ওয়াশিংটন ডিসি

ওয়াশিংটনে বই মেলায় ফখরুদ্দীন

ওয়াশিংটনে বই মেলায় ফখরুদ্দীন

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানীতে বাঙালিদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক বইমেলায় যোগ দিলেন ফখরুদ্দীন আহমদ।   ছুটির দিনে ওয়াশিংটন ডিসির উপকণ্ঠে ভার্জিনিয়ার এনানডেল শহরে নোভা কম্যুনিটি কলেজ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত এই মেলায় একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আলোচনা করেন তিনি।   বাংলাদেশে জরুরি অবস্থার মধ্যে গঠিত বহুল আলোচিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা ফখরুদ্দীনকে।   এর আগে ওয়াশিংটন ডিসিতে বিভিন্ন পারিবারিক অনুষ্ঠান এবং ঈদ জামাতে দেখা গেলেও এই প্রথম কোনো প্রকাশ্য অনুষ্ঠানে দেখা গেল। অনুষ্ঠানে তার স্ত্রীও ছিলেন।   ড. আশরাফ আহমেদের ‘পাণ্ডুলিপির একাত্তর’র মোড়ক উন্মোচনের পর আলোচনায় ফখরুদ্দীন বলেন, “আশরাফ আহমেদের সাথে আমার প্রথম পরিচয় আশির দশকে যখন তিনি বিজ্ঞান নিয়ে গবেষণা করতেন, যা এখনও করে থাকেন। অবশ্য এখন তিনি লেখক হিসেবেই বেশি পরিচিতি পাচ্ছেন।”   বইটি পড়
ওয়ালসলে কাউন্সিলর প্রার্থী মিসবাউর রহমানের সমর্থনে মতবিনিময় সভা

ওয়ালসলে কাউন্সিলর প্রার্থী মিসবাউর রহমানের সমর্থনে মতবিনিময় সভা

আহমেদ কাবির ঃ যুক্তরাজ্যের আসন্ন সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে বার্মিংহামের র্পাশ্ববর্তী ওয়ালসল কাউন্সিল থেকে প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রথমবারের মতো মিসবাউর রহমান নামের একজন বাঙালী কাউন্সিলর হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন। তিনি ওয়ালসল কাউন্সিলের অলড্রিজ সেন্ট্রাল ও সাউৎ এলাকা থেকে এই মনোনয়নপ্রাপ্ত হয়েছেন। বাঙালী কাউন্সিলর প্রার্থী মিসবাউর রহমানের সমর্থনে গত ১৯ এপ্রিল ওয়ালসলের ডার্লসটনের ভোজন লাউঞ্জ রেষ্টুরেন্টে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওয়ালসলে বসবাসরত বাঙালী কমিউনিটির বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এই মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রবীণ কমিউনিটি নেতা আলহাজ্ব ফয়েজ উল্লাহ। ক্বারী আবুল খায়েরের পবিত্র কোরাণ তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া মতবিনিময় সভা পরিচালনা করেন দ্যা গিল্ড অফ বাংলাদেশী রেষ্টুরার্সের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস শহীদ। মতবিনিময় সভার শুরুতে মিসবাউর রহমান লেবার পা
ওয়াশিংটনে প্রবাসীদের বৈশাখ উদযাপন

ওয়াশিংটনে প্রবাসীদের বৈশাখ উদযাপন

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন স্টেট ইউনিভার্সিটিতে ‘অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশি স্টুডেন্ট অ্যান্ড স্কলার (এবিবিএস)’-এর উদ্যোগে পহেলা বৈশাখ উদযাপিত হয়েছে।   শনিবার ওয়াশিংটন স্টেট ইউনিভার্সিটির চিনক কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজন করা হয় বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।   এ সময় সমবেত কণ্ঠে ‘এসো হে বৈশাখ’ গান গেয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানান অনুষ্ঠানে আগত অতিথিরা। অতিথিদের বাংলাদেশি খাবার দিয়ে আপ্যায়ন করা হয় অনুষ্ঠানে।     সংগঠনটির উপদেষ্টা নন্দিতা বিশ্বাস ও প্রেসিডেন্ট তৌহিদ জামান পুলম্যানে বসবাসরত সকল বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ও পরিবারকে ধন্যবাদ জানান।  
ওয়াশিংটন ডিসিতে বইমেলার সূচনানুষ্ঠান

