মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রে নৈশক্লাবে গুলিতে নিহত ১

ওহাইও অঙ্গরাজ্যের সিনসিনাটির একটি নৈশক্লাবে গুলিতে একজন নিহত ও অন্তত ১৪ জন আহত হয়েছেন। রোববার দিনের প্রথম প্রহরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। টুইটারে সিনসিনাটি পুলিশ বিভাগ জানিয়েছে, ক্যামিও নৈশক্লাবের এ ঘটনায় অন্তত দুজন বন্দুকধারী জড়িত। সহকারী পুলিশ প্রধান পল নেউডিগেটের বরাতে ওহাইওর স্থানীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেলের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় রাত ১টা দিকের এ ঘটনায় অন্তত ১৫ জন গুলিবিদ্ধ হন, এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা সঙ্কটাপন্ন। নেউডিগেট বলেন, ‘নৈশক্লাবে ভয়ঙ্কর এক পরিস্থিতির মধ্যে পড়ে গিয়েছিলাম আমরা, সেখানে অনেকে আহত হয়েছেন।’ এ ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি বলে জানিয়েছেন সার্জেন্ট এরিক ফ্রাঞ্জ। পুলিশ প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এ সময় ঘটনাস্থলে কয়েকশত লোক ছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।
লাস ভেগাস স্ট্রিপে বন্দুক হামলায় এক ব্যক্তি নিহত

লাস ভেগাস স্ট্রিপে বন্দুক হামলায় এক ব্যক্তি নিহত

যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাস স্ট্রিপের ব্যস্ত এলাকার একটি বাসে বন্দুক হামলায় শনিবার একজন নিহত হয়েছে। পরে এই ঘটনায় একজন সন্দেহভাজন কর্তৃপক্ষের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে।হামলার পর পুলিশ সাউথ লাস ভেগাস বোলিভার্ডের একটি অংশ কয়েক ঘন্টার জন্য বন্ধ রাখে। পুলিশের মুখপাত্র ল্যারি হাডফিল্ড এর আগে সাংবাদিকদের বাসে বন্দুক হামলার ঘটনাটি অবহিত করেন। হাডফিল্ডের উদ্ধৃতি দিয়ে ইউএসএ টুডে জানিয়েছে, ‘আমরা একটি বন্দুক হামলার ঘটনায় দুইজন আহত হওয়ার খবর পাই। তাদের দু’জনকেই ট্রমা সেন্টারে পাঠানো হলে একজন মারা যায়।’ সন্দেহভাজন লোকটির বয়স ৫০ এর কোঠায় বলে ধারণা করা হচ্ছে। তিনি ডাবলডেকার বাসটির দ্বিতীয় তলায় ছিলেন। পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই। সূত্র: বাসস।

শেষ পর্যন্ত হেলথ কেয়ার বিল প্রত্যাহার করলেন ট্রাম্প

পার্লামেন্টে ভোটে হারের শঙ্কায় আলোচিত আমেরিকান হেলথকেয়ার বিল প্রত্যাহার করে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বাধীন প্রশাসন। স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে এই সংক্রান্ত ঘোষণা দেন হাউস অব রেপ্রিজেন্টেটিভসের স্পিকার পল রায়ান। রায়ান বলেন, হাউসে রিপাবলিকানদের প্রয়োজনীয় ২১৫ ভোট না পাওয়ার শঙ্কা দেখা দেওয়ায় এ হেলথকেয়ার বিল প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। রায়ান জানান, ট্রাম্প এ ঘটনায় বিস্মিত। তিনি শেষ মুহূর্তে এই বিল প্রত্যাহারে মত দেন। ডেমোক্রেটিক প্রশাসনের ‘ওবামা কেয়ার’ স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচির বিরোধিতায় ট্রাম্প প্রথম থেকেই ছিলেন সরব। তাঁর নির্বাচনী প্রচারণারও অন্যতম কেন্দ্রবিন্দু ছিল ‘দ্য আমেরিকান হেলথকেয়ার বিল’ চালু করা। কিন্তু শেষ মুহূর্তে এই বিল প্রত্যাহারে হতাশ হতে হলো ট্রাম্পকে। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি শন স্পাইসারের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, শুক্রবার দুপুর

যুক্তরাষ্ট্রের ৩ জায়গায় গোলাগুলী পুলিশসহ ৪ জন নিহত

যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনে বন্দুকধারীর গুলীতে এক পুলিশসহ চারজন নিহত হয়েছেন। একটি বিবাদের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত বুধবার অঙ্গরাজ্যটির তিনটি এলাকায় এ গোলাগুলী হয়। এভারেস্ট মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রধান ওয়ালি স্পার্কসের বরাতে খবরটি জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। স্পার্কস বলেন, দায়িত্বপালনরত অবস্থায় এক পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। একে ‘পারিবারিক বিবাদ’জনিত ঘটনা বলে দাবি করেছে পুলিশ। ইতোমধ্যে ওই সন্দেহভাজন হামলাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানায়, গত বুধবার ওয়াসাউ এর ছোট একটি শহরে এই হামলা শুরু হয়। এদিন রথসচাইল্ড এলাকার ম্যারাথন সেভিংস ব্যাংকে প্রথম হামলা চালানো হয়। দুই ব্যক্তিকে খুঁজতে ব্যাংকে হাজির হন সন্দেহভাজন হামলাকারী। এরপর তাদেরকে গুলী করলে ঘটনাস্থলে তারা নিহত হন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ব্যাংকে আসতে আসতে পালিয়ে যায় ওই হামলাকারী। এর দশ মিনিট পরই একটি ল ফার্
যুক্তরাজ্যকে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র : ট্রাম্প

