স্বাস্থ্য-পুষ্টি

আইসিডিডিআরবির অবদানের প্রশংসা করলেন যুক্তরাজ্যের মন্ত্রী

আইসিডিডিআরবির অবদানের প্রশংসা করলেন যুক্তরাজ্যের মন্ত্রী

ব্রিটেনের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন এবং নারী ও সমতাবিষয়ক মন্ত্রী পেনি মরডন্ট তার সংক্ষিপ্ত বাংলাদেশ সফরকালে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর,বি) পরিদর্শন করেছেন।   মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) আইসিডিডিআর-বি ঘুরে দেখেন তিনি। এ সময় তিনি সাধারণ মানুষের জীবন বাঁচানোয় জনস্বাস্থ্য প্রচেষ্টায় আইসিডিডিআরবি ও যুক্তরাজ্যের কয়েক দশকের দীর্ঘ অংশীদারত্বের প্রশংসা করেন।   পরিদর্শনকালে তার সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার অ্যালিসন বেইক, যুক্তরাজ্যের উন্নয়ন সংস্থা ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি) বাংলাদেশের প্রধান জিম ম্যাকআলপিন এবং ডিএফআইডির প্রতিনিধিদল।   পেনি মরডন্ট মহাখালীতে অবস্থিত আইসিডিডিআর,বি-র ঢাকা হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র, বিভিন্ন ওয়ার্ড, মাতৃদুগ্ধদান পরামর্শ কক্ষ, টিকাদান কক্ষ, পুষ্টি পুনর্বাসন ইউন
দুই দিনে চট্টগ্রামের ৪০ চিকিৎসককে বদলি

দুই দিনে চট্টগ্রামের ৪০ চিকিৎসককে বদলি

মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে চট্টগ্রামের ৪০ চিকিৎসককে পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায় বদলির আদেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। তাদেরকে আদেশের দিন থেকে তিন কর্মদিবসের মধ্যে নতুন কর্মস্থলে যোগদান করতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মো. আবুল কালাম স্বাক্ষরিত গত সোমবারের (১৮ ফেব্রুয়ারি) প্রথম আদেশে ১৭ জনকে, দ্বিতীয় আদেশে ৯ জনকে এবং পরেরদিন মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) তৃতীয় দফা আদেশে আরও ১৪ চিকিৎসককে বদলি করা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক ডা. মো. আবুল কাশেম বদলি ও পদায়নের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রাম বিভাগে মোট ১০০টি উপজেলা রয়েছে। এর মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আছে ৯১টি। ৯১টির মধ্যে ৬ জনের কম চিকিৎসক রয়েছে এমন উপজেলা হাসপাতাল ২১টি। ৬ জনের বেশি চিকিৎসক আছেন ১৮টি হাসপাতালে। অতিরিক্ত চিকিৎ
তেলাপিয়া মাছ খাচ্ছেন তো বিপদ বাড়াচ্ছেন

তেলাপিয়া মাছ খাচ্ছেন তো বিপদ বাড়াচ্ছেন

বাজারে সারা বছর পাওয়া যায়-এমন মাছের মধ্যে তেলাপিয়া অন্যতম। এটি মাছে-ভাতে বাঙালির অত্যন্ত প্রিয় একটি মাছ। পুষ্টিবিদদের মতে, এ মাছের পুষ্টিগুণ অসাধারণ! শুধু বাংলাদেশেই নয়, বিশ্বের ১৩৫টিরও বেশি দেশে তেলাপিয়া মাছের চাষ হয়। তেলাপিয়ায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি-১২, ফসফরাসের মতো একাধিক অপরিহার্য উপাদান। তবে সম্প্রতি একাধিক গবেষণায় তেলাপিয়া মাছের বেশ কয়েকটি ক্ষতিকর দিক সামনে এসেছে। বিজ্ঞানীদের দাবি, এর থেকে হাড়ের ক্ষয়, হাঁপানি এমনকি ক্যান্সারের মতো মরণব্যাধি শরীরে বাসা বাঁধতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) গবেষকদের দাবি, তেলাপিয়া মাছ খেলে ক্যান্সারের ঝুঁকি প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে যেতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি বিভাগের গবেষণায় দেখা গেছে, এশিয়া (যুক্তরাষ্ট্রে আমদানি হওয়া তেলাপিয়া মাছের ৭০ শতাংশই আসে চীন থেকে) আমদানি করা তেলাপিয়া মাছের
আদ্-দ্বীন হাসপাতালে বিনামূল্যে নাক-কান-গলার চিকিৎসা