ওয়াশিংটন ডিসিতে বইমেলার সূচনানুষ্ঠান

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসিতে অনুষ্ঠিতব্য বইমেলার সূচনানুষ্ঠান করেছে ‘আমরা বাঙালি ফাউন্ডেশন’।   বুধবার ওয়াশিংটন ডিসিতে এ সূচনানুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন ডিসি বইমেলার প্রধান সমন্বয়ক আনোয়ার ইকবাল।   বিশ্বজুড়ে বাংলা বই’-এ স্লোগানকে সামনে রেখে ‘আমরা বাঙালি ফাউন্ডেশন’-এর উদ্যোগে ওয়াশিংটনে প্রথমবারের মতো ‘ডিসি বইমেলা’অনুষ্ঠিত হবার কথা জুন মাসের ৩০ তারিখে।   অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে ছিলো স্বরচিত কবিতা পাঠ। এ পর্বে অংশ নেন আনিস আহমেদ, মাহবুব সালেহ, সন্তোষ বড়ুয়া ও মোস্তফা তানিম।   আবৃত্তিতে অংশ নেন দিপু খান, অদিতি সাদিয়া রহমান ও সিলিকাকণা। এরপর বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি রচনাভিত্তিক গীতিনাট্য পরিবেশন করেন পরমা স্যানাল।   অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উপর একটি ব্যতিক্রমধর্মী ‘শো এন্ড টেল’ শীর্ষক আয়োজন পরিবেশিত হয়। এতে অংশ নেন আ
ওয়াশিংটন ডিসিতে বইমেলার সূচনানুষ্ঠান

ওয়াশিংটন ডিসিতে বইমেলার সূচনানুষ্ঠান

‘বিশ্বজুড়ে বাংলা বই’ স্লোগানে এ বছর প্রথমবারের মতো ওয়াশিংটন ডিসিতে বইমেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ডিসি বইমেলা শীর্ষক এটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ জুন। সোমবার এ উপলক্ষে একটি ব্যতিক্রমধর্মী সূচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বইমেলার প্রধান সমন্বয়ক আনোয়ার ইকবালের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটি চার ঘন্টাব্যাপী চলে।   প্রথম পর্বে ছিলো স্বরচিত কবিতা পাঠ। এ পর্বে অংশ নিয়েছেন আনিস আহমেদ, মাহবুব সালেহ, সন্তোষ বড়ুয়া, মোস্তফা তানিম। এছাড়া আবৃত্তিতে অংশ নিয়েছেন দিপু খান, অদিতি সাদিয়া রহমান এবং সিলিকা কণা। পরে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচনাভিত্তিক গীতিনাট্য পরিবেশন করেন পরমা স্যানাল। চমৎকার এ নৃত্যে দর্শকদের প্রাণ ছুঁয়ে যায়।   অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ওপর একটি ব্যতিক্রমী শো-অ্যান্ড টেল শীর্ষক আয়োজন করা হয়। অংশ নেন কবি এবং মিডিয়া ব্যক্তিত্ব আসিফ এন্তাজ রবি, ডরথী বোস এবং দিনার
ওয়াশিংটন প্রবাসী বাংলাদেশিদের বনভোজন

