কানাডা

এসি এডুগন পেলেন লাখ ডলারের সাহিত্য পুরস্কার

এসি এডুগন পেলেন লাখ ডলারের সাহিত্য পুরস্কার

এসি এডুগনসাহিত্যক্ষেত্রে কানাডার বেশ কয়েকটি পুরস্কার রয়েছে। কবিতার জন্য পঁয়ষট্টি হাজার ডলার মূল্যের গ্রিফিন পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ উপন্যাসের জন্য পঞ্চাশ হাজার ডলার মূল্যের রাইটার্স ট্রাস্ট পুরস্কার, ইংরেজি ও ফরাসি ভাষায় রচিত সাহিত্যের জন্য প্রতিটি পঁচিশ হাজার করে মোট চৌদ্দটি গভর্নর জেনারেল পুরস্কার। সাহিত্যকে ছাপিয়ে যে পুরস্কারটি গত দুই দশক জুড়ে সাহিত্যামোদীদের কাছে বিপুল আলোচনার বিষয় হয়েছে সেটি হলো এক লাখ ডলার মূল্যের স্কোশিয়া ব্যাংক গিলার পুরস্কার। দুই মাস অপেক্ষা শেষে ১৯ নভেম্বর টরন্টোর সময় রাত ৮টায় জাঁকজমকপূর্ণ এক অনুষ্ঠানে এ পুরস্কারের জন্য লেখক এসি এডুগনের নাম ঘোষণা করা হয়। তিনি পাবেন এক লাখ ডলার। সংক্ষিপ্ত তালিকার বাকি চার সদস্যের প্রত্যেকে পাবেন দশ হাজার ডলার। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অগ্রগণ্য সাহিত্যিক মার্গারেট অ্যাটউড, টরন্টোর মেয়র জন টরিসহ অনেক বরেণ্য লেখক-সাহিত্যিক ও বিশিষ্টজন। পাঁচ
জাদুঘরের ছবিতে কমবে রোগবালাই

জাদুঘরের ছবিতে কমবে রোগবালাই

চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্রে ওষুধ থাকবে—এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ব্যবস্থাপত্রে যদি চিত্রকর্ম উপভোগ করতে বলা হয়, তাহলে একটু অবাকই হতে হয়। অবাক করা সেই ব্যতিক্রমী ঘটনা এবার বাস্তবে। রোগীরা জাদুঘরে গিয়ে ছবি দেখবেন। এতে মনে প্রশান্তি আসবে, শরীর-মন চাঙা হবে, দম ফেলার ফুরসত মিলবে। কমে যাবে রোগবালাই। কানাডার মন্ট্রিলে চিকিৎসকদের ব্যবস্থাপত্রে রোগীদের জন্য থাকবে চারুশিল্পকর্ম—মানে শিল্পীদের আঁকা বিভিন্ন ধরনের ছবি। মন্ট্রিল মিউজিয়াম অব ফাইন আর্টস (এমএমএফএ) রোগীদের বিনা মূল্যে জাদুঘরে যাওয়ার ব্যবস্থা করে দিতে চিকিৎসকদের পরামর্শ দিয়েছে। বিশ্বে এ ধরনের পদক্ষেপ এই প্রথম বলে ধারণা করা হচ্ছে। জাদুঘর কর্তৃপক্ষ বলছে, তাদের চারুশিল্পকর্ম দেখে রোগীরা স্বস্তি পাবেন। এটি তাঁদের একধরনের আরাম দেবে। আগামী ১ নভেম্বর থেকে এই প্রকল্প চালু হবে। এম ডেকিন্স ফ্রান্সকোফোনস দ্য কানাডার সদস্য চিকিৎসকেরা প্রাথমি
কানাডা ও বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর সাথে বাংলাদেশি জুয়েলের সাক্ষাৎ

কানাডা ও বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর সাথে বাংলাদেশি জুয়েলের সাক্ষাৎ

