মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় প্রবাসী বাঙালির বর্ষবরণ

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় প্রবাসী বাঙালির বর্ষবরণ

বাঙালির হাজার বছরের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে লালিত বর্ষবরণের বর্ণাঢ্য উৎসবে মুখরিত হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের প্রবাসী বাংলাদেশিরা।   স্থানীয় সময় রোববার পয়লা বৈশাখের দিনই আটলান্টার বার্কমার হাই স্কুল মিলনায়তনে সন্ধ্যে ৭টা থেকে মধ্যরাত অবধি অনুষ্ঠিত এই জাঁকজমকপূর্ণ উৎসবের আয়োজক ছিল বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন অব জর্জিয়া।   বাঙালির প্রিয় লাল আর সাদা মেশানো শাড়ি আর খোঁপায় ফুল গুঁজে ললনাসহ বাঙালিয়ানা সাজে সজ্জিত অগণিত পুরুষ আর শিশু-কিশোরের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে ঢাক-ঢোল, খোল করতাল, বাঁশির এক অবিমিশ্র সুরের মূর্ছনায় দৃষ্টিনন্দন শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে বাংলা ১৪২৬ সনকে বরণ করে নেয়া হয় ওই আয়োজনে।   একই সাথে আয়োজিত বৈশাখী মেলায় পান্তা, ইলিশ, শুটকি, ঝাল-মুড়ি, পিঠাসহ স্বদেশের মুখরোচক নানা খাবারের স্টল এবং শাড়ি-চুড়ি, গহনা, সালোয়ার কামিজ, পাঞ্জাবি ও স্বদেশের রকমারি পণ্
যুক্তরাষ্ট্রে এগোচ্ছে বাঙালি সংস্কৃতি

যুক্তরাষ্ট্রে এগোচ্ছে বাঙালি সংস্কৃতি

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ কমিউনিটি ক্রমবর্ধমান। এ কমিউনিটির মানুষ ধীরে ধীরে জায়গা করে নিচ্ছে দেশটির মূলধারার রাজনীতিতে। বাংলাদেশের সংস্কৃতিও দেশটিতে এগোচ্ছে। বাংলাদেশিদের অনুষ্ঠানগুলোতে দেশটির মূলধারার রাজনীতিকরা আসছেন। বাঙালি সংস্কৃতির সঙ্গে তারা মিশে যাচ্ছেন। বাঙালি সংস্কৃতি নিয়ে তারা গর্ব করতে ভুলছেন না। বাংলাদেশিরাও বিষয়টি ভীষণভাবে উপভোগ করছেন। এক সময় যেখানে বাংলা চর্চা করার মানুষ খুঁজে পাওয়া কষ্ট হত সেখানে এখন সমানে লেখালেখি করছেন প্রবাসীরা। আর বাঙালি সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে নিউইয়র্কের বাংলা গণমাধ্যমগুলো।   স্থানীয় সময় সোমবার রাতে আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেস ক্লাব আয়োজিত বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে বিশিষ্টজনরা এসব কথা বলেন।   জ্যাকসন হাইটসের বাংলাদেশি অধ্যুষিত হাটবাজার পার্টি হলে এ অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে নিউইয়র্কের বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদক, সে দেশের
যুক্তরাষ্ট্রে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেনকে সংবর্ধনা দিলেন প্রবাসীরা

যুক্তরাষ্ট্রে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেনকে সংবর্ধনা দিলেন প্রবাসীরা

যুক্তরাষ্ট্র সরকারের আমন্ত্রণে দেশটিতে অবস্থানরত পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে এ মোমেনকে সংবর্ধনা দিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।   ৩ দিনের সফরে রোববার নিউ ইয়র্কে অবতরণের পরই প্রবাসীদের শুভেচ্ছা পান তিনি, জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরেও প্রবাসীদের সমাগম ঘটে।   স্থানীয় সময় রোববার নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে বেলোজিনো পার্টি হলে সংবর্ধনা সমাবেশের আয়োজন করে ‘বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখা’।   সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশনের সভাপতি খন্দকার মনসুর এবং স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের মিয়া।   সাংবাদিক-মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার ও ‘চট্টগ্রাম সমিতির’ সাধারণ সম্পাদক আশ্রাব আলী খান লিটনের সঞ্চালনায় শুরুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ক্রেস্ট দেয় সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম ও বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন।   বাংলাদেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্
অধিকার থাকলেও মুলারের রিপোর্ট পড়িনি: ট্রাম্প