যুক্তরাজ্যকে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র : ট্রাম্প

ব্রিটিশ পার্লামেন্টে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাকে ‘বড় খবর’ উল্লেখ করে যুক্তরাজ্যকে যেকোনোভাবে সাহায্য করার কথা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র শন স্পাইসার জানান, ওয়েস্টমিনস্টারে হামলার ঘটনা নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প আলোচনা করেছেন এবং তিনি ওই ঘটনার নজরদারি অব্যাহত রেখেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বাইরে হামলার ঘটনাকে তাঁরা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। সেইসঙ্গে দেশটিতে বসবাসরত আমেরিকানদের ঘটনাস্থলের আশপাশে থেকে নিরাপদ স্থানে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মার্ক টোনার বলেছেন, ‘এ ঘটনায় যুক্তরাজ্যকে যেকোনোভাবে সাহায্য করতে আমরা প্রস্তুত আছি।’ তিনি আরো জানান, লন্ডনে মার্কিন দূতাবাস এ ঘটনার সব খবর গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে এবং এ ঘটনায় কোনো আমেরিকান হতাহত হলে তাঁকে সাহায্যের জন্য তৈরি আছে।
শীঘ্রই পদত্যাগ করতে পারেন ট্রাম্প: সিনেটর দায়ানি ফ্রেইনস্টেন

শীঘ্রই পদত্যাগ করতে পারেন ট্রাম্প: সিনেটর দায়ানি ফ্রেইনস্টেন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প খুব শীঘ্রই পদত্যাগ করতে পারেন বলে আশা করছেন ডেমোক্রেটিক দলীয় একজন সিনেটর।আজ বুধবার দ্য ইনডিপেনডেন্টের এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ করা হয়। আজ এঞ্জেলেসে ট্রাম্প বিরোধী এক বিক্ষোভ সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেট দলীয় সিনেটর দায়ানি ফ্রেইনস্টেন বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প খুব শিগগির নিজ থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য হবেন। কংগ্রেসের সদস্যরা ট্রাম্পকে ওভাল অফিস থেকে সরাতে কেন কিছু করছেন না- সমর্থকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে সিনেটর এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, আশা করি, ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে দাঁড়াতে বাধ্য করার আগেই তিনি নিজে থেকেই পদত্যাগ করবেন। একজন বিক্ষোভকারী ফ্রেইনস্টেকে বলেন, ‘ট্রাম্প রাশিযার সঙ্গে কাজ করছে এবং প্রতিদিন সাংবিধানিক নিয়ম ভঙ্গ করছেন। কিভাবে আমরা তাকে অফিস থেকে বের করতে যাচ্ছি?’ প্রশ্নটির জবাবে ফ্রেইনস্টেন বলেন, আমি নিজেও অধীর আগ্রহ নিয়ে অপ
৭০ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন জনপ্রিয়তা ট্রাম্পের

৭০ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন জনপ্রিয়তা ট্রাম্পের

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাপ্রুভাল রেটিং বা জনপ্রিয়তা সর্বনিম্নে পৌঁছেছে। কমপক্ষে ৭০ বছরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে তার এ জনপ্রিয়তা সর্বনিম্নে। গ্যালাপ জরিপে দেখা যাচ্ছে, ক্ষমতা গ্রহণের দু’মাসের মাথায় তার জনপ্রিয়তা কমে দাঁড়িয়েছে শতকরা ৩৭ ভাগ। অর্থাৎ প্রতি ১০০ জন মার্কিন নাগরিকের মধ্যে মাত্র ৩৭ জন তাকে সমর্থন করছেন। তার ক্ষমতা গ্রহণের এই সময়সীমার মধ্যে এত নিচে ৭০ বছরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রেসিডেন্টের জনপ্রিয়তা নামে নি। অন্যদিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে তাকে ‘ডিজঅ্যাপ্রুভ’ করেছেন শতকরা ৫৮ ভাগ মার্কিনি। অর্থাৎ তাকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে অনুমোদন করেন না এসব মানুষ। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট, সিএনবিসি, নিউ ইয়র্কার ডেইলি নিউজ। এতে বলা হয়েছে, মাত্র দু’মাস হলো প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ক্ষমতার মেয়াদ। ২০শে জানুয়ারি শপথ নিয়ে তিনি প্রবেশ করেন হোয়াইট হাউসে। ওই স
হোয়াইট হাউসে নিরাপত্তা জোরদার

