ফিচার

কাগজের সাকুলেন্ট

কাগজের সাকুলেন্ট

সাকুলেন্ট হলো এমন কিছু ছোটখাটো গাছ, যেগুলোর পাতা বেশ মোটাসোটা। পানি ধরে রাখতে পারে এ পাতাগুলো।   মাপমতো পাতা কাটা হয়ে গেলে আর চিন্তা নেই। এবার প্রতিটি পাতার এক পাশে প্যাস্টেল দিয়ে লাল কিংবা বাদামি বা হলুদ রং ঘষে দিতে পারো। তারপর পাতাগুলোর প্রান্তগুলো আঙুল দিয়ে সাবধানে ভাঁজ করে নাও।   এবার প্রতিটি পাতার সারির নিচে আঠা দিয়ে একটার ওপর আরেকটা বসিয়ে দাও। বসানোর সময় খেয়াল রাখবে, যাতে একটি পাতার সরাসরি নিচে আরেকটি পাতা না পড়ে। একটু ডানে বা বাঁয়ে যেন থাকে। এর ফলে একটা পাতার আড়ালে আরেকটা পাতা পুরোপুরি ঢাকা পড়বে না।   সাকুলেন্ট বানানো হয়ে গেলে সেটাকে বসাতে হবে একটা ছোটখাটো টবে বা চারকোনা কোনো বক্সে। এর জন্য ব্যবহার করতে পারো বাহারি পেপারওয়েট। অবশ্য চাইলে তুমি নিজেই তৈরি করে নিতে পারো কাগজের মিনি ফুলদানি।
বউয়ের জ্বালায় পালিয়ে দশ বছর জঙ্গলে কাটালেন স্বামী

বউয়ের জ্বালায় পালিয়ে দশ বছর জঙ্গলে কাটালেন স্বামী

ফিচার
স্ত্রীর ভয়ে অনেক পুরুষই কুপোকাত বটে! সংসারের কর্তৃত্ব যখন থাকে স্ত্রীর হাতে তখন পুরুষ বেচারা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে যায় এটাই স্বাভাবিক। এসব কারণে একসময় বিয়ে ভেঙে যায়। তাই বলে স্ত্রীকে ছেড়ে পলায়ন! জগৎ জুড়ে কত যে আজব ঘটনা ঘটে চলেছে তার শেষ নেই। এমনই এক আশ্চর্য ঘটনার জন্ম দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রেরর নাগরিক। তিনি এক বছর, দুই বছর নয় বউয়ের জ্বালা আর যন্ত্রণায় অতিষ্ট হয়ে পালিয়ে ১০ বছর জঙ্গলে কাটিয়েছেন! স্বামী আর স্ত্রীর সম্পর্ক যদি ভালো হয় তাহলে তো কথাই নেই। কিন্তু যদি খারাপ হয় তাহলে ওই সম্পর্কে দুঃখ ছাড়া আর কিছুই থাকেনা। কিন্তু তাই বলে স্ত্রীর কাছ থেকে পালিয়ে যেয়ে ১০ বছর  জঙ্গলে কাটিয়ে দেয়া। এমনটা এর আগে হয়তো কেউ শুনেননি। যুক্তরাজ্যের এক ব্যক্তি বিয়ে করলেন আর বিয়ের পরই তার জীবন নাকি তার স্ত্রী নাজেহাল করে ছাড়েন। ম্যালকম অ্যাপলগেট নামে ওই ব্যক্তি বউয়ের জ্বালায় শেষ পর্যন্ত জঙ্গলে পালিয়ে যান কা
মোবাইল চার্জে রেখে ঘুমে গেল প্রাণ!

মোবাইল চার্জে রেখে ঘুমে গেল প্রাণ!

