খুলনা বিভাগ

পাকিস্তান বদলায়নি, খাছিলতও বদলায়নি, তারা এখনও সন্ত্রাস লালন এবং রফতানি করছে

পাকিস্তান বদলায়নি, খাছিলতও বদলায়নি, তারা এখনও সন্ত্রাস লালন এবং রফতানি করছে

জাহাঙ্গীর হোসেন জুয়েল কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : একাত্তরের যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলীর মৃত্যুদন্ড কার্যকরে পাকিস্তানের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ায় তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন, প্রকাশ্য আদালতে আইনের বিধান অনুযায়ী আত্মস্বীকৃত চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের কাজ হাতে নেয়া হয়েছিল। সারাবিশ্ব এই ব্যাপারটিকে অভিনন্দন জানিয়েছে। শুধুমাত্র পাকিস্তান এবং কতিপয় রাষ্ট্র এব্যাপারে বিভিন্ন রকম মন্তব্য ও বিবৃতি দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীন ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করেছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টার সময় কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেরার গোবিন্দপুর তাঁতিবন্ধ সড়ক নির্মাণ কাজের উদ্ধোধন শেষে তথ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, পাকিস্তানকে পৃথিবীর গণতন্ত্রের ক্লাবে থাকতে হলে সন্ত্রাস লালন এবং রফতানির বদ অভ্যাস পরিহার করতে হবে। যুদ্ধাপরাধী মীর কাশিম আলীর পক্ষে দরদ দেখিয়ে পাকিস্তান আবা
কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে : ৬

কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে : ৬

শামসুল আলম স্বপন : শুক্র-শনি দু’দিন সরকারি ছুটি। তাই কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতালের দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কোন সংবাদ প্রকাশিত না হওয়ায় দুর্নীতির বরপুত্র ওয়ার্ডমাষ্টার শরিফুল ইসলাম আষ্ফালন করে বলেছেন আমার বিরুদ্ধে আর কোন নিউজ হবে না। আমার একদিনের আয়ের পয়সা দিলেই সাংবাদিকের মুখ বন্ধ হয়ে যাবে। কুষ্টিয়ার সাংবাদিকদের আমি চিনিনা। কার কত দৌড় আমার জানা আছে। কলিকদের সামনে এমন কথা বললেও তার গলায় তেমন তেজ ছিলনা বলে জানান তারই এক কলিক। অনুসন্ধান করে জানাগেছে, আমএমও’র আর্শীবাদেই ওয়ার্ডমাষ্টার শরিফুল কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতালে দুর্নীতি শিকড় গেড়ে বসেছে। ৭০ জন “ফ্রি-¯্রাম্পুল” (খালা) এর কাছ থেকে প্রতিদিন কমপক্ষে ৫ হাজার টাকা ঢোকে তার পকেটে । এরপর আছে পরিষ্কার-পরিচন্নতার জন্য ফেনাইল চুরির পয়সা। সাবান-গজ-ফিতা কোনদিনই কোন রোগী ফ্রি পায় না । ওষুধসহ এসব কিনে দিতে হয় রোগীদের। বছরের প্রথমে প্রথম চালানে রোগীদ
কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে : ৫

কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে : ৫

॥ শামসুল আলম স্বপন ॥ কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল দুর্নীতি আর অনিয়মে ক্ষত বিক্ষত। এমন কোন বিভাগ নেই যেখানে অনিয়ম -দুর্নীতি ছোঁয়া লাগেনি। আধুনিক মানের এই হাসপাতালে ৪টি ইসিজি, ২টি এক্স-রে, ২টি আল্টাসনো মেশিন রয়েছে। কিন্তু সব মেশিন গুলো কৃত্রিম অচল দেখিয়ে বাইরে থেকে রোগীদের সব টেষ্ট করিয়ে আনতে বাধ্য করা হয় । যে চিকিৎসক রোগীর প্রেসক্রিপসনে রক্ত,কফ,প্রসাব,পায়খানা সহ অন্যান্য টেষ্ট লিখে দেন সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের কাছে পৌছে যায় কমিশনে টাকা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন যে খানে যত দুর্নীতি হোক তার সব ভাগই পান আরএমও । আর এসব অবৈধ অর্থের যোগানদাতা হলেন অনিয়ম-দুর্নীতির নাটেরগুরু ওয়ার্ডমাষ্টার শরিফুল ইসলাম । চুয়াডাঙ্গার মুন্সীগঞ্জে বাড়ি তার । নিজের মুখেই বললেন ১০ বছর ধরে তিনি আছেন এই হাসপাতালে। আরএমওর’র অতিকাছের মানুষ তিনি । আরএমও’র সুখ-দুখের সাথী হিসেবে তিনি অতি বিশ্বস্থ । তিনি ভুল শুধরে দিয়ে বললেন, হাসপাতালে বর্
সরকারি চাকরি করেন বলে বেতন আর কাজ করেন বলে ঘুষ নেবেন তা হবে না : দুদক কমিশনার

