মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

অধ্যাপক জাকারিয়াকে যুক্তরাষ্ট্রের গাঙচিলের সংবর্ধনা

অধ্যাপক জাকারিয়াকে যুক্তরাষ্ট্রের গাঙচিলের সংবর্ধনা

যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংগঠন ‘গাঙচিল সাহিত্য-সংস্কৃতি পরিষদ’ ইবাইস বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জাকারিয়া লিংকনকে সংবর্ধনা দিয়েছে।   স্থানীয় সময় গত রোববার নিউ ইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে এম লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে সংগঠনটির ৮৩তম আসর অনুষ্ঠিত হয়।   এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকার উত্তরায় অবস্থিত ইবাইস বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জাকারিয়া লিংকন।   শুরুতে প্রধান অতিথিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ফারজানা আফরোজ। আসরে বিশেষ অতিথি ছিলেন আমিনুর রশিদ পিন্টু, প্রদীপ মালাকার, রওশন আরা বেগম এবং গাঙচিলের প্রতিষ্ঠাতা ও নাট্যকার খান শওকত।   গাঙচিলের প্রতিষ্ঠাতা নাট্যকার খান শওকতের লেখা নাট্যগ্রন্থ ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব’কে ইবাইস বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি সাহিত্য বিভাগের পাঠ্যপুস্তক হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।   এ প্রসঙ্গে জাকারিয়া বলেন, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়
২০৪০ সালে আমেরিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম হবে ইসলাম : পিউ রিসার্চ

২০৪০ সালে আমেরিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম হবে ইসলাম : পিউ রিসার্চ

আগামী দুই দশকের মধ্যে ইসলাম যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনগোষ্ঠীর ধর্মে পরিণত হবে। মার্কিন গবেষণাপ্রতিষ্ঠান পিউ রিসার্চ সেন্টারের এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য ওঠে এসেছে। দেশটিতে মুসলমানদের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে বলে জানিয়েছে পিউ রিসার্চ।   পিউ রিসার্চ সেন্টারের যৌথ এক জরিপে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের সংখ্যা ত্বরিত গতিতে বাড়ছে। দেশটিতে বর্তমানে ৩০ লাখ ৪৫ হাজার মুসলমান রয়েছে; তবে ২০৫০ সালে এ সংখ্যা ৮০ লাখ ১০ হাজারে পৌঁছাবে। এর ফলে যুক্তরাষ্ট্রে ইহুদিদের ছাড়িয়ে মুসলমানরা দ্বিতীয় বৃহত্তম জনগোষ্ঠী হবে।   পিউ রিসার্চ বলছে, ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রে রেকর্ডসংখ্যক মুসলিম অভিবাসন নিয়ে পাড়ি জমিয়েছে। এ মুসলমানদের তিন-চতুর্থাংশই বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসী অথবা অভিবাসীদের সন্তান।   মার্কিন এ গবেষণা সংস্থা বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে মুসলিমদের অধিকাংশই তর
বাংলাদেশ ভ্রমণে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের বাড়তি সতর্কতা নিতে বলেছে ট্রাম্প প্রশাসন

বাংলাদেশ ভ্রমণে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের বাড়তি সতর্কতা নিতে বলেছে ট্রাম্প প্রশাসন