মোবাইল ফোন চার্জে রেখে ঘুমিয়েছিলেন ২২ বছরের যুবক। একই সঙ্গে মোবাইলের সঙ্গে ইয়ারফোনের সংযোগ দিয়ে সেটি লাগানো ছিল কানে। সেখান থেকেউ বিদ্যুতায়িত প্রাণ গেল যুবকের। সোমবার মধ্যরাতে থাইল্যান্ডের নাখন রাতচ্যাশিমা প্রদেশে এ ঘটনা ঘটেছে।   ওই যুবক রাতে তার কক্ষে ঘুমাতে গিয়ে এ ঘটনা ঘটে। সকালের দিকে পরিবারের সদস্যরা ওই যুবকের কক্ষে প্রবেশ করে বিছানার ওপর নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন। স্বজনরা কক্ষে প্রবেশের প্রায় পাঁচ ঘণ্টা আগেই ওই যুবক মারা গেছেন।   মাত্র কয়েকমাস আগেই থাইল্যান্ডে একটি কারখানার শ্রমিকের প্রাণহানি ঘটে প্রায় একইভাবে। ওই শ্রমিক রাতে মোবাইল ফোন চার্জে রেখে কানে হেডফোন লাগিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিল। পরদিন সকালে তাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।
এখনো যে দেশে বেঁচে আছেন সম্রাট

এখনো যে দেশে বেঁচে আছেন সম্রাট

সম্রাটদের আমল তো অনেক আগেই শেষ হয়েছে। তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে, বর্তমান বিশ্বে কেবল জাপানেই ‘সম্রাট’ পদবী রয়েছে। জাপানের রাজপরিবারই বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো রাজকীয় পরিবার। বিস্তারিত জানাচ্ছেন খায়রুল বাশার-   সম্রাট, সিংহাহন, রাজা, রানী, যুবরাজ শব্দগুলো একবিংশ শতাব্দীর পুঁজিবাদের যুগে, কালের স্রোতে প্রায় হারিয়ে গিয়েছে। আধুনিক রাষ্ট্রব্যবস্থায় ‘রাজার রাজত্বের’ কোন স্থান নেই। প্রজাতন্ত্র, গণতন্ত্র ইত্যাদি ব্যবস্থা রাজকীয় পদ্ধতির স্থান করে নিয়েছে। কিন্তু এরপরও কিছু কিছু দেশে রাজতন্ত্র বিদ্যমান আছে, এরকমই একটি দেশ হলো জাপান।   জাপানের সম্রাটের রাজনৈতিক কোন ক্ষমতা নেই, তবে তিনি দেশের সর্বোচ্চ প্রতীক হিসেবে বিবেচিত হন, অনেকটা ইংল্যান্ডের রানীর মতো। বিশ্বে কোন কোন দেশে রাষ্ট্রপ্রধানকে রাজা বা রানী কিংবা বাদশাহ নামে ডাকা হয়, যেমন- সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ, ইংল্যান্
স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে মামুনের অনন্য উদ্যোগ

স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে মামুনের অনন্য উদ্যোগ

বাংলা সাহিত্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন মাহমুদুল ইসলাম মামুন। সবুজ প্রকৃতি গড়ার স্বপ্ন দেখা এ তরুণ কষ্টার্জিত টাকায় গাছ কিনে বিতরণ করে আসছেন দীর্ঘ ৭ বছর ধরে। এছাড়া পাড়ায়-মহল্লায় বিভিন্ন বয়সী মানুষ জড়ো করে বই পড়ে শোনান। এ জন্য গড়ে তুলেছেন সান্ধ্য পাঠশালা। বিস্তারিত জানাচ্ছেন এস কে দোয়েল-   পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার আজিজনগর গ্রামের সন্তান মামুন। বাবা আজহারুল ইসলাম পঞ্চগড় চিনিকলের অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী। মা মাহমুদা বেগম গৃহিণী। দুই ভাইয়ের মধ্যে মামুন ছোট। তিনি রংপুর কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে বাংলা সাহিত্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ছাত্র জীবন শেষে চাকরি না করে হয়েছেন বই ও গাছের ফেরিওয়ালা। তিনি মনে করেন, উচ্চশিক্ষা নিলেই যে চাকরি করতে হবে, তা নয়। শিক্ষিত মানেই আলোর প্রদীপ। সে আলোর প্রদীপ ছড়াতেই উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি।   হতদরিদ্র, মধ্যবিত্ত শ্রেণির পরিবারের স্ক
যুক্তরাষ্ট্রের ৭ বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডির সুযোগ পেল খায়রুল