জাতিসংঘের ৭৩ তম সাধারন অধিবেশন চলাকালে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে লিভ নো গ্যার্ল বিহাইন্ড শিরোনামে বৃটিশ সরকার ও কানাডিয়ান সরকারের আমন্ত্রনে জাতিসংঘের ইয়থ সাব কমিটির মেম্বার কমিউনিটি নেতা জুয়েল মিয়া কনফারেন্সে যোগদান করেন। সেখানে বৃটিশ সরকার এবং কানাডিয়ান সরকার আফ্রিকার বিভিন্ন গরীব দেশের ছাত্রীদের পড়াশোনায় উদ্ভোধ্য করার জন্য অনুদান দিয়ে থাকেন। জুয়েল মিয়া সাক্ষাৎকালে আফ্রিকার বিভিন্ন দারিদ্র দেশের ছাত্রীদেরকে অনুদান দেয়ায় বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এবং কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন থ্রোডুকে আন্তরিক ধ্যনবাদ জানান। পাশাপাশি জুয়েল মিয়া বাংলাদেশের অনেক মেয়েরা পড়ালেখা থেকে দূরে আছে তাই কানাডার প্রধানমন্ত্রী ও বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীকে সুদৃষ্টি দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন এবং বিশেষভাবে তিনি রোহিঙ্গা ছেলে মেয়েদেরকে পড়ালেখা করার জন্য তাদের প্রতিও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়া এবং বাংলাদেশ সফ
কানাডাকে ক্ষমা চাইতে বলল সৌদি

কানাডাকে ক্ষমা চাইতে বলল সৌদি

কানাডাকে সৌদি আরবের কাছে ক্ষমা চাইতে বললেন দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রী আদেল-আল-জুবায়ের। সম্প্রতি সৌদি আরবে কয়েকজন নারী অধিকারকর্মীদের আটকের পর কানাডা সরকারের পক্ষ থেকে তাদের মুক্তির দাবি জানানোয় তাদেরকে ক্ষমা প্রর্থনা করতে বলা হচ্ছে। গত বুধবার রাতে নিউ ইয়র্কে বৈদেশিক স¤পর্ক পরিষদে তিনি এ দাবি করেন। তিনি বলেন, আমাদের দেশকে অস্থিতিশীল দেশ হিসেবে বিবেচনা করা বন্ধ করুন। আমরা কানাডার নিজস্ব রাজনীতিতে রাজনৈতিক ফুটবল হতে চাই না। খেলার জন্য অন্য বল খুঁজে বের করুন। আর যদি কূটনৈতিক বিরোধ মেটাতে চান, তাহলে ধরণের কাজ বন্ধ রাখতে হবে। তিনি আরো বলেন, এটার সমাধান খুবই সহজ। ভুল স্বীকার করুন এবং ক্ষমা চান। গত আগস্ট মাসে কানাডার সঙ্গে সৌদি আরব বাণিজ্যিক স¤পর্ক শিথিল করেছে। তারা শস্য আমদানি বন্ধ করেছে, কানাডার রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করেছে। এমনকি নারী অধিকারকর্মীদের মুক্তির দাবি জানালে কানাডায় অধ্যয়নরত সক

যুক্তরাষ্ট্রে ফেঁসে যাচ্ছেন গ্রিনকার্ডধারীরা

যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্প প্রশাসন একটি প্রস্তাবনার ঘোষণা দিয়েছে যার ফলে দেশটিতে স্থায়ী বসবাসের অনুমতি পাওয়ার ক্ষেত্রে যারা ইতোমধ্যেই সরকারি সুবিধা পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছেন এমন বিদেশীদের জীবন কঠিন হয়ে পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।   নতুন প্রস্তাবনা অনুযায়ী যেসব অভিবাসীরা খাদ্য, বাসস্থান বা স্বাস্থ্যসেবা নিচ্ছেন তারা বোঝা হিসেবে বিবেচিত হবেন এবং তাদের গ্রিন কার্ড পাওয়ার আবেদন প্রত্যাখ্যান হতে পারে।       যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বিদেশীদের জন্য নানা ধরণের সুবিধা বন্ধ কিংবা আরও কঠোর করার জন্য এ ধরণের উদ্যোগ নিচ্ছে ট্রাম্প প্রশাসন।   বার্তা সংস্থা রয়টার্স-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে এর ফলে দেশটিতে বৈধভাবেও যেসব বিদেশী যাবেন বা রয়েছেন তারা খাদ্য সহায়তা, গৃহায়ন কিংবা স্বাস্থ্যসেবা পাওয়াটা কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।   হোমল্যান্ড সিকিউরিটির বিভাগের প্রস্তাবিত রেগুলেশন্সে অ
কানাডা সৌদি টানাপড়েনে ৪০০ কোটি ডলারের বাণিজ্য ক্ষতি!

কানাডা সৌদি টানাপড়েনে ৪০০ কোটি ডলারের বাণিজ্য ক্ষতি!

