এশিয়া

১৫ আগস্ট কেন ভারতের স্বাধীনতা দিবস?

১৫ আগস্ট কেন ভারতের স্বাধীনতা দিবস?

দুইশ’ বছরের ব্রিটিশ শাসন থেকে ভারতীয় উপমহাদেশের মুক্তি মিলে ১৯৪৭ সালে। ওই বছর ব্রিটেনের কাছে থেকে স্বাধীনতা লাভ করে ভারত ভাগের মাধ্যমে ভারত এবং পাকিস্তান নামে দুটি দেশের জন্ম হয়। তখন থেকে ১৫ আগস্টকে ভারতের স্বাধীনতা দিবস হিসেবে উদযাপন করা হয়।   উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে এবার ৭২তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করছে ভারত। স্বাধীনতা সংগ্রামীদের আত্মত্যাগ ও প্রাণদানের ইতিহাস রয়েছে। সেই ইতিহাসকে জানতে বসলেই যে প্রশ্ন সবার আগে উঠে আসে, তা হলো ভারতের স্বাধীনতা দিবস কেন ১৫ আগস্ট পালন করা হয়? কেন এই দিনটিকে বেছে নেয়া হলো?   ভারতের শেষ ভাইসরয় লর্ড মাউন্টব্যাটেনকে ১৯৪৭ সালের ৩০ জুন ক্ষমতা হস্তান্তরের আদেশ দেয় ব্রিটিশ পার্লামেন্ট। কিন্তু সেই ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে আগস্ট মাস পর্যন্ত লেগে যায়।   তৎকালীন ভারতীয় রাজনীতিবিদ সি রাজাগোপালাচারি বলেন, যদিও ১৯৪৮
ভারতের সবচেয়ে গরিব মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতের সবচেয়ে গরিব মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতের ২৯ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের মধ্যে সবচেয়ে ধনী হলেন এন চন্দ্রবাবু নাইডু। অন্যদিকে, সবচেয়ে গরিব মুখ্যমন্ত্রী হলেন পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।   দেশটির বেসরকারি সংস্থা অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মসের (এডিআর) তথ্য অনুযায়ী, অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নাইডুর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১৭৭ কোটি টাকার সমপরিমাণ। মন্ত্রীত্বের পাশাপাশি এনটিআর রামা রাও-এর হাতে তৈরি তেলেগু দেশম পার্টির সভাপতির দায়িত্বেও রয়েছেন অবিভক্ত তেলেঙ্গানার এই নেতা।   ধনীদের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন প্রেমা খান্ডু। ভারতীয় জনতা পার্টি শাসিত অরুণাচল প্রদেশ সরকারের মুখ্যমন্ত্রী তিনি। তার মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১২৯ কোটি টাকার।   ধনীদের তালিকায় তৃতীয় স্থানেই রয়েছেন পঞ্জাবের কংগ্রেস দলীয় মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরেন্দর সিং। তার সস্পত্তির পরিমাণ ৪৮ কোটা টাকার। এই তালিকায় শেষের
কুরবানির পশু আমদানি করছে সৌদি

কুরবানির পশু আমদানি করছে সৌদি

পবিত্র ঈদ-উল-আযহাকে কেন্দ্র করে সৌদি আরব ইতোমধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ৩ লাখ ৫৯ হাজার গবাদিপশু আমদানি করেছে। গত ১৪ জুলাই থেকে ১ আগস্ট পর্যন্ত এসব গবাদিপশু আমদানি করা হয়।   সৌদি আরবের পরিবেশ, পানি ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির ইংরেজি দৈনিক আরব নিউজ এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।       এতে বলা হয়েছে, পবিত্র হজ পালন করতে আসা হজযাত্রী ও স্থানীয়দের চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে পশু আমদানি করা হচ্ছে।   আরব নিউজ বলছে, ইসলামি উন্নয়ন ব্যাংকের আধাই প্রকল্পের আওতায় প্রথম ধাপে ২ লাখ এবং স্থানীয় বাজারের জন্য ১ লাখ ৫৯ হাজার গবাদিপশু আমদানি করা হয়েছে।   আরো ২৫ লাখ গবাদিপশু আমদানি করা হবে বলে প্রত্যাশা করছে সৌদি পরিবেশ, পানি ও কৃষি মন্ত্রণালয়। এরমধ্যে ১৫ লাখ স্থানীয় বাজারের জন্য এবং বাকি ১০ লাখ আধাই প্রকল্পের জন্য আমদানি করা হবে। &nbs
নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষার্থীদের সমর্থন

নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষার্থীদের সমর্থন

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে জাবালে নূর পরিবহনের বাসচাপায় নিহত দুই স্কুলছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় বিভিন্ন স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করেছে।   সোমবার দুপুরে কলকাতার পার্ক সার্কাস এলাকায় বঙ্গবন্ধু সরণিতে অবস্থিত বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসের সামনে বাংলাদেশের এই ছাত্র আন্দোলনের সমর্থনে হাজার হাজার শিক্ষার্থী ও যুব সংগঠনের সমর্থকেরা অংশ নেয়।   কলকাতা ইউনিভার্সিটি, প্রেসিডেন্সি, যাদবপুর বেথুনসহ কলকাতার বিভিন্ন কলেজ এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ভারতীয় ও বাংলাদেশি শিক্ষার্থী প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নেয়।   কলকাতা পার্ক সার্কাসের সাত মাথার মোড় থেকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতৃত্বে ছাত্রসমাজের ব্যানারে এ বিক্ষোভ শুরু হয়। শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশ পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে।   এর আগে ভার
‘দুই বছর আগেই ইমরানকে ক্ষমতায় আনার পরিকল্পনা করে সেনাবাহিনী’

‘দুই বছর আগেই ইমরানকে ক্ষমতায় আনার পরিকল্পনা করে সেনাবাহিনী’

ইমরান খান হবেন সেনাবাহিনীর হাতের পুতুল। সেনাবাহিনী যা বলবে তাকে তাই অনুসরণ করতে হবে। তাকে ক্ষমতায় আনার পরিকল্পনা সাজানো হয় দুই বা তিন বছর আগে। এমন বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন ইমরান খানের সাবেক স্ত্রী ও সাংবাদিক রেহাম খান। তিনি ভারতের অনলাইন দ্য হিন্দুকে লন্ডন থেকে টেলিফোনে একটি দীর্ঘ সাক্ষাতকার দিয়েছেন। সাক্ষাতকার নিয়েছেন সুহাসিনি হায়দার। এতে রেহাম খান অভিযোগ করেছেন জালিয়াতির নির্বাচনের সুবিধা পেয়েছে পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই)। এ ছাড়া পাকিস্তানের পররাষ্ট্রনীতি, বিশেষ করে ভারত ইস্যুতে, ইমরান খানের নীতি হবে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ইচ্ছা অনুযায়ী। এখানে সংক্ষেপে ওই সাক্ষাতকারটি তুলে ধরা হলো:   প্রশ্ন: নির্বাচনে পিটিআইয়ের পারফরমেন্সে আপনার প্রতিক্রিয়া কি, বিশেষ করে পাঁচটি আসনে নির্বাচিত করে ইমরান খান বিজয়ী হওয়ায়? উত্তর: ফল কি হবে তা আমি জানতাম। কিন্তু আমি এটাও জানি, নির্বাচন যদি অ
ভারত এক পা অগ্রসর হলে আমরা দুই পা আগাবো: ইমরান

ভারত এক পা অগ্রসর হলে আমরা দুই পা আগাবো: ইমরান

দুর্নীতিমুক্ত, মানবিক দেশ গড়ার ঘোষণা দিলেন পাকিস্তানের হবু প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা না হলেও, বুধবারের নির্বাচনে জয়ের দাবি করেছেন তিনি। জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে কথা বলেছেন সরকারপ্রধান হিসেবে নিজের পরিকল্পনা নিয়ে। জানিয়েছেন, করের টাকা নষ্ট করে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে থাকবেন না তিনি।   ইমরান খান বলেন,যদি ভারত সরকার আমাদের সাথে সম্পর্কের উন্নয়ন চায় তাহলে আমরা তাদের সাথে আছি। যদি তারা এক পা অগ্রসর হয় তাহলে আমরা দুপা অগ্রসর হবো। কিন্তু তাদের এক পা এগিয়ে আসতে হবে। ভারতের সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন ও দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠা একমাত্র উপায় সংলাপ।   তিনি বলেন, আমি রাজনীতি এসেছিলাম কারণ জিন্নাহ যে পাকিস্তানের স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই পাকিস্তান চেয়েছি। এবং আল্লাহ আমাকে একটা সুযোগ দিয়েছেন আমার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার।   সাবেক এই ক্রিকেটার বলেন, এই নির্বাচন
ক্ষমতার পালাবদল ঘটতে যাচ্ছে পাকিস্তানের রাজনীতিতে

ক্ষমতার পালাবদল ঘটতে যাচ্ছে পাকিস্তানের রাজনীতিতে

ইসলামাবাদ, ২৭ জুলাই- বুধবার অনুষ্ঠিত দেশটির জাতীয় নির্বাচনের ফল অনুযায়ী ইমরান খান হতে যাচ্ছেন পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী। ক্রিকেটার থেকে পুরাদস্তুর রাজনীতিবিদে পরিণত হওয়া ইমরান যুগের সূচনা হতে না হতেই পরিবর্তনের হাওয়া লেগেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডে। পিসিবি’র চেয়ারম্যান পদে আসতে যাচ্ছেন দেশটির আরেক কিংবদন্তি অল রাউন্ডার ওয়াসিম আকরাম। আকরামের পারিবারিক সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে স্পোর্টস মিরছি।   ওই সূত্র বলেছে, ‘হ্যাঁ, ওয়াসিম পিসিবি’র পরবর্তী চেয়ারম্যান হতে যাচ্ছেন। তিনি ইমরান খানের সাথে ক্রিকেট খেলেছেন। এখন তার নেতৃত্বে দেশকে নতুন উচ্চতায় নিতে প্রস্তুত।’   ইমরান খানের নেতৃত্বেই ১৯৯২ সালে প্রথমবারের মতো ক্রিকেট বিশ্বকাপ জেতে পাকিস্তান। সেই দলে ছিলেন ওয়াসিম আকরামও। আকরাম নিজেও বিশ্বসেরা অল রাউন্ডার। দীর্ঘদিন নেতৃত্ব দিয়েছেন দেশকে। ইমরানের সাথে বরাবরই সুসম
জেলে থেকেও নির্বাচনী আলোচনায় নওয়াজ