অধিকার থাকলেও মুলারের রিপোর্ট পড়িনি: ট্রাম্প

  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে যোগসাজস নিয়ে করা রবার্ট মুলারের তদন্ত রিপোর্ট তিনি পড়ে দেখেননি। যদিও পড়ে দেখার সম্পূর্ণ অধিকার তার আছে। তবে সারমর্ম জানেন উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে আমার কোনো যোগসাজস নেই। খবর রয়টার্সের।   গতকাল শনিবার এক টুইটার বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন। এদিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আইনজীবী উইলিয়াম কনসোভয় এক বিবৃতিতে বলেছেন, নিজের আয়কর রিটার্ন গোপন রাখার অধিকার ডোনাল্ড ট্রাম্পের আছে। তাই এটি প্রকাশ করা হবে না।   গত বৃহস্পতিবার কংগ্রেসনাল ট্যাক্স কমিটি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ছয় বছরের আয়কর রিটার্ন দেখানোর অনুরোধ জানানোর পর আইনজীবীর এই বিবৃতি আসলো।
ইউরোপের তরুণদের প্রশংসায় বারাক ওবামা

ইউরোপের তরুণদের প্রশংসায় বারাক ওবামা

জলবায়ুকে সুরক্ষিত করার জন্য ইউরোপের তরুণদের আন্দোলনের প্রশংসা করেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। বৃহস্পতিবার জার্মানির কোলন শহরের ল্যাংক্সেস এরেনাতে প্রায় ১৪ হাজার দর্শকের সামনে ইউরোপীয় তরুণদের প্রশংসা করেন তিনি। কোলনের ওয়ার্ল্ড লিডারশিপ সামিটে অংশ নিয়ে জলবায়ুসহ সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া বিশ্বের নানা বিষয় নিয়ে কথা বলেন ওবামা।   ওবামা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিক্রিয়া গত ৫০ বছরে ততটা আঁচ করা না গেলেও এখন তা টের পাওয়া যাচ্ছে। বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে অহরহ দাবানল, বন্যার প্রকোপ বেড়ে যাওয়া, অনাবৃষ্টি বৃদ্ধিসহ জলবায়ু বিষয়ক নানা উদাহরণ তুলে ধরেন তিনি। বৈশ্বিক তাপমাত্রা রোধে করণীয় ঠিক করার ভার এখন আর শুধু পুরনো প্রজন্মের ওপর না দিয়ে, তরুণ প্রজন্মের হাতে ছেড়ে দেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।   ওবামা তরুণদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন, যেকোনো নির্বাচনে তাঁর
যুক্তরাষ্ট্রে সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

যুক্তরাষ্ট্রে সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

প্রবাস প্রজন্মের বক্তব্য, আবৃত্তি আর একাত্তরের ৭ মার্চে রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ অনুকরণ মঞ্চায়নের মধ্য দিয়ে নিউ ইয়র্কে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান করলো ‘যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম’।   ৪৯তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ৩১ মার্চ রোববার সন্ধ্যায় এ অনুষ্ঠান হয় জ্যাকসন হাইটস এর জুইশ সেন্টার মিলনায়তনে।   পুরো অনুষ্ঠানটি নিবেদন করা হয় প্রবাস প্রজন্মের প্রতি এবং তাদের মুখেই একাত্তরের বীর বাঙালির ভূমিকা উচ্চারিত হয়।   মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে বয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে এমন আয়োজনের গুরুত্ব অপরিসীম বলে মন্তব্য করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশের কন্সাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা।   সাদিয়া বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধারা হলেন জীবন্ত কিংবদন্তী। তাদের কাছে থেকে নতুন প্রজন্মের কৌতুহল মেটানোর মাধ্যমেই সত্যিকারের ইতিহাস ভবিষ্যতের কাছে রেখে যাওয়া
একুশ শতকেও সবার আগে চাঁদে নভোচারী পাঠাতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

একুশ শতকেও সবার আগে চাঁদে নভোচারী পাঠাতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