সৌদি আরবের সাথে কানাডার কূটনৈতিক টানপড়েনে বছরে ৪০০ কোটি ডলারের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সৌদি আরবে ২০১৭ সালে কানাডা মোট ১১২ কোটি ডলারের পণ্য রপ্তানি করে, যা দেশটির মোট রপ্তানির দশমিক ২ শতাংশ। আন্তর্জাতিক মিডিয়ার খবরের তথ্যে এইসব তথ্য ওঠে এসেছে। কানাডা বলেছে, সৌদি আরবের কাছে তাদের তৈরি সামরিক ট্যাংক বিক্রির জন্য ১ হাজার ৩০০ কোটি ডলারের যে চুক্তি হয়েছিল, তার কী হবে সেটা তারা জানে না। অটোয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ও মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক বিশেষজ্ঞ থমাস জুনোও বলেন, এই চুক্তির বিষয়ে সৌদি কী সিদ্ধান্ত জানায়, সেটার ওপর বোঝা যাবে সমস্যার সমাধানে তারা কতটা আগ্রহী। সৌদি আরবের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে রিয়াদের সমালোচনা করায় বেশ বিপাকে পড়েছে কানাডা সরকার। কারাবন্দী অধিকারকর্মীদের মুক্তি দিতে রিয়াদের প্রতি সাদামাটাভাবেই আহ্বান জানিয়েছিল অটোয়া। এ আহ্বানেই রেগে আগুন সৌদি আরব। সর্বশেষে কা
কানাডা ষ্টুডেন্ট ভিসার সাতকাহন

কানাডা ষ্টুডেন্ট ভিসার সাতকাহন

মো: হাসান সাজ্জাদ ইকবাল: ইন্টারনেশনাল ষ্টুডেন্টদের একটা বিশাল অংশ কেন তাদের স্টাডি পার্মিট পাচ্ছেনা? এটা শুধু আমাদের দেশের ছাত্র/ছাত্রীদের ক্ষেত্রেই ঘটছে তা কিন্তু নয়। এমন তো নয় যে তারা কানাডাতে ষ্টাডি করার মত মেধাবি নয় অথবা তাদের পড়াশুনা করার মত যথেষ্ট আর্থিক সামর্থ্য নেই। বেশিরভাগেরই তা আছে। তাহলে ভিসা অফিসার কেন এক তৃতীয়াংশ আবেদন নাকচ করে দিচ্ছে? শিক্ষাক্ষেত্রে কানাডার বানিজ্য বছরে প্রায় ১১.৬ বিলিয়ন ডলার। প্রতিনিয়ত কানাডা প্রচার করছে যাতে শিক্ষার্ত্রীরা এখানে আসার জন্য অনুপ্রানিত হয়। কানাডার ইমিগ্রেশন মন্ত্রী অনারেবল আহমেদ হুসেন প্রায়ই স্বীকার করেন যে, বিদেশী ছাত্র/ছাত্রী কানাডার জন্য কতখানি উপকার বয়ে আনে। তারপরেও কেন এত ভিসা রিজেকশন? উত্তর আমেরিকার যেকোন স্বীকৃত পোষ্টগ্রাজুয়েট শিক্ষাপ্রতিষ্টানের শিক্ষার মান অনেক ভালো ও বিশ^মানের এটা অনীস্বীকার্য। এখানকার ডিগ্রী দিয়ে গ্লোবাল জব মা
ডাগ ফোর্ডকে সামলাতে বিল ব্লেয়ার মন্ত্রী!

ডাগ ফোর্ডকে সামলাতে বিল ব্লেয়ার মন্ত্রী!

বুধবার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো মন্ত্রীসভা সম্প্রসারন করে পাঁচজন নতুন মন্ত্রী নিয়োগ দেন। স্কারবোরো সাউথওয়েষ্টের এমপি বিল ব্লেয়ারকে মন্ত্রীসভায় অন্তর্ভূক্ত করে  সীমান্ত নিরাপত্তা, সংঘবদ্ধ অপরাধ নিয়ন্ত্রন মন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। টরন্টোর পুলিশ প্রধান হিসেবে ক্যারিয়ার শেষ করেই রাজনীতিতে যোগ দেওয়া বিল ব্লেয়ার এমপি লিবারেল পার্টির মনোনয়ন নিয়ে এমপি হিসেবে নির্বাচিত হন। ‘মন্ত্রী করার প্রতিশ্রুতি দিয়েই বিল ব্লেয়ারকে লিবারেল পার্টিতে এনে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে- এমন গুঞ্জন থাকলেও তাঁকে মন্ত্রী সভায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি। তবে প্রধানমন্ত্রীর হয়ে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ইস্যূতে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। ফেডারেল নির্বাচনের ১৫ মাস আগে নতুন মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা করে বিল ব্লেয়ারকে  মন্ত্রীসভায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।   বুধবারের মন্ত্রীসভার সম্প্রসারন এবং পাঁচজন নতুন মন্ত্রী নিয়োগের চেয়েও বি
রোটারি ক্লাব অফ টরন্টো ডেনফোর্থের  অভিষেক অনুষ্ঠান

