লাইফ ষ্টাইল

খাবার খাওয়ার আগে বা পরে পানি খেলে কী হয়?

খাবার খাওয়ার আগে বা পরে পানি খেলে কী হয়?

কেউ বলে, খাবার খাওয়ার আগে পানি খাওয়া ঠিক নয়; কেউ বলে খাওয়ার পরে পানি খাওয়া ঠিক নয়। কেউ বলেন, খাবার খাওয়ার অন্তত আধঘণ্টা আগে পানি খাওয়া উচিত; কেউবা বলে, খাবার খাওয়ার পর পানি খাওয়ার জন্য ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করা উচিত
তেঁতুলের এই উপকারিতাগুলো জানতেন?

তেঁতুলের এই উপকারিতাগুলো জানতেন?

ছবি দেখে নিশ্চয়ই জিভে জল চলে এসেছে? তেঁতুল এমনই এক ফল, যার নাম শুনলে সবারই জিভে জল চলে আসতে বাধ্য। টক এই ফলটির গুণ বেশ মিষ্টি। কারণ এটি খেলে শরীরে একইসঙ্গে অনেকরকম উপকার মেলে। তেঁতুল কাঁচা, পাকা, আচার কিংবা সস তৈরি করে বিভিন্নভাবে খাওয়া যায়। পাকা তেঁতুল সংরক্ষণ করে সারাবছর খাওয়া যায়।   তেঁতুলের পুষ্টিগুণ   প্রতি ১০০ গ্রাম পাকা তেঁতুলে মোট খনিজ পদার্থ ২.৯ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ২৮৩ কিলোক্যালরি, আমিষ ৩.১ গ্রাম, চর্বি ০.১ গ্রাম, শর্করা ৬৬.৪ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ১৭০ মিলিগ্রাম, আয়রন ১০.৯ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন ৬০ মাইক্রোগ্রাম ও ভিটামিন সি ৩ মিলিগ্রাম।   আরও পড়ুন: ভাত না রুটি, কোনটি বেশি উপকারী? তেঁতুলের কিছু উপকারিতা   কোষ্ঠকাঠিন্যর সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চাইলে তেঁতুলের সাহায্য নিন। তেঁতুলের মধ্যে টার্টারিক অ্যাসিড‚ ম্যালিক অ্যাসিড এবং পটাশিয়াম আছে যা কোষ
নতুন কিছু শুরু করাটা চ্যালেঞ্জিং ছিল : ফারনাজ আলম

নতুন কিছু শুরু করাটা চ্যালেঞ্জিং ছিল : ফারনাজ আলম

ফারনাজ আলম। অনেকগুলো পরিচয় তার। নিজের প্রচেষ্টা ও যোগ্যতায় অল্প সময়েই পরিচিতি পেয়েছেন ফ্যাশন দুনিয়ায়। একাধারে তিনি ওমেন্স ওয়ার্ল্ডের সিইও, দেশি কসমেটিকস ব্রান্ড কনা-বাই ফারনাজ আলমের প্রতিষ্ঠাতাও। অল্প বয়সেই তিনি আন্তর্জাতিক পরিসরে খ্যাতি পেয়েছেন একজন বিউটি এক্সপার্ট হিসেবে। নারী দিবসের বিশেষ আয়োজনে জাগো নিউজ ২৪.কম-এর সঙ্গে বলেছেন তার নানা অভিজ্ঞতার কথা। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন হাবীবাহ্ নাসরীন-   বিউটি এক্সপার্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে কেন আগ্রহী হলেন? ফারনাজ আলম: আমার মা কনা আলমের হাত ধরে গড়ে উঠেছে ওমেন্স ওয়ার্ল্ড। তাই ছোটবেলা থেকেই এসবকিছু কাছ থেকে দেখার সুযোগ হয়েছে। ২০১৫ সালে মালয়শিয়ায় ল'রিয়েল মেকআপ আর্টিস্টদের নিয়ে আয়োজন করে দি ব্রাশ কন্টেস্ট, আমি সেখানে সেরা নির্বাচিত হই। সেখান থেকেই মূলত আগ্রহটা বাড়তে থাকে। এরপর ল'রিয়েলের সঙ্গে দু’বছর ও ম্যাকের সঙ্গে এক বছর কাজ করেছি। মায়ের সঙ
এগিয়ে যাওয়া নারীদের গল্প