জেলে থেকেও নির্বাচনী আলোচনায় নওয়াজ

দুর্নীতি মামলায় ১০ বছরের জেল হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন। তবুও দেশটির সাধারণ নির্বাচনে তাকে ঘিরেই আলোচনা হচ্ছে। অভিযোগ উঠেছে, আইএসআই নওয়াজ ও তার মেয়ে মরিয়মকে নির্বাচনের আগে জেল থেকে বের হতে দিতে চায় না। সম্প্রতি দেশটির প্রধান বিচাপতির কাছে এমন চাপ এসেছে বলেও জানিয়েছেন ইসলামাবাদ হাইকোর্টের এক বিচারপতি।   পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে জয়ের আশাবাদী তেহরিক-এ-ইনসাফের প্রধান ইমরান খানও তাকে নিয়ে কথা বলছেন। করাচিতে এক নির্বাচনী সভায় তিনি বলেন, নাগাড়ে ভারতের স্বার্থরক্ষা করে চলেছেন নওয়াজ। জেলে বসেও ষড়যন্ত্র করে চলেছেন, কিভাবে ভোট ভেস্তে দেয়া যায়। ভোটে ‘রিগিং’ হবে বলে অমূলক প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। সবই নির্বাচনের বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট করতে।       ইমরান আরও বলেন, আন্তর্জাতিক স্তরে দেশের সেনাবাহিনীকে গালমন্দ করাটা
‘বিশ্বের সবচেয়ে নিগৃহীত জাতিতে পরিণত হচ্ছেন রোহিঙ্গারা’

‘বিশ্বের সবচেয়ে নিগৃহীত জাতিতে পরিণত হচ্ছেন রোহিঙ্গারা’

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) মহাপরিচালক উইলিয়াম লেসি সুইং বলেছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নৃশংস নির্যাতন ও দমন পীড়নের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলমানদের প্রতি সমর্থন জানাতে পুরো বিশ্বকে এগিয়ে আসতে হবে। রোহিঙ্গাদের সহায়তায় এগিয়ে অাসতে মঙ্গলবার বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।   সুইং বলেন, যে সকল রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে অবস্থিত কক্সবাজার জেলায় অস্থায়ী শিবিরে বসবাস করছেন তারা খারাপ আবহাওয়া, অর্থের অভাব এবং অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ- এই ত্রিমুখী সমস্যা মোকাবেলা করছেন।       মিয়ানমার এবং বাংলাদেশে এক সপ্তাহের সফর শেষে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা মুসলমানরা এমন এক জাতিতে পরিণত হয়েছে যাদের কোনো ভবিষ্যৎ নেই এবং যারা বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত ও নিগৃহীত জাতি গোষ্ঠীতে পরিণত হতে যাচ্ছে।   আইওএম প্রধান রোহিঙ্গা ই
ভোট পর্যন্ত কারাগারেই থাকতে হচ্ছে নওয়াজকে

ভোট পর্যন্ত কারাগারেই থাকতে হচ্ছে নওয়াজকে

সামনের সপ্তাহেই সাধারণ নির্বাচন পাকিস্তানে। নির্বাচনী প্রচারণার ব্যস্ততা এখন তুঙ্গে। আর সেই ভোট পর্ব শেষ না পর্যন্ত কারাগারেই বন্দি থাকতে হচ্ছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে।   দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত নওয়াজ গত সপ্তাহ থেকে রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে দিন কাটাচ্ছেন। একই মামলায় নওয়াজের মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ এবং তার স্বামী মুহাম্মদ সফদরকেও সাজা ঘোষণা করা হয়েছে। এই রায়ের বিরুদ্ধে বুধবার ইসলামাবাদ হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছিলেন তারা।   কিন্তু সেই আবেদনের শুনানি চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হাইকোর্টের দুই সদস্যের বেঞ্চ। যা থেকে এটা স্পষ্ট যে, ২৫ জুলাই অর্থাৎ ভোট পর্যন্ত জেলেই থাকতে হচ্ছে তাদের। নওয়াজকে সামনে রেখে শেষ মুহূর্তে প্রচারে ঝড় তোলার পরিকল্পনা করে রেখেছিল তার দল পিএমএল-এন। আপাতত তা ভেস্তে গেছে।   তবে পাকিস্তানের বেশ কিছু গণমাধ্য