রোটারি ক্লাব অফ টরন্টো ডেনফোর্থের অভিষেক অনুষ্ঠান

রোটারী জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে মানবসেবার মাধ্যমে নিজেদের ইতিবাচক পার্থক্য সৃষ্টি করে চলেছে । পোলিও নির্মূল রোটারির একটি অন্যতম সফল প্রজেক্ট।   গত ২ জুলাই সোমবার বিকেল ৭.৩০ ঘটিকার সময় টরন্টো সিটির ডেনফোর্থের ৯ ডজের রয়েল কানাডিয়ান লিজিয়ন হলে রোটারি ডিস্ট্রিক্ট-৭০৭০ টরোন্টো এর রোটারি ক্লাব অফ টরন্টো ডেনফোর্থের “৩য় ইনস্টলেশন অনুষ্ঠান" এ প্রধান অতিথির বক্ত্যবে রোটারি ডিস্ট্রিক্ট-৭০৭০, কানাডার গভর্নর রোটারিয়ান মেরি লৌ হ্যারিসন উপরোক্ত কথাগুলো বলেন । ডি.জি. হ্যারিসন আরো বলেন রোটারি ক্লাব অফ টরন্টো ডানফোর্থের শিক্ষা বিষয়ক সেমিনার সমূহ কমিউনিটিতে ইতিবাচক প্রভাব বয়ে আনবে, ডেনফোর্থ ক্লাবের আন্তর্জাতিক প্রজেক্টের মধ্যে বাংলাদেশে মায়ানমারের রোহিঙ্গ্যা শরণার্থীদের জন্য বাস্তবায়িত প্রজেক্টগুলো সহ বন্যার্তদের জন্য ত্রাণ বিতরণ প্রকল্প, বিনামূল্যে চুক্ষু শিবির সহ নানান প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্
ডাগ ফোর্ড অন্টারিওর প্রিমিয়ার হওয়ার অযোগ্য: গ্লোব অ্যান্ড মেইল

ডাগ ফোর্ড অন্টারিওর প্রিমিয়ার হওয়ার অযোগ্য: গ্লোব অ্যান্ড মেইল

ব্যবসায়ী শিল্পপতিদের মুখপত্র হিসেবে সমধিক পরিচিত কানাডার প্রভাবশালী পত্রিকা ‘গ্লোব গ্লোব অ্যান্ড মেইল’ আসন্ন প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে কোনো দলকেই সমর্থন (এন্ডোর্স) করেনি। পত্রিকাটি তার  সম্পাদকীয় নিবন্ধে এলাকা ভিত্তিক যোগ্য এবং নীতিবান প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার জন্য নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। এর আগে অপর প্রভাবশালী পত্রিকা টরন্টো স্টার ডাগ ফোর্ডকে ঠেকাতে এনডিপিকে ভোট দিতে নাগরিকদের পরামর্শ দিয়েছে। গ্লোব অ্যান্ড মেইল বলছে, ডাগ ফোর্ড অন্টারিওর প্রিমিয়ার হওয়ার অযোগ্য। নির্বাচনীঢ প্রচারণায় তার চটকদার কথায় বিভ্রান্ত না হতেও নাগরিকদের পরামর্শ দিয়েছে পত্রিকাটি। গ্লোব অ্যান্ড মেইল বলছে, নাগরিকদের সামনে এখন দুটিই পছন্দ। একদিকে ডাগ ফোর্ডের নেতৃত্বে প্রোগ্রেসিভ কনজারভেটিভ পার্টি অন্রদিকে এন্ড্রিয়া হারওয়াথের নেতৃত্বে এনডিপি। ভিন্ন ভিন্ন কারনে দুটিই অনাকাংখিত পছন্দ। পত্রিকাটির ভাষ্য, ডাগ ফোর