ট্রাম্প প্রশাসনের নতুন ভ্রমণ নির্দেশিকায় বাংলাদেশকে লেভেল-২ শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর মানে অপরাধ ও সন্ত্রাসবাদের কারণে বাংলাদেশ ভ্রমণের সময় দেশটির নাগরিকদের সতর্কতা অবলম্বন করার উপদেশ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতকেও একই শ্রেণিভুক্ত করা হয়েছে।   দেশটির কর্মকর্তারা বলেছেন, গ্রাহকবান্ধব নতুন ভ্রমণ নির্দেশিকায় দেশগুলোকে চার ভাগে ভাগ করে ভ্রমণের জন্য আলাদা উপদেশ দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশকে লেভেল-২ এ রাখা হয়েছে। অর্থাৎ মার্কিন নাগরিকদের বাংলাদেশে ভ্রমণের সময় বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। পাকিস্তানকে লেভেল-৩ এ রাখার মাধ্যমে দেশটিতে ভ্রমণের বিষয়টিই পুনর্বিবেচনা করতে বলা হয়েছে। লেভেল-১ ভুক্ত দেশগুলোতে চলাচলে কোনও বিধিনিষেধ নেই। আর লেভেল-৪ ভুক্ত দেশগুলোতে ভ্রমণ করতে নিষেধ করা হয়েছে। আফিগানিস্তানকে লেভেল-৪ ভুক্ত দেশের তালিকায় রাখা হয়েছে।   আ
ব্রেইটবার্ট ছাড়ছেন ব্যানন

ব্রেইটবার্ট ছাড়ছেন ব্যানন

কট্টর ডানপন্থি সংবাদ মাধ্যম ব্রেইটবার্ট নিউজ এজেন্সির শীর্ষপদ ছাড়ছেন হোয়াইট হাউজের সাবেক চিফ স্ট্র্যাটেজিস্ট স্টিভ ব্যানন।   মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছেলেকে নিয়ে মন্তব্য করার পর তা নিয়ে বিতর্কের মধ্যে দীর্ঘদিনের প্রতিষ্ঠান ছাড়লেন ব্যানন, যেখানে থেকেই রক্ষণশীলদের কাছে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছেছিলেন তিনি।   মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ব্রেইটবার্ট তাদের নির্বাহী চেয়ারম্যানের পদ ছাড়ার খবর দেয় বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।   “ব্যানন এবং আমরা মসৃন ও সুশৃঙ্খলভাবে এ পরিবর্তনের ব্যাপার নিয়ে কাজ করছি,” বলে ব্রেইটবার্ট।   গত সপ্তাহে প্রকাশিত ‘ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি: ইনসাইড দ্য ট্রাম্প হোয়াইট হাউজ’বইতে ডোনাল্ড জুনিয়রকে নিয়ে মন্তব্যের কারণেই ট্রাম্পের সাবেক এ উপদেষ্টার পদত্যাগ, বলছেন পর্যবেক্ষকরা।   ২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে
যুক্তরাষ্ট্রে নিউ আমেরিকান ডেমক্র্যাটিক ক্লাবের কমিটি

যুক্তরাষ্ট্রে নিউ আমেরিকান ডেমক্র্যাটিক ক্লাবের কমিটি

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি ডেমক্র্যাটদের সংগঠন ‘নিউ আমেরিকান ডেমক্র্যাটিক ক্লাব’ এর নতুন পরিচালনা পরিষদ ঘোষণা করা হয়েছে।   স্থানীয় সময় শনিবার রাতে নিউ ইয়র্কের কুইন্সে তাজমহল পার্টি সেন্টারে সংগঠনটির বার্ষিক সমাবেশ থেকে এ ঘোষণা দেন এর প্রেসিডেন্ট মোর্শেদ আলম।   আগামী দুই বছরের জন্য সংগঠনটির নতুন কর্মকর্তারা হলেন- প্রেসিডেন্ট মোর্শেদ আলম, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মাফ মিসবাহ, পরিচালনা পর্ষদের চেয়ার রুবাইয়া রহমান, কো চেয়ার মনির হোসেন ও মনিকা রায়, রাজনীতিবিষয়ক পরিচালক ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, শ্রম পরিচালক কাজী মনীর, জনসংযোগ পরিচালক করিম চৌধুরী ও নারীবিষয়ক পরিচালক রোকেয়া আকতার।       অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন মার্কিন কংগ্রেসে বাংলাদেশ ককাসের সদস্য ও নিউ ইয়র্কের কংগ্রেসওম্যান ইভ্যাটি ডি ক্লার্ক। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিবাসন নীতির সম
আমিরাতের ভিসা পেতে লাগবে ভালো আচরণের সনদপত্র

