গ্রেট বৃটেন

ব্রিটেনের ট্রাম্প-কূটনীতিতে ‘গোপন অস্ত্র’ হচ্ছেন রানি

ব্রিটেনের ট্রাম্প-কূটনীতিতে ‘গোপন অস্ত্র’ হচ্ছেন রানি

আহমেদ বাবু :ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে শক্তিশালী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক চাইছে যুক্তরাজ্যের থেরেসা মে’র বর্তমান সরকার। আর সেই সম্পর্ক প্রতিষ্ঠায় তারা ব্রিটেনের রানিকে ব্যবহার করতে চাইছে। সানডে টাইমস-এর এক খবরে এসব কথা উঠে এসেছে।   সানডে টাইমস-এর খবরে বলা হয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের নৈকট্য পেতে রানিকে ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে  থেরেসা মে’র সরকার। সানডে টাইমস জানিয়েছে, আসছে বছরের জুন অথবা জুলাই মাসে রানির আমন্ত্রণ পেতে পারেন ট্রাম্প।   উল্লেখ্য, ব্রেক্সিট প্রশ্নে ইউরোপীয় উইনিয়নের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতির পর এবার মার্কিন প্রশাসনের সঙ্গে দ্রিবপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদার করার চেষ্টা করছে ব্রিটেন। তারই অংশ হিসেবে এই প্রচেষ্টা নেওয়া হয়েছে।
ব্রেক্সিট ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টের বিচারকের পদত্যাগ দাবি

ব্রেক্সিট ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টের বিচারকের পদত্যাগ দাবি

হাবিবুর রাহমান হাবিব  :ব্রেক্সিট বিরোধী স্ত্রীর টুইটকে কেন্দ্র করে বৃটিশ সুপ্রিম কোর্টের সবচেয়ে সিনিয়র বিচারকের পদত্যাগ দাবি করা হয়েছে। তিনি হলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রেসিডেন্ট লর্ড নুবারর্গার অব অ্যাবোটসবারি। তার স্ত্রী লেডি নুবারর্গারের ওই টুইটের কারণে তার পদত্যাগ দাবি করেছেন ব্রেক্সিটপন্থিরা। উল্লেখ্য, এ মাসেই পার্লামেন্টের অনুমোদন ছাড়া ব্রেক্সিট কার্যক্রম শুরুর বিরুদ্ধে রায় দেয় বৃটিশ হাই কোর্ট। সরকার ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে। এর শুনানি শুরু হওয়ার কথা রয়েছে ৫ই ডিসেম্বর। যে আদালতে শুনানি হবে তার বিচারক হলেন লর্ড নুবারর্গার। তিনি তার স্ত্রী দ্বারা প্রভাবিত হয়ে থাকতে পারেন এমন অভিযোগে ওই আদালত থেকে তার পদত্যাগ দাবি করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট। এতে বলা হয়, ব্রেক্সিটপন্থি এমপিরা দাবি করছেন নিজের স্ত্রীর দৃষ্টিভঙ্গির কাছে তিনি পরাস্ত হতে পারেন। তাই এম
বাকিংহাম প্যালেস পুন:সংস্কারকে কেন্দ্র করে ব্রিটেনে রাজতন্ত্র বিলোপের দাবি