আদ্-দ্বীন হাসপাতালে বিনামূল্যে নাক-কান-গলার চিকিৎসা

বিনামূল্যে নাক-কান-গলার চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে আদ্-দ্বীন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক হাসপাতাল। সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের কথা বিবেচনা করে শনিবার রাজধানীর পোস্তগোলায় শতাধিক রোগীর চিকিৎসার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এ সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন আদ্-দ্বীন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক। এ সময় আদ্-দ্বীন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ডা. শেখ মহিউদ্দীন, আদ্-দ্বীন ফাউন্ডেশনের মেডিকেল এডুকেশন অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স আনোয়ার হোসেন মুন্সী, আদ্-দ্বীন উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মো. আফিকুর রহমান, বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন মেডেকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. আবু উবায়েদ মহসিন, আদ্-দ্বীন হাসপাতালসমূহের পরিচালক ডা. নাহিদ ইয়াসমিন, আদ্-দ্বীন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক হাসপাতালের পরিচালক ডা. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, উপ-পরিচালক ডা. মাহফুজা জেসমিন উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথির বক্
‘ডায়াবেটিস রোগীর ৪০ শতাংশ কিডনি রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন’

‘ডায়াবেটিস রোগীর ৪০ শতাংশ কিডনি রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন’

কিডনি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন অর রশিদ বলেছেন, ‘ডায়াবেটিস হচ্ছে নীরব ঘাতক। এর মাধ্যমে মানবদেহে জটিল রোগ ধারণ করে। ডায়াবেটিসের কারণে মানুষের কিডনি পর্যন্ত নষ্ট হয়ে যায়। এ রোগে আক্রান্ত ৪০ শতাংশ মানুষ কিডনি রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন।’ শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর মিরপুরে কিডনি ফাউন্ডেশন বাংলাদেশে তিন দিনব্যাপী আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে সেমিনারের উদ্বোধন ঘোষণা করেন তিনি। ডা. হারুন অর রশিদ বলেন, বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত কিডনি রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানবদেহে কিডনি রোগ দেখা দিলে অনেকে বাঁচার আশা ছেড়ে দেন। অথচ উন্নত বিশ্বে ও আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশে (ভারত) কিডনি রোগের উন্নতমানের চিকিৎসা ব্যবস্থা চালু হলেও আমরা অনেক পিছিয়ে রয়েছি। তিনি বলেন, আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ বয়স বাড়লেই ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। তাদের মধ্যে প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষের
দুধ-দইয়ে ক্ষতিকর উপাদান: গবেষণার ফলাফল আমলে নেয়া জরুরি

দুধ-দইয়ে ক্ষতিকর উপাদান: গবেষণার ফলাফল আমলে নেয়া জরুরি

ডেস্ক রিপোর্ট :: সরকারের জনস্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের আওতাধীন ন্যাশনাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির (এনএফএসএল) গবেষণায় উঠে এসেছে কিছু উদ্বেগজনক তথ্য। খোলাবাজারে গাভির যে তরল দুধ বিক্রি হয়, তাতে মাত্রাতিরিক্ত কীটনাশক, সিসা ও নানা ধরনের অ্যান্টিবায়োটিকের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। আরও পাওয়া গেছে আলফাটক্সিন এবং বিভিন্ন অণুজীব। এছাড়া প্যাকেটজাত দুধে পাওয়া গেছে সহনীয় মাত্রার চেয়ে বেশি অ্যান্টিবায়োটিক ও সিসার অস্তিত্ব। শুধু তরল দুধে নয়, সাধারণ দোকান থেকে শুরু করে নামি-দামি প্রতিষ্ঠানের দইয়েও পাওয়া গেছে অতিরিক্ত সিসা ও অণুজীব। এসব ক্ষতিকর উপাদানের উপস্থিতি পাওয়া গেছে গোখাদ্য, গরুর দুধ, প্যাকেটজাত দুধ ও দইয়ের নমুনা পরীক্ষা করে। বলাবাহুল্য, দুধ ও দইয়ের এসব উপাদান জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। বিশেষজ্ঞরদের মতে, মানবদেহে এসব উপাদানের মাত্রাতিরিক্ত প্রবেশ ক্যান্সার, কিডনি ও লিভার বিকল হওয়া এবং অঙ্গ-প্রত্য
যত খুশি ডিম খান, মোটা হবেন না, হার্টও সুস্থ থাকবে

যত খুশি ডিম খান, মোটা হবেন না, হার্টও সুস্থ থাকবে

ডেস্ক রিপোর্ট :: কোনো কোনো গবেষণার আলোকে এক সময় মুরগির ডিমকে হৃদযন্ত্রের জন্য ক্ষতিকর ভাবা হতো। কিন্তু আজকাল এই ডিমকে স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার হিসেবে দেখা হচ্ছে। ডেইলি মেইলে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,  কয়েকটি নতুন গবেষণায় দেখা গেছে, মুরগির ডিম হৃদযন্ত্রের জন্য ভালো তো বটেই, একইসঙ্গে তা ওজন কমানোর জন্যেও সহায়ক। এই গবেষকরা বলছেন, ত্রিশ বছর আগের ডিম ও আজকালকার ডিমের গুণগত মান আর এক নেই। ত্রিশ বছর ধরে পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা গেছে  মুরগির ডিম কোলেস্টেরলের জন্য ক্ষতিকর নয়। আমেরিকার ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন ম্যাগাজিনে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গেছে যারা মুরগির ডিম খান তাদের রক্তচাপ স্বাভাবিক পর্যায়ে রয়েছে। গত বছর আলবার্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন বিজ্ঞানী আবিষ্কার করেছেন যে ডিমের হলুদ অংশের গুরুত্বপূর্ণ ডিএমাইনো অ্যাসিডে ব্যাপক পরিমাণে  অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। দুটি কাঁচা ডিমের হলুদ অ
রক্ত সরবরাহের ল্যাব ঠিক আছে কি না, খোঁজ রাখছি