সরকারি চাকরি করেন বলে বেতন আর কাজ করেন বলে ঘুষ নেবেন তা হবে না : দুদক কমিশনার

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার এ,এফ,এম আমিনুল ইসলাম বলেছেন,“ সরকারি চাকরি করেন বলে বেতন পান আর কাজ করবেন বলে ঘুষ নেবেন তা হবে না । সকলকে সততার সাথে কাজ করতে হবে। জনগণকে দিতে হবে সর্বোচ্চ সেবা। কোন গাফেলতি বরদাস্ত করা হবে না। যার চাকরি করার ইচ্ছে নেই তিনি চাকরি ছেড়ে বাড়ি চলে যাবেন । দুর্নীতি করলে দুদকই বাড়ি পাঠানোর ব্যবস্থা করবে । গতকাল ৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সরকারি কর্মকর্তা,জনপ্রতিনিধি সাংবাদিক ও সূধীজনের সাথে মত বিনিময় কালে তিনি এ কথাগুলো বলেন। কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় দুদক কমিশনার কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল ও জেলার চিকিৎসা ব্যবস্থা সম্পর্কে বলেন,কোন অনিয়ম অব্যবস্থা দুর্নীতি ক্ষমা করা হবে না। তিনি সিভিল সার্জনকে নিদের্শ দেন যে চিকিৎসক ডিউটিতে গাফেলতি করবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে দুদককে
দৌলতদিয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু

দৌলতদিয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:(০৫-০৯-১৬)ঃ চুয়াডাঙ্গা শহরতলীর দৌলতদিয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের খাবার খাইয়ে মিড ডে মিলের উদ্ধোধন করেন প্রধান অতিথি সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সাইদুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু হাসান,সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার নাহিদ আক্তার ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি স্থানীয় ইউপি সদস্য হাবলুর রহমান। প্রধান শিক্ষক রেজাউল কবীরের সার্বিক তত্তাবধানে সহকারী শিক্ষকদের সহযোগীতার সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে শিক্ষার্থীদের দুপুরে খেচুড়ী ভাত খেতে দেওয়া হয়। হাজী মোঃ নাজমুল হক (ফাল্গুনী সাটিং ও সুটিং নিউ মার্কেট) ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকের আর্থিক সহযোগীতায় মিড ডে মিলের আয়োজন করা হয়।
চুয়াডাঙ্গা গুটি ইউরিয়া প্রয়োগ প্রযুক্তি উপলক্ষে শস্য কর্তন মাঠ দিবস পালিত

চুয়াডাঙ্গা গুটি ইউরিয়া প্রয়োগ প্রযুক্তি উপলক্ষে শস্য কর্তন মাঠ দিবস পালিত

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:(০৫-০৯-১৬)ঃ ঃ ফলন বৃদ্ধি এবং সারের অপচয় কমিয়ে কৃষকের আয় বাড়ানোর উপর গুটি ইউরিয়া প্রয়োগ প্রযুক্তি ও শস্য কর্তন উপলক্ষে মাঠ দিবস পালিত হয়েছে। রবিবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার ফুলবগাদি গ্রামের ঈদগা মাঠে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও আইএফডিসি আপি প্রকল্পের যৌথ উদ্যেগে এ কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য নাসির উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আলমডাঙ্গা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ তাপস কুমার। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রশিক্ষক আইএফডিসি কৃষিবিদ আল মোবাশ্বের হোসেন, আইএফডিসির ফিল্ড মনিটরিং অফিসার জহুরুল হক, মোস্তাফিজুর রহমান ও আওয়ামীলীগ নেতা হাজী আবু তাহের। ফিড দ্য ফিউচার বাংলাদেশ কৃষি উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন ত্বরান্বিতকরণ কর্মকান্ড এনপিকে গুটি প্রয়োগ প্রযুক্তি বিষয়ক মাঠ দিবসে শতাধিক কৃষাণ ও কৃষাণী অংশ গ্রহন করে। সাধারণ ইউরিয়া পরিবর্তে গুটি ইউ
মেহেরপুরে রঙিন রূপবান শীম চাষ

মেহেরপুরে রঙিন রূপবান শীম চাষ

তোজাম্মেল আযম, মেহেরপুর প্রতনিধি:ি গাছ, গাছের পাতা সবুজ, ফুল ও ফল রঙিন। স্থানীয়ভাবে এটি রঙির রূপবান নামের শিম। অনেকেই অল্প পুঁজিতে অল্প জায়গায় বাণিজ্যিক ভিত্তিতে এই রঙিন শিমচাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে। আর এই শীমের নাম রূপবান শীম। জেলার মাঠে মাঠে এই রূপবান রঙিন শীমের আবাদ বেড়েই চলেছে। চোখ জুড়ানো এই রঙিন শীম সহ বিভিন্ন জাতের শিমের সমারোহ চোখে পড়ে মেহেরপুরের মাঠে মাঠে ও বিভিন্ন বাড়ির আঙ্গিনায়। স্থানীয় বাজারের চাহিদা মিটিয়ে সরবরাহ করা হচ্ছে অন্যান্য জেলায়। সরেজমিনে মেহেরপুরের আমঝুপি গ্রামের মাঠে দেখা গেছেÑ রঙিন শীম গাছ। ছোট-বড় মেঠোপথ ও বাড়ির আঙিনায় লাগানো হয়েছে রঙিন শীম। শীমের ফুল ও ফলন হাসছে পুরো এলাকা। হাসছেন কৃষকেরা। শীমবাগান থেকে শমি সংগ্রহর সময় কথা হয় আমঝুপি গ্রামের মোনাজাত আলীর সাথে। পঞ্চাষার্ধ বয়সের মোনাজাত জানানÑ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে এই শিমের বীজ সংগ্রহ করেন
কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে-৪

কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে-৪

শামসুল আলম স্বপন,কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: ‘ফ্রি স্যাম্পুল” শব্দটা চিকিৎসা মহলে বেশ পরিচিত। বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানী তাদের নতুন প্রোডাক্ট বেশী কাটতির জন্য রিপ্রেজেন্টিভের মাধ্যমে চিকিৎসকদের জন্য বেশকিছু সামগ্রী ( যেমন প্যাড,কলম,ডেক্সক্যালেন্ডার,ওষুধ,সাবান,রুমস্প্রে,ডাইয়েরী,সেন্ট,বডি স্প্রে ) ইত্যাদী যা ফ্রি দেন তাকে ঘুষের পরিবর্তে “ফ্রি স্যাম্পুল” বলা হয়। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো কুষ্টিয়া ২৫০ হাসপাতালের রোগীদের আতংকের এক নাম “ফ্রি-স্যাম্পুল” ! এদের পদবী কেন “ ফ্রি-স্যাম্পুল ” তা জানা যায়নি। রোগীর অভিভাবকদের অভিযোগ রোগী হাসপাতাল ছাড়ার সময় হাজির হয় এরা। দাবি করে টাকা । তাদের সহযোগিতা করে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে উপস্থিত নার্সরা। হাসপাতাল থেকে যতই ছাড়পত্র পাক রোগীবার করতে হলে এদের টাকা না দিয়ে কেউ বের হতে পারবে না। কিসের জন্য টাকা দিতে হবে প্রশ্ন করতেই তারা উত্তর দেয় আমরা পেয়ে থাকি। একশ,দুই,তিনশ ,পাঁচশ যার
ভুলে ভুলে বিএনপি এখন দিশেহারা পথিক : মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

ভুলে ভুলে বিএনপি এখন দিশেহারা পথিক : মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

  মাগুরা প্রতিনিধি : সড়ক, পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমরা এখন বিএনপিকে নিয়ে বিচলিত নই, বিচলিত তাদের উস্কে দেয়া মদদপুষ্ট উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে নিয়ে।শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে উগ্র সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্রের হাত থেকে রক্ষা করাই এখন আমাদের প্রধান কাজ। বিএনপির আন্দোলনের মরা গাঙে কোনদিন আর জোয়ার আসবে না। ভুলের চোরাবালিতে ভরে গেছে তাদের রাজনীতির সব কিছু। ভুলে ভুলে বিএনপি এখন দিশেহারা পথিক। তারা নিজেরাই এখন নিজেদের শত্রু। বাইরের শত্রুর প্রয়োজন নেই।’ মন্ত্রী আজ শুক্রবার দুপুর ১২টায় মাগুরা শহরের নোমানী ময়দানে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ বিরোধী এক মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি তানজেল হোসেন খানের সভাপতিত্বে সমাবেশ বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাম্মেল হক, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এ্যাড. বীরেন শিকদার, মাগুরা ১ আ
কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে -৩

কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতাল যেভাবে চলছে -৩

॥ শামসুল আলম স্বপন ॥ কুষ্টিয়ার সাবেক জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন কুষ্টিয়া ২৫০ বেড হাসপাতা কে দালাল মুক্ত করার জন্য বেশ কয়েকবার পদক্ষেপ নিয়েছিলেন । ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে কয়েক জন দালালকে জেলও দিয়েছিলেন । কিন্তু আজও দালালমুক্ত হয়নি হাসপাতাল । বরং বর্তমানে ৭ দালালের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে রোগীর অভিভাবকরা। আরএমও’র জ্ঞাতসারে দালালদের রোগী ধরার ফাঁদে পড়ে সর্বশান্ত হচ্ছে তারা। খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, মজমপুরের সোহাগ,পূর্বমজমপুরের সোহেল,টিএন্ডটি কলোনীর পারভেজ,হাউজিংএর রাসেল,চালু বর্ডারের হুমায়ূন ও লাহিনীর বরকত প্রতিদিন কাক ডাকা ভোরে ছুটে আসে হাসপাতাল চত্বরে । দাঁড়িয়ে থাকা রোগীর লাইনের কাছে যেয়ে টার্গেট করে কোন রোগীবেশী অসহায়। তাদের টার্গেট মাফিক রোগীর অভিভাবকের কাছে গিয়ে তাদের উপকারের কথা বলে আস্থা অর্জন করে। এরপর তারা শুরু করে গলা কাটা ব্যবসা । পরিচিত চিকিৎসকের কাছে রোগীকে নিয়ে যেয়ে প্যাথলজীসহ