যুক্তরাষ্ট্রের ৭ বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডির সুযোগ পেল খায়রুল

যুক্তরাষ্ট্রের সাতটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন বাংলাদেশের খায়রুল ইসলাম। তার গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার গুজাদিয়া। এছাড়া তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইনফরমেশন সায়েন্স অ্যান্ড লাইব্রেরি ম্যানেজমেন্টে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ২০১৫ সালের আগস্টে উচ্চশিক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান।   খায়রুলকে ওয়াশিংটন ডিসির হওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয়, ইন্ডিয়ানা ইউনিভার্সিটি-পুরডু ইউনিভার্সিটি ইন্ডিয়াপোলিস, জর্জিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটি, উয়েনে স্টেট ইউনিভার্সিটি ইন মিশিগান, সাউদার্ন ইলিনইস ইউনিভার্সিটি ইন কারবনডেলে, বোউলিং গ্রিন স্টেট ইউনিভার্সিটি ইন ওহাইয়ো এবং ইউনিভার্সিটি অব মেমপহিস ইন টেনেসিতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।   আমন্ত্রণ সম্পর্কে খায়রুল ইসলাম বলেন, ‘আমার পরিবারের জন্য এটি অনেক বড় খুশির খবর। বলতে গেলে আমি খুশিতে ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। একট
স্বাস্থ্য দিবসে ডা. দেবী শেঠীর ২৩ পরামর্শ

স্বাস্থ্য দিবসে ডা. দেবী শেঠীর ২৩ পরামর্শ

আজ বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস। সারাদেশে পালিত হচ্ছে দিবসটি। স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে প্রথমেই আমাদের হার্টকে সুস্থ রাখতে হয়। সম্প্রতি বাংলাদেশে বিশেষভাবে আলোচিত হয়েছেন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ও সার্জন ডা. দেবী শেঠী। ভারতের নারায়ণা ইনস্টিটিউট অব কার্ডিয়াক সায়েন্সেসের প্রতিষ্ঠাতা তিনি।   হার্ট সুস্থ রাখতে কিছু পরামর্শ দিয়েছেন ভারতের এই চিকিৎসক। স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে জাগো নিউজের পাঠকদের জন্য পরামর্শগুলো তুলে ধরা হলো-   ১. খাবারে আমিষের পরিমাণ বাড়াতে হবে। ২. শর্করা এবং চর্বিজাত খাবার কম খেতে হবে। ৩. একটানা বেশি সময় বসে থাকা যাবে না। ৪. সপ্তাহে অন্তত ৫ দিন আধাঘণ্টা করে হাঁটতে হবে। ৫. ধূমপান পরিহার করতে হবে। ৬. ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। ৭. রক্তচাপ এবং সুগারের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। ৮. শাক জাতীয় নয়, এমন খাবার খাওয়া কমাতে হবে। ৯. ত্রিশোর্ধ্ব সবার নিয়মিত স্বাস্থ্য প
সহস্রাধিক সুবিধাবঞ্চিত শিশুর বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস

সহস্রাধিক সুবিধাবঞ্চিত শিশুর বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস

কেউ প্রতিবন্ধি, কারো বাবা নেই, কারো মা নেই। ওদের আশ্রয় সরকারি আশ্রম। এমন সহস্রাধিক সুবিধাবঞ্চিত শিশুর বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে কেটেছে একটি দিন। গাজীপুরের শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে দিনটি ছিল সম্পূর্ণ ভিন্ন আমেজের। দেশের বিভিন্ন এলাকার দর্শনার্থীর আগমনে পার্কটি মুখরিত থাকলেও দিনটি ছিল শুধুই অনাথ শিশু-কিশোরের। ১ হাজারেরও বেশি অনাথ শিশু-কিশোর আনন্দ, হাসি আর উল্লাসে মেতে ওঠে। এমনকী বিনা পয়সায় পার্কের সব ইভেন্ট ঘুরে দেখার সুযোগ পায়। গত ৩০ মার্চ (শনিবার) সকাল থেকেই সমাজসেবা অধিদফতরের আয়োজনে ঢাকা বিভাগের ১৩টি জেলার ২৯টি সরকারি আশ্রমের সহস্রাধিক শিশুর উল্লাসে মুখরিত ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক।   টাঙ্গাইল সরকারি শিশু সদনের ১০ বছর বয়সী আঞ্জুমান আরা। জন্মের পরই বাবা মারা যান। মায়ের অন্যত্র বিয়ে হয়ে যাওয়ায় আশ্রয় মেলে জেলা শহরের সরকারি আশ্রমে। আগে সরকারিভাবে বিভিন্ন স
ভাইরাল হলো নিঝুম দ্বীপের গায়ে হলুদ!

