কানেকটিকাট

মালয়েশিয়ায় বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা

মালয়েশিয়ায় বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মালয়েশিয়ায় স্থানীয় সময় রোববার (১৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।   কুয়ালালামপুরে হোটেল সলিলে মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটি এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহ্বায়ক রেজাউল করিম রেজা।   শফিক চৌধুরী ও অ্যাডভোকেট মিনহাজ উদ্দিন মিরানের পরিচালনায় উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন।       সভায় আরও বক্তব্য রাখেন মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ওয়াহিদুর রহমান ওহিদ, রাশেদ বাদল, এ কামাল হোসেন চৌধুরী, হাবিবুর রহমান হাবিব, হুমায়ূন কবির, কবি আলমগীর হোসেন, নূর হোসেন ভূঁইয়া, আব্দুল বাতেন, সোহেল বিন রানা, মো. শহীদুল ইসলাম, মো. আবু হানিফ, এস এ
দুই জমিদারের লোহাগড় মঠ

দুই জমিদারের লোহাগড় মঠ

পাখির কিচির-মিচিরে মুখরিত চারপাশ, মঠের ফাঁক দিয়ে পাখির উঁকি মারার দৃশ্য আনন্দ দেয় দর্শনার্থীদের। বিকেলে দেখা মেলে টিয়া পাখির। রয়েছে শালিক, কবুতরসহ বেশ কয়েক রকমের পাখি। মঠের পাশেই রয়েছে সবুজ ধানের ক্ষেত আর ডাকাতিয়া নদী। চমকপ্রদ নিদর্শন ঘুরে লিখেছেন রিফাত কান্তি সেন-   একসময় জমিদারদের বেশ প্রভাব ছিল। সাধারণ মানুষকে জিম্মি করেই তারা চালিয়েছে রাজত্ব। নিরীহ প্রজাদের শাসন আর শোষণের মাধ্যমে চলতো তাদের রাজতন্ত্র। প্রতাপশালী এসব জমিদারের বিলাসিতার অভাব ছিল না। তেমনই এক বিলাসী জমিদার ছিলেন লোহাগড়ের জমিদার ‘লোহ’ এবং ‘গহড়’ নামের দুই ভাই। জানা যায়, লোহ এবং গহড়ের নামানুসারে এলাকাটির নামকরণ করা হয় লোহাগড়।           ধারণা করা হয়, লোহাগড়ে যেসব মঠ রয়েছে তা কয়েক শতাব্দী আগের। বিশেষ করে পাঁচটি মঠ একসময় থাকলেও এখন সেখানে মাত্র তিনটি মঠ টিকে আছে। সুউচ্চ এসব
ছাত্রলীগের ২৮তম কেন্দ্রীয় কাউন্সিল আজ

ছাত্রলীগের ২৮তম কেন্দ্রীয় কাউন্সিল আজ

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (বিসিএল) এর ২৮তম কেন্দ্রীয় কাউন্সিল আজ রোববার অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে অনুষ্ঠিতব্য এ কাউন্সিলের উদ্বোধন করবেন শহীদ ডা. শামসুল আলম খান মিলনের মাতা সেলিনা আখতার।   প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. অজয় রায়। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জাসদ সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাজমুল হক প্রধান এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও ডাকসুর সাবেক জিএস ডা. মুশতাক হোসেন।   অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতারা। সভাপতিত্ব করবেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের কার্যকরী সভাপতি এহসানুল হাবিব, সঞ্চালনা করবেন কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান আলী সাজু।     কেন্দ্রীয় সংসদের দফতর সম্পাদক গৌতম শীল স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ডাকসুসহ
কোথায় পাবেন ক্যান্সারের টিকা?

কোথায় পাবেন ক্যান্সারের টিকা?

মরণব্যাধি ক্যান্সার সবার আতঙ্ক। ক্যান্সার আক্রান্ত ব্যক্তির জন্য কেমোথেরাপি কিংবা রেডিয়েশন পদ্ধতি অনেক কষ্টকর। তবে আশার কথা হচ্ছে- এবার ক্যান্সার নির্মূল করতে আবিষ্কার করা হয়েছে টিকা। যুগান্তকারী এ সাফল্য পেয়েছেন কিউবার বিজ্ঞানীরা।   জানা যায়, কিউবার কয়েকজন বিজ্ঞানী এই টিকা আবিষ্কার করেছেন। যা চার হাজার মানুষের ওপর প্রয়োগ করা হয়েছে। ফলে তারা ক্যান্সারকে জয় করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছেন। এমনই দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা।       বিজ্ঞানীরা জানান, মূলত ব্রেস্ট ক্যান্সার, ইউটেরাস ক্যান্সার, প্রস্টেট ক্যান্সার এ টিকার মাধ্যমে দ্রুত সেরে উঠবে। তবে ক্যান্সারের প্রথম ধাপে এ টিকা বিশেষ কার্যকর। কিন্তু এ টিকার দাম কত? বিজ্ঞানীরা জানান, এ টিকা মধ্যবিত্তের সাধ্যের মধ্যেই থাকবে।   কিউবায় আবিষ্কৃত এ টিকা সে দেশের মানুষের মধ্যে বিনামূল্যে দেওয়া হয়। কিউবার মেডি