বাকিংহাম প্যালেস পুন:সংস্কারকে কেন্দ্র করে ব্রিটেনে রাজতন্ত্র বিলোপের দাবি

আহমেদ বাবু :সরকারি খরচে ৩০০ বছরের পুরোনো বাকিংহাম প্যালেস পুন:সংস্কারের ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট। এরপরপরই রাজপরিবারের আর্থিক অপব্যয় এবং করদাতাদের টাকায় রাজপ্রাসাদ পুন:সংস্কারের বিরুদ্ধে ব্রিটেনে ক্ষোভ বাড়ছে, এমনকি রাজতন্ত্র বিলোপেরও দাবি ওঠেছে। বর্তমানে ব্রিটেনের রাণীর ব্যক্তিগত সম্পদ আছে ৩০০ মিলিয়ন পাউন্ড, আর রাজকীয় ভূমির মূল্যমান ৭ বিলিয়ন পাউন্ডেরও বেশি। রাজপরিবার প্রতিবছর শতশত মিলিয়ন পাউন্ড করদাতাদের কাছ থেকে পেয়ে থাকেন।   শুক্রবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বিবৃতিতে বলা হয়, ভেঙ্গে পড়া এবং আগুন লাগাসহ ভবনটি উচ্চ ঝুঁকিতে আছে। ব্রিটেনের ঐতিহ্য, সংস্কৃতির সাথে ওপ্রোতভাবে জড়িত এই ভবনটি ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য ধরে রাখতে আমাদের এর আর্কিটেকচার এবং ইতিহাস সংরক্ষণ করতে হবে। আর প্যালেসটি দেখতে প্রতি গ্রীষ্মকালে অর্ধ-মিলিয়নেরও বেশি মানুষ আসে বলে সরকার এটি সংস্কারে অর্থ
ব্রেক্সিটের পক্ষে দৃঢ় প্রত্যয় তেরেসা মে’র

ব্রেক্সিটের পক্ষে দৃঢ় প্রত্যয় তেরেসা মে’র

হাবিবুর রাহমান হাবিব  :বিরোধীদের সমালোচনাকে উড়িয়ে দিলেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। বিরোধীরা অভিযোগ করেছেন, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নে সরকারের কোনো পরিকল্পনা নেই। তার জবাব দিলেন তেরেসা মে। তিনি জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেলকে পরিষ্কার করে এ বিষয়ে জানিয়ে দিয়েছেন। বলেছেন, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নে প্রস্তুত তার সরকার। ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বৃটেনের বেরিয়ে যাওয়া পূর্ব নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই ঘটবে। আগামী বছর মার্চের শেষ নাগাদ এ বিষয়ে আইনগত প্রক্রিয়া শুরু হবে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। দ্বিপক্ষীয় এক বৈঠকে বার্লিনে অ্যাঙ্গেলা মারকেলের সঙ্গে তার বৈঠক হওয়ার কথা। তার আগেই তিনি যৌথ সংবাদ সম্মেলনে জার্মান চ্যান্সেলরকে বললেন, ব্রেুক্সিট বাস্তবায়নের কাজ এগিয়ে চলছে। ২০১৭ সালের মার্চের আগে বা মার্চ মাসের শেষ নাগাড় আমরা লিসবন চুক্তির ৫০ নম্বর অনুচ্ছেদ সক্রিয় করার জন্য প্রস্তুত। উ
লন্ডনের জীবনমান নিয়ে হত্যাশ বিদেশীরা

লন্ডনের জীবনমান নিয়ে হত্যাশ বিদেশীরা

হাবিবুর রাহমান হাবিব  :জীবনমান, নিরাপত্তা ও ব্যক্তিগত শান্তির দিক বিবেচনায় লন্ডনকে বিশ্বের অনেক বড় শহরের তুলনায় অন্যতম নিকৃষ্ট শহর বলে মনে করেন সেখানে বসবাসরত প্রবাসীরা। ইন্টারনেশনস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের এক জরিপে এ তথ্য পাওয়া গেছে। ‘ইন্টারনেশনস এক্সপ্যাট ইনসাইডার ২০১৬’—শিরোনামের ওই জরিপে লন্ডনে বসবাসকারী মোট ১৪ হাজার বিদেশির অভিমত নেওয়া হয়েছে। জরিপে দেখা গেছে, যুক্তরাজ্যের রাজধানীতে বসবাসরত প্রবাসীরা সেখানকার জীবনমান নিয়ে গভীরভাবে হতাশ। জরিপে বসবাসের জন্য সবচেয়ে উপযোগী বিশ্বের ৩৫টি শহরের নাম দেওয়া হয়। জরিপের ফল অনুযায়ী, সেখানে লন্ডনের অবস্থান ২৭তম। এই ৩৫ শহরের মধ্যে লন্ডনের জীবনযাপনের মান ২৪তম, অবকাশযাপনের সুযোগ ২৬তম, ব্যক্তিজীবনের সুখ ৩৩তম, ভ্রমণ ও পরিবহন সুবিধা ১৮তম, শরীর-স্বাস্থ্য ভালো থাকা ২৪তম এবং নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা ২৪তম।   তবে জরিপের ফল বলছে, এত সব ন
জার্মানিতে নিষিদ্ধ চরমপন্থী গ্রুপ সক্রিয় বৃটেনে