হোয়াইট হাউসে নিরাপত্তা জোরদার

মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস শনিবার রাতে হোয়াইট হাউসে নিরাপত্তা জোরদার করেছে। হোয়াইট হাউসের একটি চেকপয়েন্টে হুমকি দেয়ার কারণে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতারের পর এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এক কর্মকর্তা একথা জানান। মার্কিন নিউজ চ্যানেল সিএনএন জানিয়েছে, লোকটি তার গাড়িতে একটি বোমা রয়েছে বলে হুমকি দেয়। এর পরপরই তাকে গ্রেফতার এবং গাড়িটি আটক করা হয়। ঠিক ওই মুহূর্তে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ফ্লোরিডায় ছিলেন। সিক্রেট সার্ভিসের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘২০১৭ সালের ১৮ মার্চ আনুমানিক রাত ১১টা ৫ মিনিটে ফিপটিনথ স্ট্রিট ও ই স্ট্রিট এনডব্লিউ এ অবস্থিত সিক্রেট সার্ভিসের একটি চেকপয়েন্টের দিকে এ ব্যক্তি একটি গাড়ি চালিয়ে আসে।’ তিনি আরো বলেন ‘লোকটির সঙ্গে কথা বলার পর মার্কিন সিক্রেট সার্ভিসের ইউনিফর্ম বিভাগের কর্মকর্তারা লোকটিকে আটক করে এবং গাড়িটিকে সন্দেহজনক হিসেবে চিহ্নিত করে।’ সিক্রেট সার্ভিস আরো জানায়, এই ঘ
ওবামা গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকে টেলিফোনে আড়ি পাততে বলেন: মার্কেলকে ট্রাম্প

ওবামা গোয়েন্দা সংস্থাগুলোকে টেলিফোনে আড়ি পাততে বলেন: মার্কেলকে ট্রাম্প

প্রেসিডেন্ট ওবামার শাসনামলে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো মার্কেলের টেলিফোনে আড়ি পাতে বলেন, সে সময় জার্মানিকে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ করে তোলে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার পূর্বসুরি বারাক ওবামার বিরুদ্ধে আড়িপাতার অভিযোগে অটল রয়েছেন। তিনি ওয়াশিংটন সফররত জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলকে বলেছেন, “অন্তত একটি ক্ষেত্রে সম্ভবত আপনার সঙ্গে আমার মিল রয়েছে।” কিন্তু রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাট উভয় দলের কংগ্রেস নেতারা বলেছেন, ট্রাম্পের ফোনেও ওবামা আড়ি পেতেছিলেন বলে তারা বিশ্বাস করেন না। শুক্রবার ওয়াশিংটনে ন্যাটো জোট এবং দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যিক সম্পর্ক নিয়ে আলাপ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও অ্যাঙ্গেলা মার্কেল। এরপর এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে টেলিফোনে আড়িপাতার প্রসঙ্গ তোলেন ট্রাম্প। এ সময় মার্কেল ট্রাম্পের দিকে ব্যাঙ্গাত্মক দৃষ্টিতে তাকান। সংবাদ সম্মেলনে হোয়াইট হাউজের প্রেস সচিব শোন স্পাইসারের এক মন্ত

ট্রাম্পের এক যুগ আগের আয়কর বিবরণী ফাঁস

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ২০০৫ সালের আয়কর বিবরণীর ফাঁসকৃত তথ্য বুধবার প্রকাশ করেছে মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল 'এমএসএনবিসি'। দুই পৃষ্ঠার ওই বিবরণীতে দেখা যায়, ২০০৫ সালে ১৫ কোটি ডলারের বেশি আয়ের বিপরীতে ট্রাম্প ৩.৮ কোটি ডলার আয়কর দিয়েছেন। এই তথ্য ফাঁসে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে হোয়াইট হাউস। সংবাদসূত্র : বিবিসি এমএসএনবিসিকে আয়কর বিবরণীর ফাঁসকৃত ওই অংশ দিয়েছেন পুলিৎজার পুরস্কার পাওয়া অনুসন্ধানী সাংবাদিক ডেভিড কে জনস্টন। এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, একটি গোপন সূত্র থেকে তিনি ওই পৃষ্ঠা দুটি পেয়েছেন, যার নাম গোপন রাখা হয়েছে। ফাঁস হওয়া ওই দুই পৃষ্ঠা পুরো 'ট্যাক্স রিটার্নের' একটি অংশ মাত্র। ট্রাম্পের আয় সে সময় কত ছিল, তাও ওই অংশ দেখে বোঝা যাচ্ছে না। কিন্তু ট্রাম্পের সম্পদ আর তার আয়করের বিষয়ে সাংবাদিকরা এতই কম তথ্য এ যাবৎকালে পেয়েছেন যে, ওই দুই পৃষ্ঠা পাওয়াই খুব গুরুত্বপূর্ণ বলে