আমিরাতের ভিসা পেতে লাগবে ভালো আচরণের সনদপত্র

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভিসা পেতে হলে এখন থেকে আবেদনের সঙ্গে ‘ভালো আচরণের সনদপত্র’ জমা দিতে হবে। সোমবার দেশটির সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ এ ঘোষণা দিয়েছে।   প্রবাসীদের জন্য আমিরাতের তৈরি এই নতুন বিধান আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর হবে। আমিরাতের রাষ্ট্রীয় সংবাদসংস্থা ওয়াম সোমবার এক প্রতিবেদনে বলছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের সমন্বয় কমিটি ২০১৭ সালে মন্ত্রিসভার একটি প্রস্তাবনা অনুমোদন করেছে।   নতুন এ আইনে বলা হয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভিসার জন্য যারা আবেদন করবেন, তারা অবশ্যই ভালো আচরণের সনদপত্র সংগ্রহের পর জমা দেবেন। নিজ দেশ থেকে অথবা সর্বশেষ যে দেশে পাঁচ বছর কাটিয়েছেন সেদেশের কর্তৃপক্ষের কাছে থেকে ভালো আচরণের সনদপত্র সংগ্রহ করতে হবে।       পরে ভিসার আবেদনের সঙ্গে বিদেশে থাকা আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক মিশন অথবা কাস্টমার হেপিনে
যুক্তরাষ্ট্রে বগুড়া ডিস্ট্রিক্ট অ্যাসোসিয়েশনের বিজয় দিবস উদযাপন

যুক্তরাষ্ট্রে বগুড়া ডিস্ট্রিক্ট অ্যাসোসিয়েশনের বিজয় দিবস উদযাপন

একজন প্রবাসীর আয়ের উপর নানাভাবে ১৮ জন বাংলাদেশি নির্ভরশীল বলে জানিয়ে প্রবাসীদের প্রতি সরকারের আরও সহযোগিতা এবং অনুকূল মনোভাবের আবেদন জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী মঈন চৌধুরী।   স্থানীয় সময় সোমবার নিউ ইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে পালকি পার্টি সেন্টারে ‘বিজয় দিবস’ উপলক্ষে বগুড়া ডিস্ট্রিক্ট অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত বিজয় দিবস উদযাপনের অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের একটি সমীক্ষার উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, “‘একজন প্রবাসীর আয়ের উপর ১৮ জন বাংলাদেশি বিভিন্নভাবে নির্ভরশীল। সরকারের সহযোগিতা ও অনুকূল মনোভাবই প্রবাসীরা দেশের উন্নতির জন্য আরো কাজ করতে অনুপ্রাণিত হবেন।”   কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট ডেমোক্রেটিক পার্টির ডিস্ট্রিক্ট নেতা আইনজীবী মঈন চৌধুরী বলেন, “স্বাধীনতা যুদ্ধে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অবদান অনস্বীকার্য। তৎকালীন প্রবাসী বাঙালিদের সফল কূটনৈতিক তৎপরতার কারণে স্বল্প সময়ে বিভিন্ন
পারিবারিক ভিসা নিষিদ্ধ করতে চান ট্রাম্প

পারিবারিক ভিসা নিষিদ্ধ করতে চান ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের বৈধ ভিসাধারী ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যদের পারিবারিক ভিসার আওতায় অনুমোদন দেয়া বন্ধ করতে কংগ্রেসের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী বৈধ নাগরিকরা তাদের পরিবারের সদস্যদের পারিবারিক ভিসার মাধ্যমে সে দেশে নিতে পারেন। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে নিরাপত্তার ক্ষেত্রে চেইন মাইগ্রেশন বা পারিবারিক ভিসাকে নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে দেখছেন ট্রাম্প। সে কারণেই তিনি পারিবারিক ভিসা কমিয়ে আনতে চান। খবর রয়টার্স।   এ বিষয়ে এখনও কোনো ধরনের আইন হয়নি। তবে গত বছর থেকেই পারিবারিক ভিসার অনুমোদন বিগত ১০ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে সবচেয়ে কম হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।   ইউএস সিটিজেনশিপ অ্যান্ড ইমিগ্রেশন সার্ভিসের (ইউএসসিআইএস) নথি থেকে এসব তথ্য জানিয়েছে রয়টার্স। পারিবারিক ভিসার ক্ষেত্রে এত কম অনুমোদন এর আগে দেখা যায়নি।    
মঙ্গলগ্রহের থেকেও শীতল হবে যুক্তরাষ্ট্র