বিশ শতকে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে চাঁদে পৌঁছাতে পেরেছিল যুক্তরাষ্ট্র। একইভাবে একুশ শতকেও সবার আগে চাঁদে নভোচারী পাঠানোর চ্যালেঞ্জ জানিয়েছে দেশটি। আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেছেন, একুশ শতকে চাঁদে মহাকাশচারী পাঠানোর ক্ষেত্রেও আমরাই হবো প্রথম জাতি। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যেই মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা আবারো চাঁদে নভোচারী পাঠাবে। এ বছরের জানুয়ারি মাসের শুরুর দিকে চাঁদের উল্টো পিঠ দক্ষিণ গোলার্ধের এইটকেন বেসিনে মনুষ্যবিহীন রোবটযান অবতরণ করায় চীন। ঐ ঘটনার তিন মাসের মধ্যে চাঁদের দক্ষিণ গোলার্ধে সবার আগে নভোচারী পাঠানোর ঘোষণা দিল যুক্তরাষ্ট্র। চীনের চালানো রোবোটিক মিশনের প্রসঙ্গ টেনে মাইক পেন্স বলেন, আমরা এখন আবার একটা মহাকাশ-কেন্দ্রিক প্রতিযোগিতার মধ্যে রয়েছি, যেমনটি ছিলাম ১৯৬০-এর দশকে। অ্যালাবামার হান্টসভিলের ন্যাশনাল স্পেস কাউন্সিলের সম্মেলনে দেওয়া এক ঘোষণায় মার্কিন ভা
উত্তর কোরিয়ার ওপর অতিরিক্ত নিষেধাজ্ঞার প্রয়োজন নেই: ট্রাম্প

উত্তর কোরিয়ার ওপর অতিরিক্ত নিষেধাজ্ঞার প্রয়োজন নেই: ট্রাম্প

উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখার স্বার্থে গত সপ্তাহে দেশটির ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের পথ থেকে সরে এসেছেন বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।   শুক্রবার ফ্লোরিডার অবকাশযাপন কেন্দ্রে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনে তিনি একথা জানান বলে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।   উত্তর কোরিয়ার জনগণ এমনিতেই ‘যথেষ্ট্র যন্ত্রণার’ মধ্যে আছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।   “আমার মনে হয় না এই সময়ে তাদের ওপর আরও নিষেধাজ্ঞার প্রয়োজন আছে। এর অর্থ এই নয় যে- পরে আর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে না,” বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।   ভিয়েতনামে গত মাসেই দ্বিতীয় শীর্ষ সম্মেলনে মিলিত হয়েছিলেন ট্রাম্প-কিম। দুই পক্ষের অনমনীয় মনোভাবের কারণে সেটি কোনো সমঝোতা ছাড়াই শেষ হয়।   বৈঠকে পিয়ংইয়ং কিছু নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিনিময়ে পারমাণবিক অস্ত্র কর্
বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে মামলা দায়ের

বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে মামলা দায়ের

মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো ফেডারেল কোর্টে মামলাটি দায়ের করেন রুয়ান্ডার একটি পরিবার।   চলতি মাসের প্রথম দিকে ইথিপিওয়ান এয়ারলাইন্সের বোয়িং-৭৩৭ ম্যাক্স দুর্ঘটনায় বিভিন্ন দেশের ১৫৭ নাগরিক নিহত হওয়ার পর প্রথমবারের মতো বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে মামলা করা হলো।   ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন আফ্রিকার দেশ রুয়ান্ডার নাগরিক জ্যাকসন মুসোনির পরিবার।   তবে মামলার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে কথিত অটোমেটেড ফ্ল্যাইট কন্ট্রোল সিস্টেম সম্বলিত ম্যাক্স ৭৩৭ নির্মাতা বোয়িং।   বোয়িংয়ের এক মুখপাত্র গার্ডিয়ানকে বলেন, ‘এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে যেসব তথ্য পাওয়া যাচ্ছে বোয়িং সেগুলো মূল্যায়ন করছে।’   তিনি আরও বল
ট্রাম্পকে ১০০ কোটি ডলার বরাদ্দ দিল পেন্টাগন

ট্রাম্পকে ১০০ কোটি ডলার বরাদ্দ দিল পেন্টাগন

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগন থেকে ট্রাম্পের দেয়াল নির্মাণ তহবিলে ১০০ কোটি ডলার বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক খাত থেকে ট্রাম্পের তহবিলে অর্থ বরাদ্দের এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।   মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে কংগ্রেস থেকে প্রয়োজনীয় অর্থ ছাড় না পেয়ে ভিন্ন পথে তা সংগ্রহে জরুরি অবস্থা জারি করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। জরুরি অবস্থা ঘোষণার পর প্রথমবারের মতো অর্থ বরাদ্দ পেলেন তিনি।   মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগনের ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্যাট্রিক শানাহান বলেছেন, মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে প্রয়োজনীয় অর্থসংস্থানের অংশ হিসেবে তিনি একশ কোটি ডলার অনুমোদন দিয়েছেন। গত সোমবার এই অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয় বলে নিশ্চিত করেন তিনি।   মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের জন্য ট্রাম্প ৫৭০ কোটি ডলার বরাদ্দ চান। কিন্ত