ভাইরাল হলো নিঝুম দ্বীপের গায়ে হলুদ!

ফিচার
কত ভাবেই তো মানুষ গায়ে হলুদের আয়োজন করে। সেটি কখনো বাড়ির উঠানে, কখনো কোন ঘর সাজিয়ে। আবার কখনো কোন কমিউনিটি সেন্টারে। যার যেমন সামর্থ; তার তেমন আয়োজন। তবে এ আয়োজন যতই আড়ম্বরপূর্ণ হোক, সেটি সাধারণত হয়ে থাকে চার দেয়ালের মধ্যেই। holud-in কিন্তু এতসব আইডিয়া বাদ দিয়ে দূরে কোথাও গিয়ে খোলা আকাশের নিচে হলুদ আয়োজনের চিন্তাটা ব্যতিক্রম নিশ্চয়ই। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে হারিয়ে জীবনের সুন্দর মুহূর্তটি আরও সুন্দর করে রাখার ভাবনাটি প্রকৃতিপ্রেমীর কাছে খুব স্বাভাবিকভাবে ধরা দেয়। হলুদের আয়োজনকে স্মরণীয় করে রাখতে তারা হারিয়ে গিয়েছিলেন প্রকৃতির কাছে। holud অভিজিৎ এবং পূজার হলুদ অনুষ্ঠানের সেই ছবিগুলো সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অভিজিৎ নন্দি ফটোগ্রাফি করেন। প্রকৃতির সঙ্গে তার ভালো বন্ধুত্ব। তার বন্ধুরা মিলে এ ব্যতিক্রমী গায়ে হলুদের আয়োজন করে নিঝুম দ্বীপে। ২৪ মার্চ সেই অনুষ্ঠানে
কানাডার ৫ বিশ্ববিদ্যালয়ে কম খরচে পড়ার সুযোগ

কানাডার ৫ বিশ্ববিদ্যালয়ে কম খরচে পড়ার সুযোগ

উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশি ছাত্রছাত্রীদের প্রথম পছন্দ কানাডা। তাই কানাডায় পড়াশোনা করার জন্য আপনাকে জানতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রয়োজনীয় শর্তাবলী, আবেদনের সময়সূচি, আইইএলটিএস স্কোর, বাৎসরিক টিউশন ফি এবং থাকা-খাওয়ার খরচ ইত্যাদি সম্পর্কে। তাই আজ কম খরচে কানাডার ৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হলো-   ১. আলবার্টা বিশ্ববিদ্যালয় ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিং: ১০১-১৫০ কানাডা র‌্যাংকিং: ৫-৬ প্রতিষ্ঠানের ধরন: পাবলিক ভর্তির গ্রহণযোগ্যতার হার: ৭০% ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা: ৩৭,৮৩০ জন বিদেশি ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা: ৭,৭০০ জন সর্বনিম্ন বাৎসরিক টিউশন ফি: ২০,০০০ কানাডিয়ান ডলার প্রোগ্রাম অফার: ৮৮৮টি প্রধান অনুষদ: ইঞ্জিনিয়ারিং, লিটারেচার, সায়েন্স, ডেন্টাল হাইজিন, ড্রামা, এডুকেশন, ফুড সায়েন্স, ফরেস্ট্রি, আইন, মেডিকেল ল্যাবরেটরি, মেডিসিন ইত্যাদি। অবস্থান: আলবার্টা প্