এগিয়ে যাওয়া নারীদের গল্প

বিজ্ঞাপনী সংস্থার কাজ বরাবরই বেশ চ্যালেঞ্জিং। কমিউনিকেশনের মাধ্যমে ব্র্যান্ড কিংবা সার্ভিস কনজিউমারদের কাছে সহজে, সঠিকভাবে প্রচারে দিন-রাত ভুলে কাজ করাটাই যেন এখানে নিয়ম। এই চ্যালেঞ্জটা আরো বেড়ে যায় যখন কাজ করতে হয় এশিয়াটিক মার্কেটিং কমিউনিকেশন লিমিটেড এর মতো কোন প্রতিষ্ঠানে।   এখানে প্রতিষ্ঠান হিসেবে এশিয়াটিকের নাম উঠে এসেছে বিশেষ একটি কারণে। অন্যান্য শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞাপনী সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানসহ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নিয়োজিত কর্মীদের মাঝে পুরুষই সংখ্যাগরিষ্ঠ। সেখানে এশিয়াটিকের চিত্রটি একদমই ভিন্ন। পুরুষ সহকর্মীদের পাশাপাশি এখানে প্রায় ৪০ ভাগ নারী কাজ করেন।   সারা যাকের, ভাইস চেয়ারপারসন, এশিয়াটিক থ্রিসিক্সটি গ্রুপ অব কোম্পানিস   বাংলাদেশের অনন্য নারীদের মাঝে তিনি অন্যতম। টিভি নাটক, মঞ্চ নাটক, চলচ্চিত্র- সব ভুবনেই রেখে চলেছেন দৃঢ় পদচ্ছাপ। কর্মক্ষেত্রেও
গ্যাসের সিলিন্ডার দুর্ঘটনা এড়াবেন যেভাবে

গ্যাসের সিলিন্ডার দুর্ঘটনা এড়াবেন যেভাবে

এলপিজি সিলিন্ডার বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনা প্রায়শই ঘটছে। এর প্রধান কারণ হলো অসাবধানতা। একটু সতর্ক থাকলেই এই বিপদ এড়িয়ে চলা সম্ভব। বেশিরভাগ সময়েই একটুখানি অসাবধানতা থেকেই এরকম ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। তাই গ্যাসের সিলিন্ডার দুর্ঘটনা এড়াতে করণীয় জেনে নিন-     ১.রান্না শেষে চুলা ও এলপিজি সিলিন্ডারের রেগুলেটরের সুইচ অবশ্যই বন্ধ করুন।   ২.সিলিন্ডার কোনোভাবেই চুলার/ আগুনের পাশে রাখবেন না, এতে বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।   ৩.চুলা থেকে যথেষ্ট দূরে, বায়ু চলাচল করে এমন স্থানে এলপিজি সিলিন্ডার রাখুন।   ৪.ঘরে গ্যাসের গন্ধ পেলে দ্রুত দরজা-জানালা খুলে দিন এবং এলপিজি সিলিন্ডারের রেগুলেটর বন্ধ করুন।   ৫.গ্যাসের গন্ধ পেলে ম্যাচের কাঠি জ্বালাবেন না, ইলেক্ট্রিক সুইচ এবং মোবাইল ফোন অন বা অফ করবেন না।   ৬.রান্না শুরু করার আধা ঘণ্টা আগে রান্নাঘরের দর
বসে থেকেই ওজন কমাবেন যেভাবে

