৬ এপ্রিল দিবাগত রাতে তাকে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওইদিন এটিএম শামসুজ্জামানকে স্যালাইন দেয়া হয়। তখন হঠাৎ করে তার মলত্যাগে জটিলতা দেখা দেয়।   এ জন্য গত ২৭ এপ্রিল দুপুরে জরুরি ভিত্তিতে তাকে
আলাউদ্দীন আলীর জন্য দোয়া চাইলেন ওমর সানী

আলাউদ্দীন আলীর জন্য দোয়া চাইলেন ওমর সানী

দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ সংগীতজ্ঞ আলাউদ্দীন আলী। বর্তমানে সাভারের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে (সিআরপি) চিকিৎসা চলছে তার। শারীরিক অবস্থা আরেকটু ভালো হলে তাকে বিদেশে নেয়া হবে।   গত ৮ এপ্রিল সিআরপিতে ভর্তি করানো হয় আলাউদ্দীন আলীকে। এখন সেখানেই সিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে আছেন তিনি। তাকে বিভিন্ন সময় দেখতে যাচ্ছেন তার সহকর্মী ও আত্মীয়রা। এর মধ্যে কিংবদন্তী কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লাও দেখে এসেছেন আলাউদ্দীন আলীকে।   গতকাল শনিবার তাকে দেখতে গিয়েছিলেন চিত্রনায়ক ওমর সানী। তার সঙ্গে ছিলেন নন্দিত কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর। আরও ছিলেন গীতিকবি কবির বকুল।   ঢাকায় ফিরে আলাউদ্দীন আলীর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে ওমর সানী জানান, ‌আলাউদ্দিন আলী ভাই খুব একটা ভালো নেই। ভালো করে কথা বলতে পারছেন না। তার জন্য সবাই দোয়া করবেন।   সানি আরও বলেন, আমি গর্বিত যে আলী ভাই আমাকে দেখতে চেয়
আসছে নভেম্বরেই শুরু বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের শুটিং

আসছে নভেম্বরেই শুরু বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের শুটিং

নভেম্বরে শুরু হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিকের শুটিং। এমনটাই জানিয়েছেন ছবির ভারতীয় পরিচালক শ্যাম বেনেগাল। ভারতীয় গণমাধ্যমকে নির্মাতা বলেন ছবিটির দৈর্ঘ্য হবে ১৮০ মিনিট বা তিন ঘণ্টা।   শ্যাম বেনেগাল আশা করেন ছবির শুটিং শুরু হয়ে গেলে ৮০ দিনেই দৃশ্যধারণের কাজ শেষ করতে পারবেন তিনি।   জানা গেছে, ছবির চিত্রনাট্যকার অতুল তিউয়ারি আগামী সপ্তাহেই ঢাকায় আসবেন এবং সংগ্রহ করবেন প্রয়োজনীয় তথ্য। তার এই গবেষণায় সাহায্য করবেন জনপ্রিয় বিজ্ঞাপন নির্মাতা ও ‘হাসিনা: আ ডটার্স টেল’ ডকু ফিকশনের পরিচালক পিপলু আর খান।   ৭ মে বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দল যায় ভারতে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভীর নেতৃত্বে সেই দলে ছিলেন তথ্য সচিব আবদুল মালেক, এফডিসি’র পরিচালক (উৎপাদন) নুজহাত ইয়াসমিন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (চলচ্চিত্র বিভাগ) প্রতাপ চন্দ্র ব
প্রকাশ হলো সুবীর নন্দীর শেষ গান

প্রকাশ হলো সুবীর নন্দীর শেষ গান

এখন কেমন আছে বঙ্গবন্ধুর বত্রিশ নম্বর বাড়িটি, এখন কোথায় আছে বঙ্গবন্ধুর কালো ফ্রেমের চশমাটি, এখন কোথায় আছে বঙ্গবন্ধুর সেই ইজি চেয়ারটি, এখন কোথায় আছে শেখ রাসেলের সেই ছবিটি, এমন কথার গানটিই ছিল সুবীর নন্দীর গাওয়া শেষ গান।   সুমন কল্যাণের সংগীতায়োজনে গানটিতে গত ৩০ মার্চ মগবাজারের স্টুডিও ডি স্টেশনে কণ্ঠ দিয়েছিলেন নন্দিত সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী। গানটি লিখেছেন সুজন হাজং । সুর করেছেন যাদু রিছিল।   সুজন হাজং বলেন, ‘সুবীর নন্দী এই গানটি গাইতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলেন। স্মৃতিকাতর হয়ে তিনি বলেছিলেন ‘মনে হয় চোখের সামনেই ভেসে উঠছে বঙ্গবন্ধুর বত্রিশ নম্বর বাড়ি, তাঁর মোটা কালো ফ্রেমের চশমা, সেই ইজি চেয়ার এবং শেখ রাসেলের ছবিটি।’   তিনি আরো বলেছিলেন, ‘এখনকার প্রজন্ম অনেক বেশি এগিয়ে। তারা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান, কবিতা, চলচ্চিত্র নির্মাণ করছে। এই গানটির কথা ও সুর আমার ভালো ল