জার্মানিতে নিষিদ্ধ চরমপন্থী গ্রুপ সক্রিয় বৃটেনে

আহমেদ বাবু :জার্মানিতে ১৪০ জনেরও বেশি ব্যাক্তিকে নিজেদের ‘সহিংস’ আদর্শ দ্বারা অণুপ্রানিত করে আইএস যোদ্ধায় পরিণত করার দায়ে নিষিদ্ধ একটি চরমপন্থী গ্রুপের সদস্যরা যুক্তরাজ্যে সক্রিয় হয়ে উঠছে। বৃটেনের বড় বড় শহরে অনুসারী সংগ্রহে কাজ করছে এ গ্রুপটির সদস্যরা। এ খবর দিয়েছে দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট। খবরে বলা হয়, এ সপ্তাহেই দাই ওয়াহরে রিলিজিয়ন (ডিডব্লিউআর) নামে ওই সংগঠনটির সঙ্গে জড়িত মসজিদ, অফিস ও বাড়িঘরে প্রায় ২০০টি অভিযান চালায় জার্মান পুলিশ। ইংরেজিতে সংগঠনটির নাম ‘ট্রু রিলিজিয়ন’ বা সত্যিকার ধর্ম। কিন্তু বৃটেনে এ গ্রপটির কর্মকান্ড রুখার ক্ষমতা নেই নিরাপত্তা বাহিনীর। বুধবার ডিডব্লিউআর’কে মঙ্গলবার নিষিদ্ধ করে জার্মান সরকার। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, এ গ্রুপের সদস্যরা দেশে বিদ্বেষ ও সংবিধান-বিরোধী বার্তা ছড়াচ্ছে। কুরআন বিতরণ কর্মসূচির আড়ালে তারা তরুণদের ষড়যন্ত্র তত্ব দিয়ে উগ্র
ব্রেক্সিট: নিজ দলেই বিদ্রোহের মুখে তেরেসা মে!

ব্রেক্সিট: নিজ দলেই বিদ্রোহের মুখে তেরেসা মে!

হাবিবুর রাহমান হাবিব  :ব্রেক্সিট নিয়ে নিজের দলেই বিদ্রোহের মুখে পড়ছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। পার্লামেন্টের হাউজ অব কমন্সে লিসবন চুক্তির ৫০ নম্বর অনুচ্ছেদ ভোটে দেয়া হলে ক্ষমতাসীন কনজার্ভেটিভ দলের বেশ কিছু সংখ্যক এমপি এর বিরুদ্ধে ভোট দেবেন। এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন লিবারেল ডেমোক্রেট দলের নেতা টিম ফ্যারন। এমনিতেই হাইকোর্টের রায়ে বেশ বেকায়দায় রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী তেরেসা। অনুচ্ছেদ ৫০ সক্রিয় করার আগে আদালত তা পার্লামেন্টে ভোটে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে। ফলে বৃটিশ মিডিয়ার মতে, ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া এর মধ্য দিয়ে অচলাবস্থায় পড়েছে। আদালতের নির্দেশের বিরুদ্ধে সরকার এরই মধ্যে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেছে। ৫ই ডিসেম্বর এর শুনানি শুরু হচ্ছে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের ওপর এখন নির্ভর করছে পরবর্তী করণীয়। সুপ্রিম কোর্টে যদি হাই কোর্টের রায়কেই বহাল রাখে তাহলে অবশ্যই তেরেসা মে সরকারকে অনুচ্ছেদ ৫০ সক্রিয
যুক্তরাজ্যে বেকারত্বের সংখ্যা গত ৩মাসে বেড়ে গিয়ে ১.৬ মিলিয়নে দাঁড়িয়েছে

