ধর্ম

হজরত সোলায়মান(আঃ) এর সময় এক ব্যক্তির ঘরের পাশে একটি ছিল একটি গাছ, সেই গাছে ছিল একটি….

হজরত সোলায়মান(আঃ) এর সময় এক ব্যক্তির ঘরের পাশে একটি ছিল একটি গাছ, সেই গাছে ছিল একটি….

ধর্ম
হজরত সোলায়মান (আ.)-এর যুগের একটি ঘটনা। এক ব্যক্তির ঘরের পাশে ছিল একটি গাছ। সেই গাছে ছিল একটি পাখি। পাখিটি যখনই ডিম দিত তখনই লোকটি তা নিয়ে খেয়ে ফেলত। লোকটির অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে একদিন পাখিটি হজরত সুলায়মান (আ.)-এর কাছে নালিশ করল। সুলায়মান (আ.) লোকটিকে ডেকে নিষেধ করে বললেন, আর কোনো দিন যেন এই পাখির ডিম খাওয়া না হয়। এর পরেরবারও লোকটি পাখির ডিম খেয়ে ফেলল। তাই পাখিটি আবার হজরত সুলায়মান (আ.)-এর কাছে নালিশ করল। সুলায়মান (আ.) এক জিনকে নির্দেশ দিলেন- লোকটি আবার যখন গাছে চড়বে, তখন খুব জোরে তাকে ধাক্কা দিয়ে নিচে ফেলে দেবে, যাতে লোকটি কোনো দিন গাছে চড়তে না পারে। এর পর একদিন লোকটি পাখির ডিমের জন্য গাছে উঠতে যাবে, এমন সময় এক ভিক্ষুক এসে হাঁক দিল বাবা! কিছু ভিক্ষা দিন। তখন লোকটি প্রথমে ভিক্ষুককে এক মুষ্টি খাবার দান করল। তারপর শান্ত মনে গাছে থেকে ডিম নামিয়ে খেয়ে ফেলল। পাখিটি আবার সুলায়মান (আ.
বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত

বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত

আসন্ন বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত করা হয়েছে। বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচন ও তাবলীগ জামাতের দু’পক্ষের দ্বন্দ্বের কারণে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গতকাল দুপুরে সচিবালয়ের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাবলীগ জামাতের দুই পক্ষকে নিয়ে বসা বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ধর্মসচিব মো. আনিছুর রহমান ও শোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব মাওলানা ফরীদ উদ্‌দীন মাসউদ। দুই পক্ষের বিদ্যমান দ্বন্দ্ব নিরসনে একটি প্রতিনিধিদলের ভারত যাওয়ার সিদ্ধান্ত হলেও কবে যাচ্ছে সেই তারিখ এখনো নিশ্চিত হয়নি। এ ব্যাপারে ধর্মসচিব মো. আনিসুর রহমান বলেন, চলতি বছরের বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে দুই গ্রুপের দ্বন্দ্ব নিরসন ও নির্বাচনী বছর হওয়ায় ইজতেমা নিয়ে করণীয় ঠিক করাই ছিল বৈঠকের উদ্দেশ্য। বৈঠকে দ্বন্দ্ব নিরসনে সরকার ও দুই গ্রুপের সমন্বয়ে একটি কমিটি করা হয়েছে। যারা অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ভারতে যাবে। মাওলানা ফরীদ উদ্‌?দীন মাসঊদ মানবজমিনকে বলেন, আশা করি বিদ্যমান দ্
২১শে নভেম্বর পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী

২১শে নভেম্বর পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী

ধর্ম
আগামী ২১শে নভেম্বর সারাদেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে। বাংলাদেশের আকাশে শুক্রবার ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে শনিবার থেকে পবিত্র রবিউল আউয়াল মাস গণনা শুরু হবে। শূক্রবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররমস্থ সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান। সভায় ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সকল জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন-এর প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়সমূহ, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর এবং মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করে কমিটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সভায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. খলিলুর রহমান, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মু. আ. হামিদ জমাদ্দার, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম
মহাপাপ