ওয়াশিংটন প্রবাসী বাংলাদেশিদের বনভোজন

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসি ও তার আশপাশের প্রবাসী বাংলাদেশিরা ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের লেক ফ্যায়ারফ্যাক্স পার্কে বনভোজনে অংশ নিয়েছে।   স্থানীয় সময় রোববার ‘বাংলাদেশ আমেরিকান কালচালার অরগানাইনেজশন অব ডিসি (বাকোডিসি)’ নামে প্রবাসীদের একটি সংগঠন এ বনভোজন কর্মসূচির আয়োজন করে।   সকাল ১০টায় শুরু নাস্তা পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বনভোজনের মূল অনুষ্ঠান। এরপর বারবিকিউচলে দুপুরের খাবারের আগ পর্যন্ত।এ পর্বে বিশেষভাবে সহযোগিতা করেন জহির খান, এজেএম হোসাইন, তালহা রহমান, সামছুদ্দীন মাহমুদ, মুনির হোসেন, দেলওয়ার ও তালেব।   শিশু-কিশোরদের বিভিন্ন খেলাধুলা পরিচালনা করেন তারিকুল ইসলাম অশ্রু। তাকে সহায়তা করেন নুর মোহাম্মদ লিটন। দুপুরের খাবারের পর নারীদের হাড়ি ভাঙ্গা ও পুরুষদের রশি টানাটানির মাধ্যমে খেলাধুলা পর্ব শেষ হয়।   ‘র‌্যাফেল ড্র’-এর আয়োজনে সহযোগিত
ওয়াশিংটনে ”মুধুর স্বপ্ন” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

ওয়াশিংটনে ”মুধুর স্বপ্ন” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত হল ফাহমিদা হোসেন শম্পার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ”মধুর স্বপ্ন” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান। ১১ ফেব্রুয়ারি শনিবার সন্ধ্যায় ৮৩৮০ লরেল ক্রেষ্ট ড্রাইভ, লর্টন, ভার্জিনিয়ায় চট্টগ্রাম বাংলাদেশ বেতারের সাবেক প্রযোজক নাট্যকার ও আবৃতিকার এ কে এম আসাদুজ্জামান এর প্রানবন্ত উপস্থানায় অনুষ্ঠিত মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত এবং মধুর স্বপ্ন কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন ভয়েস অব আমেরিকা বাংলা বিভাগের প্রধান বরন্য সাংবাদিক রোকেয়া হায়দার। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ভয়েস অব আমেরিকার বিশিষ্ট সাংবাদিক আবৃতিকার সরকার কবিরউদ্দীন, লেখক কলামিষ্ট ওয়াহেদ হুসাইনী, বাংলাদেশ দূতাবাসের রাজনৈতিক মিনিষ্টিার তোফিক হাসান ও ডা. মুকুল সিদ্দিকী। অনুষ্ঠানে কাব্যগ্রন্থ মধুর স্বপ্ন কাব্যগ্রন্থ থেকে কবিতা আবৃতি করেন ভয়েস আমেরিকার ব্রডকাষ্টার সাবরিনা চৌধুরী ডোনা, টিভি অভিনেত্রী ও জনপ্রিয় উ
সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের জিরো টলারেন্স : ওয়াশিংটনে মাওলানা ফরিদ উদ্দীন মাসুদ

সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের জিরো টলারেন্স : ওয়াশিংটনে মাওলানা ফরিদ উদ্দীন মাসুদ

ইসলাম শান্তি ও নিরাপত্তার ধর্ম। ইসলাম মানবতার ধর্ম। বাংলাদেশের মানুষ সত্যিকারের মুসলামান। তারা শান্তি প্রিয় মানুষ। দেশের মানুষ জঙ্গীবাদকে আশ্রয় প্রশ্রয় দেয়না। দেশের লাখ লাখ আলেম মাশায়েখরা জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে। এছাড়া জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সরকারের জিরো টলারেন্স এর কারনে বাংলাদেশ সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ কঠোর ভুমীকা রাখছে। কিন্তু শান্তি প্রিয় বাংলাদেশে ইসলামের নামে জঙ্গীবাদ এবং সহিংসতা করার চেষ্টা হচ্ছে জামায়াত শিবির। গ্রামে গ্রামে মহল্লায় মহল্লায় ইসলামের নামে জঙ্গীবাদ আর সন্ত্রাসবাদ কায়েম করতে চায় জামায়াত শিবির। জঙ্গীবাদ মোকাবিলায় ধর্মীয় ব্যক্তিদের কাজে লাগাতে হবে। আর জামায়াত যেহেতু সন্ত্রাসী দল, তাই জামায়াতের সব প্রকাশনা বন্ধ করতে হবে। জঙ্গী-সন্ত্রাসীদের কোনভাবেই ইসলামকে কলুষিত করতে দেয়া হবে না। জঙ্গীবাদ সন্ত্রাসবাদের বিষদাঁত ভেঙে দিতে হবে চীরতরে। জামায়াত শিবির কোন ইস