বসে থেকেই ওজন কমাবেন যেভাবে

লাইফ স্টাইল ডেস্ক ::  জীবিকা নির্বাহের জন্য অফিসে তো যেতে হবেই। সেখানে আপনার জন্য নির্দিষ্ট করা চেয়ারে বসে কাজ করবেন- সেটিও স্বাভাবিক। কিন্তু একটানা বসে কাজ করতে গিয়ে ভুঁড়ি বাড়ছে, সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে কোমড় আর পিঠের ব্যথা! এই পরিস্থিতিতে কী ভাবে ওজন আর ভুঁড়ি কমিয়ে সুস্থ থাকবেন, তা নিয়ে চিন্তিত! অফিসে নিশ্চয়ই আলাদা করে শরীরচর্চা করা যায় না! তাহলে জেনে নিন এক অবিশ্বাস্য সমাধান, বসে থেকেই সম্ভব আপনার ওজন কমানো- চেষ্টা করুন যতটা সম্ভব সোজা হয়ে বসার। মেরুদণ্ড একদম সোজা, টান টান করে বসলে অধিক ক্যালোরি খরচ হয়। শুধু তাই নয়, এ ভঙ্গিতে বসলে আপনার পেট ও পিঠের পেশীগুলি অনেক সুগঠিত হবে আর টান টান হবে। অফিসে কাজে বসার সময় শুধু মেরুদণ্ড সোজা করে বসলেই হবে না, পায়ের পাতা মেঝের সঙ্গে সমান করে ছুঁয়ে রাখুন এবং মাথা সোজা রেখে কাজ করার চেষ্টা করুন। অফিসে বসে কাজ করতে করতেই শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্য
কফির এই ব্যবহারগুলো জানতেন?

কফির এই ব্যবহারগুলো জানতেন?

এককাপ কফি পানেই উধাও হয়ে যায় সমস্ত ক্লান্তি। চায়ের পাশাপাশি পানীয় হিসেবে কফির চাহিদা বেড়েই চলেছে দিনে দিনে। এটি আমাদের শরীরের জন্য নানাভাবে উপকারী। কফির কিন্তু আরও অনেক গুণ রয়েছে। পান করা ছাড়াও কফির সদ্ব্যবহার করতে পারেন এইসব উপায়ে-   ত্বকের জন্য কফি খুব উপকারী। কফি আমাদের ত্বকের রিঙ্কেল ও মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে। এক চা চমক বেকিং সোডার সঙ্গে কফি পাউডার মেশান। এরপর মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে ভালো করে ধুয়ে নিন।   ফ্রিজে দুর্গন্ধের সঙ্গে আমরা কম-বেশি সবাই পরিচিত। একটি কাপে কিছুটা কফি রেখে দিন ফ্রিজের মধ্যে। কফির সমস্ত দুর্গন্ধ টেনে নেবে। ফ্রিজকে দুর্গন্ধ মুক্ত রাখবে।   শখের বাগান থাকলে গাছেরও যত্ন নিতে পারেন এই কফি দিয়ে। পানির সঙ্গে মিশিয়ে বা জৈব সারের সঙ্গে মিশিয়েও দিতে পারেন। এতে মাটির নাইট্রোজেন বৃদ্ধি পায়। গাছের বৃদ্ধিও ভালো হয়। তবে কফির মাত্র
যে কারণে জিরা খাওয়া জরুরি

যে কারণে জিরা খাওয়া জরুরি

রান্নায় জিরার ব্যবহার বাঙালির দীর্ঘদিনের অভ্যাস। এটি খাবারে বাড়তি স্বাদ ও গন্ধ যুক্ত করে। তবে শুধু খাবারের স্বাদ বাড়াতেই নয়, শরীরের নানা উপকারেও জিরার জুড়ি মেলা ভার। হজম ক্ষমতার উন্নতির পাশাপাশি নানাবিধ পেটের রোগ সারাতে এই প্রকৃতিক উপাদানটি যেমন বিশেষ ভূমিকা নেয়, তেমনি অ্যাজমার প্রকোপ কমাতে এবং ত্বক ও চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেও কাজে আসে। জিরার আরও অনেক উপকারিতা আছে, চলুন জেনে নেয়া যাক-   গর্ভাবতী নারীর শরীর ঠিক রাখতে জিরা বেশ উপকারী। এই সময় হবু মায়েদের কনস্টিপেশন এবং হজমের সমস্যা হয়ে থাকে। জিরা এই দু ধরনের সমস্যা কমাতে দারুন উপকারে লাগে। সেইসঙ্গে মাথা ঘোরা এবং গর্ভাবস্থা সম্পর্কিত আরও সব লক্ষণ কমাতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়। এ কারণেই হবু মায়েদের প্রতিদিন ১ গ্রাস গরম দুধে হাফ চামচ জিরা এবং ১ চামচ মধু মিশিয়ে খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।   আপনি কি কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যায় ভুগছে
জেনে নিন অ্যাজমা থেকে বাঁচার উপায়