যুক্তরাজ্যে বেকারত্বের সংখ্যা গত ৩মাসে বেড়ে গিয়ে ১.৬ মিলিয়নে দাঁড়িয়েছে

আহমেদ বাবু :যুক্তরাজ্যে কর্মহীনতা বা বেকার সংখ্যা ৩ মাসে বেড়ে গিয়ে ৩৭,০০০ থেকে ১.৬ মিলিয়নে পৌঁছেছে অফিস অব দ্য ন্যাশনল স্ট্যাটিস্টিক্স (ওএনএস) জানিয়েছে। এই বেকারত্বের হার ৪.৮% এবং একই সময়ে কর্মসস্থানের সংখ্যা ৪৯,০০০তে উন্নীত হয়। গড় সাপ্তাহিক উপার্জন এ বছরের অক্টোবর মাসে বোনাসসহ ২.৩% হারে বেড়েছে এবং বোনাস ছাড়া সাপ্তাহিক আয় বৃদ্ধির হার ২.৪%। ব্যাংক অব ইংল্যান্ড ভবিষ্যতবাণী উচ্চারণ করে বলেছে বেকারত্ব ব্রেক্সিট-এর অনিশ্চয়তা সত্ত্বেও বেড়ে যাবে। মোট কর্মসংস্থানে ব্যাপৃত থাকা লোকসংখ্যা রেকর্ড সর্বোচ্চ ৩১.৮ মিলিয়ন, ওএনএস এক পরিসংখ্যানে জানিয়েছে। তবে বিশ্লেষকরা দেখিয়েছেন যে, কর্মসংস্থান বৃদ্ধির গতি হ্রাস পাচ্ছে এবং কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার যে গণভোট হয়েছে তা এ পরিস্থিতির জন্য অনেকাংশে দায়ী। ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় গণভো
গোপন তথ্য ফাঁস: ব্রেক্সিট নিয়ে পরিকল্পনা নেই যুক্তরাজ্যের!

গোপন তথ্য ফাঁস: ব্রেক্সিট নিয়ে পরিকল্পনা নেই যুক্তরাজ্যের!

আহমেদ বাবু :ব্রেক্সিট নিয়ে থেরেসা মে সরকারের জন্য তৈরি ফাঁস হওয়া একটি মেমোতে বলা হয়েছে। ব্রেক্সিট প্রশ্নে এখনো সরকার সিদ্ধান্তে পৌছাতে পারেনি। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়া তথা ব্রেক্সিটের পক্ষে গত ২৩ জুন গণভোটে ব্রিটিশ জনগণ রায় দিলেও তা বাস্তবায়নে এখনো কোনো সার্বিক পরিকল্পনা নেই দেশটির সরকারের। তা ছাড়া এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মের মন্ত্রিসভায় বিভক্তির কারণে বিষয়টি নিয়ে পরিষ্কার সমঝোতায় পৌঁছাতে আরও ছয় মাস সময় লেগে যেতে পারে।   ৭ নভেম্বরের তারিখ-সংবলিত মেমোটি হাতে পেয়েছে দ্য টাইমস সংবাদপত্র। এটি তৈরি করেছে প্রধানমন্ত্রী মে ও তাঁর মন্ত্রিসভার সমর্থক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ডেলয়েট। মেমোতে বলা হয়, ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার প্রচারণার অন্যতম সমর্থক প্রধানমন্ত্রী মে ব্রেক্সিট নিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করছেন
‘নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ব্রিটেন’

‘নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ব্রিটেন’

হাবিবুর রাহমান হাবিব  :বৃটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেইক বলেছেন বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বৃটেন। এটি একান্তই বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এনিয়ে বৃটেন বাংলাদেশকে কোনো ধরনের উপদেশ বা নির্দেশনা দেবে না। গতকাল কূটনৈতিক সংবাদদাতাদের সংগঠন (ডিক্যাব) এর সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বৃটিশ রাষ্ট্রদূত অনুষ্ঠানে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের নানা দিক, বৃটেনের ভিসা পদ্ধতি, কার্গো পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারসহ দুই দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন। এনিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরও দেন তিনি। ডিক্যাবের সভাপতি আঙ্গুর নাহার মন্টির সভাপতিত্ব ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পান্থ রহমান। বারিধারা বৃটিশ হাইকমিশন কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে হাইকমিশনারের কাছে প্রশ্ন রাখা হয় বৃটেনের ভিসা সেন্টার দিল্লি থে