রক্ত সরবরাহের ল্যাব ঠিক আছে কি না, খোঁজ রাখছি

সরকারি ব্লাডব্যাংক সংস্কারের পাশাপাশি ব্যক্তি মালিকানার যেসব ডায়াগনস্টিক সেন্টার রক্ত সরবরাহ করে তাদের ল্যাব ঠিক আছে কি না- সে বিষয়ে খোঁজ রাখছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন আয়োজিত রক্তদাতাদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছায় রক্তদান কার্যক্রমের প্রধান সমন্বয়ক মাদাম নাহার আল বোখারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হেমাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডাক্তার এ বি এম ইউনুস। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে ব্লাডব্যাংকের অভাব রয়েছে। যেগুলো আছে সেগুলো মানসম্মত নয়। তাই ব্লাডব্যাংকগুলোর অবস্থা ভালো করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি যেসব বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টার রক্ত সরবরাহ করে থাকে, তাদের ল্যাব ঠিক আছে কি না- সে বিষয
গো-খাদ্য ও দুধে ক্ষতিকর কেমিক্যাল!

গো-খাদ্য ও দুধে ক্ষতিকর কেমিক্যাল!

দেশে গো-খাদ্যের শতকরা ৬৯ থেকে ১০০ ভাগে বিভিন্ন ধরনের ক্ষতিকর কেমিক্যাল ব্যবহৃত হচ্ছে। এসব কেমিক্যালের মধ্যে আছে পেস্টিসাইড, ক্রোমিয়াম, টেট্রাসাইক্লিন, এনরোফ্লেক্সাসিন, সিপ্রোসিন ও আলফাটক্সিন। সেই সঙ্গে গাভীর দুধ, প্যাকেট দুধ ও দইয়ে বিভিন্ন পরিমাণে পেস্টিসাইড, টেট্রাসাইক্লিন, সীসা ও বিভিন্ন অনুজীব পাওয়া যায়।   রোববার রাজধানীর জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ন্যাশনাল ফুড সেইফটি ল্যাবরেটরির (এনএফএসএল) আইএসও সনদ অর্জন এবং দুগ্ধ ও দুগ্ধজাত খাবারের মানসম্পর্কিত গবেষণা কাজের ফলাফল প্রকাশনা অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।   স্বাস্থ্য অধিদফতরের সভাপতি প্রফেসর ডা. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (জনস্বাস্থ্য) হাব
জেনে নিন ডেউয়া ফলের উপকারিতা

জেনে নিন ডেউয়া ফলের উপকারিতা

ডেস্ক রিপোর্ট :: এই ফলটি চিনেন? ফলের নামটা জানা, তবে খুব একটা পরিচিত না। বর্ষার এই ফল তেমন জনপ্রিয় না হলেও অসাধারণ ভেষজ পুষ্টিগুণ সম্পন্ন। ভাবছেন কোন ফল? ডেউয়া বা ডেউফল। টক মিষ্টি স্বাদের ডেউয়া ফল কাঁঠালের মতো ছোট ছোট কোষে বিভক্ত। বৃষ্টির মৌসুমে ভর্তা করে খেতে খুবই সুস্বাদু এই ফল। বিশাল আকৃতির ডেউয়া গাছ চিরসবুজ বৃক্ষ। পাতাগুলো বড় এবং খসখসে, অনেকটা ডুমুরের পাতার মতো। এক একটি গাছ ২০-২৫ ফুট উঁচু হয়। এর কাঠ বেশ উন্নত মানের, বড় বড় জিনিসের কাঠামো তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। গাছে ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে ফুল আসে এবং জুন মাসের দিকে ফল পাকতে শুরু করে। ডেউয়া ফলটি গোলাকৃতির, ২-৫ ইঞ্চি চওড়া হয়, পাকলে হলুদ রং ধারণ করে। প্রতিটি ফলের মধ্যে ২০-৩০টি বীজ থাকে। বীজের গায়ের মাংসল অংশটাই খাওয়া হয়। প্রতিটি ফল ২০০-৩৫০ গ্রাম হতে পারে। ডেউয়া গাছ ১০-১৫ মিটার লম্বা হয়। ফল সুস্বাদু এবং উপকারী। ফল কাঁঠালের ন্যায়