জেনে নিন অ্যাজমা থেকে বাঁচার উপায়

অ্যাজমার কষ্ট কেবল ভূক্তভোগীই জানেন। আমাদের ফুসফুসে অক্সিজেন বহনকারী যে সরু সরু নালীপথ ধুলো, অ্যালার্জি বা দূষণের প্রকোপে কুঁচকে যায়। শ্বাসনালীর পেশী ফুলে ওঠার কারণেই এই সংকোচন হয় ও শরীরে অক্সিজেন কম প্রবেশ করে। তাই শ্বাসের জন্য প্রয়োজনীয় অক্সিজেনের জোগান মেলে না। এই অসুখের প্রবণতা যাদের আছে, অনেকক্ষেত্রেই তাদের সারা জীবন এই সমস্যা বহন করতে হয়, সম্পূর্ণ নিরাময় হয় না। তবে খাওয়াদাওয়া ও জীবনযাপনের বেলায় কিছু নিয়মকানুন মেনে চললে অ্যাজমাকে দূরে রাখা সম্ভব-     যে ঘরে অ্যাজমার রোগী থাকেন, সে ঘরে যাতে যেন যথেষ্ট আলো-বাতাস ঢোকে, সে দিকে নজর রাখুন। নিয়মিত ঘর পরিষ্কার রাখুন, ধুলো যত কম থাকবে রোগী তত ভালো থাকবেন।   যখনই রাস্তায় বের হবেন, নাক-মুখ ঢাকা মাস্ক ব্যবহার করুন। সেই মাস্কও যাতে নিয়মিত পরিষ্কার করা হয়, সে দিকেও খেয়াল রাখতে হবে।   জামাকাপড় পরিষ্কার রাখু
কী করলে চুল পড়া বন্ধ হয়?

কী করলে চুল পড়া বন্ধ হয়?

প্রতিদিন যে পরিমাণ চুল ঝরে, জৈবিক নিয়মে সে পরিমাণ চুলই গজায়। কিন্তু এই অনুপাত সবসময় সমান থাকে না। চুল গজানোর চেয়ে ঝরে যাওয়ার পরিমাণ বেড়ে গেলেই বিপত্তি আসে। বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতিদিন ৮০-১০০টি চুল ঝরে। গজানোর কথাও ততগুলিই। কিন্তু মানুষের মাথার ত্বকের ধরন, আবহাওয়া, চুলের প্রকৃতি, যত্ন ও কোনো রকম অ্যালার্জি আছে কি না এসবকিছুর উপর নির্ভর করে কার চুল কত বেশি বা কম ঝরবে। চুল গজানোর চেয়ে ঝরে যাওয়ার সংখ্যা বেশি হতে হতেই এক সময় টাকের সমস্যা দেখা যায়।   নিয়মিত চুলের যত্ন নেয়ার পাশাপাশি খেয়াল রাখতে হবে আরও কিছু বিষয়ে। সমাধান খুঁজতে হবে কিছু সমস্যারও। চলুন জেনে নেয়া যাক-   শরীরে রক্তস্বল্পতা বা অ্যানিমিয়া বাসা বাঁধলেও চুলের ক্ষতি হয়। তাই অ্যানিমিয়া সামলানোর ওষুধ শুরু করতে দেরি করবেন না। প্রয়োজনীয় পথ্য ও ওষুধ নিলে চুলের স্বাস্থ্যও ফিরবে ও অকালে টাক পড়া কমবে।   মাথার ত্