মঙ্গলগ্রহের থেকেও শীতল হবে যুক্তরাষ্ট্র

গত কয়েক দশকে এমন ঠান্ডা আর তুষারপাত দেখেনি যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ। পুরু বরফের চাদরে ঢেকে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের একাংশ। এর মধ্যেই দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়। এর জেরে সমুদ্রে জলোচ্ছ্বাস এবং বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। এর ফলে দক্ষিণ-পূর্বের কোনও কোনও এলাকা মঙ্গল গ্রহের থেকেও বেশি শীতল হয়ে উঠবে।   গত কয়েকদিন ধরেই প্রচণ্ড ঠান্ডার কবলে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বিস্তীর্ণ অংশ। মেরু এলাকার শীতল বাতাস যুক্তরাষ্ট্রের উত্তরাংশের তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নীচে নামিয়ে দিয়েছে। বিভিন্ন স্থানে চলছে তুষারপাত। তাপমাত্রার নিম্নগতি বজায় থাকবে চলতি সন্তাহেও। এমন পূর্বাভাস আগেই দেওয়া হয়েছিল। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ঘূর্ণিঝড়ের আতঙ্ক।   এই ঝড়ের নাম দেওয়া হয়েছে বম্ব সাইক্লোন। দক্ষিণ ক্যারোলিনা থেকে ১৩টি রাজ্যে ঘূর্ণিঝড়ের দাপট বেশি হতে পারে। এর আঁচ টের পাওয়া গেছে বৃহস্পতিবার থেকেই। আবহাওয়া অ
ট্রাম্পের ভিসানীতি : আমেরিকা ফেরত পাঠাবে ৭৫ হাজার ভারতীয়!

ট্রাম্পের ভিসানীতি : আমেরিকা ফেরত পাঠাবে ৭৫ হাজার ভারতীয়!

‘Buy American, Hire American’ নীতি মেনে ভিসা শর্তাবলীতে সাম্প্রতিক রদবদলের জেরে আমেরিকা থেকে চাকরি হারাতে পারেন ৭৫ হাজার ভারতীয়।   সম্প্রতি ডিপার্টমেন্ট অফ হোমল্যান্ড সিকিউরিটি-তে জমা পড়া একটি মেমোর প্রস্তাবের প্রধান লক্ষ্য হল, গ্রিন কার্ডের জন্য বিদেশি কর্মীরা আবেদন করলে তাঁরা এইচ-১বি ভিসা আর রাখতে পারবেন না।   ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের এই প্রস্তাবটি কার্যকর করা হলে হাজার হাজার ভারতীয় কর্মী, যাদের এক বড় অংশ তথ্য প্রযুক্তি বিভাগে কর্মরত, তাদের এইচ-১বি ভিসার মেয়াদ বাড়াতে পারবেন না যে হেতু গ্রিন কার্ড-এর জন্য তাদের আবেদন তখনও বিবেচলাধীন থাকবে।   আমেরিকায় স্থায়ী বসবাস করতে হলে গ্রিন কার্ড আবশ্যক। পুরনো নিয়ম অনুযায়ী, গ্রিন কার্ডের জন্য আবেদন জানালে সাধারণত এইচ-১বি ভিসার মেয়াদ বাড়িয়ে দেয় মার্কিন প্রশাসন।   সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, আমেরিকায়