মহাপাপ

ধর্ম
‘যেদিন জাহান্নামের অগ্নিতে তা উত্তপ্ত করা হবে এবং তার দ্বারা তাদের ললাটে, পার্শ্বদেশ ও পৃষ্ঠদেশে দাগ দেয়া হবে। সেদিন বলা হবে, এটাই তা যা তোমরা নিজেদের জন্য পুঞ্জীভূত করতে। সুতরাং তোমরা যা পুঞ্জীভূত করেছিলে তা আস্বাদন করো।’ (আয়াত : ৩৪-৩৫) আয়াতের শানে নুজুল সম্পর্কে অভিমত হচ্ছে, এটি জাকাতে বাধা প্রদানকারীদের প্রসঙ্গে অবতীর্ণ হয়েছে, যখন আল্লাহ তায়ালা পাদ্রি ও সংসারবিরাগীদের অর্থলিপ্সার কথা উল্লেখ করেন, তখন মুসলমানদেরকে সম্পদ সঞ্চয় করা ও সেটার প্রাপ্য আদায় না করার ক্ষেত্রে সতর্ক করে দিয়েছেন। লোভ-লালসা একটি মারাত্মক নৈতিক রোগ তথা পাপ। ওরা টাকা-পয়সা বা অর্থের লোভে শরিয়ত এবং আহাকামে এলাহি পর্যন্ত পরিবর্তন করতে দ্বিধাবোধ করত না। কোরআনে বর্ণিত ওই সব ধর্মবিদ, যাদের বলা হতো, সে যুগের মাশায়েখ উলামা, তারা ছিলেন খ্রিষ্ঠান-ইহুদি। সাধারণ লোকদের মধ্যে তারা নিজেদের নেতৃত্ব, কর্তৃত্ব এবং প্রভুত্ব কায়েম রাখ
নির্মল বিনোদন আত্মাকে পবিত্র করে

নির্মল বিনোদন আত্মাকে পবিত্র করে

ধর্ম
নিঃসঙ্গতা মানবজীবনের অন্যতম সমস্যা। হজরত আদম (আ.)-কে সৃষ্টি করে যখন জান্নাতে রাখা হলো, তখন তিনি একাকিত্ব বা নিঃসঙ্গতার সমস্যায় পড়েন। তাঁর এই সমস্যা সমাধানে আল্লাহ তাআলা হজরত হাওয়া (আ.)-কে সৃষ্টি করেন। শুরু হয় মানবসভ্যতার যৌথ পথচলা। মানুষ সামাজিক জীব, তাই সে নিঃসঙ্গ বা একাকী জীবন ধারণ করতে পারে না। নিষ্পাপ আনন্দ ও বৈধ বিনোদন সুন্নত। বিনোদনের উপায় উপকরণগুলোর প্রায় সবই প্রিয় নবীজি (সা.) ও সাহাবায়ে কেরাম প্রয়োগ ও উপভোগ করেছেন। যেমন: গল্প, কৌতুক, হাস্যরস, খেলাধুলা, কবিতা আবৃত্তি, পদ্য প্রণয়ন, গদ্য পাঠ, সাহিত্য রচনা, সংগীত ইত্যাদি। আমাদের প্রিয় রাসুল (সা.) কুস্তিও লড়েছেন। তৎকালীন আরবের সর্বশ্রেষ্ঠ বীরকে তিনি তিন-তিনবার হারিয়েছেন। মদিনায় যুবকদের শারীরিক কসরত তিনি পর্যবেক্ষণ করতেন। হজরত আয়েশা (রা.)–ও ঘরে বসে তা উপভোগ করেছেন। রাসুল (সা.) বিবি আয়েশা (রা.)-এর সঙ্গে একাধিকবার দৌড় প্রতিযোগিতা কর
মৌলভীবাজারে আল ইসলাহ সভাপতি আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী   হযরত হুসাইন (রা.) এর শাহাদাতের মাধ্যমে হক জিন্দা হয়েছে

মৌলভীবাজারে আল ইসলাহ সভাপতি আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী হযরত হুসাইন (রা.) এর শাহাদাতের মাধ্যমে হক জিন্দা হয়েছে

বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র সভাপতি আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী বলেছেন কারবালায় হযরত হুসাইন (রা.) ও ইয়াযিদের মধ্যকার দ্বন্দ্ব ছিলো দুই ইজমের দ্বন্দ্ব। কারবালার ময়দানে হক ও বাতিলের দ্বন্দ্ব ছিলো। হযরত হুসাইন (রা) এর শাহাদাতের মাধ্যমে সেই হক জিন্দা হয়েছে। হযরত হুসাইন (রা.) এর শাহাদাত প্রত্যাশিত ছিলো। এ সম্পর্কে রাসূল (সা.) ও স্বয়ং হুসাইন (রা.) জানতেন। সবকিছু জানার পরও রাসূল (সা.) মুক্তির দোয়া না করে ধৈর্য ধারণের দোয়া করেছিলেন আর হুসাইন (রা.) দ্বীনের অগ্নি পরীক্ষার সম্মুখিন হয়ে সত্যের পক্ষে ও অসত্যের বিপক্ষে জীবন দিয়েছেন।    মৌলভীবাজারে ‘দ্বীন প্রতিষ্ঠায় আশুরার তাৎপর্য’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শহরের সরকারি স্কুল অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া মৌলভীবাজার টাউন কামিল মাদরাসা শাখার উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সেমিনারে সভাপতি ছিলেন সং
পবিত্র আশুরা আজ

পবিত্র আশুরা আজ

আজ ১০ মহররম, পবিত্র আশুরা। ইসলামের ইতিহাসে শোকাবহ একটি দিন। কারবালার প্রান্তরে ঐতিহাসিক বিয়োগান্তক ঘটনার স্মরণে মুসলিম বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আজ যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ পরিবেশে পবিত্র আশুরা পালিত হচ্ছে। ধর্মপ্রাণ অনেক মুসলমান আজ রোজা রেখেছেন। পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পৃথক বাণী দিয়েছেন। দিনটি উপলক্ষে বিভিন্ন ধর্মীয় ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। আপাতদৃষ্টিতে কারবালার প্রান্তরে বিয়োগান্তক ঘটনার স্মরণে দিনটি পালন করা হলেও ইসলামের ইতিহাসে এ দিনটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য ঐতিহাসিক। কারণ বহু ঐতিহাসিক ঘটনা এদিন সংঘটিত হয়েছিল। তা
ধর্মীয় সুখের তালিকায় বাংলাদেশ ৮৩ তম

ধর্মীয় সুখের তালিকায় বাংলাদেশ ৮৩ তম

ধর্মীয় সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৮৩ তম। আর শীর্ষ তালিকায় রয়েছে কানাড। ধর্মীয় বৈচিত্র্যতা, ধার্মিক জনসংখ্যা, ধর্মীয় স্বাধীনতা, সহনশীলতাসহ বেশ কয়েকটি মানদণ্ডের ভিত্তিতে বিশ্বের সবচেয়ে এই ধর্মীয় সুখী দেশের তালিকা প্রকাশ করা হয়। ১১৫টি দেশকে নিয়ে এ তালিকা তৈরি করে যুক্তরাজ্যভিত্তিক বিলাসবহুল ভ্রমণ পরিকল্পনা সংস্থা ওয়ে ফেয়ারার ট্রাভেল। ওয়ে ফেয়ারার ট্রাভেলের এই তালিকার শীর্ষে থাকা কানাডা ধর্মীয় বৈচিত্র্যতা সূচক ও জীবন-যাপনের মানে সর্বোচ্চ স্কোর ৭ করে পেয়েছে। অন্যান্য পাঁচটি সূচকের চারটিতে ৬ করে এবং ধর্মীয় জনসংখ্যায় পেয়েছে ২। মোট ৪৯ স্কোরের মধ্যে ৪০ পেয়ে শীর্ষে রয়েছে কানাডা। এদিকে দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে ভারত। দেশটি ৩৬ স্কোর নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকলেও বাংলাদেশ এই তালিকায় স্কোর ১৯ পেয়ে রয়েছে ৮৩ তম অবস্থানে। নেপাল ২৭ স্কোর পেয়ে ২৩ তম, শ্র
২১ সেপ্টেম্বর পবিত্র আশুরা

২১ সেপ্টেম্বর পবিত্র আশুরা

বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র মহররম মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। বুধবার থেকে শুরু হবে ১৪৪০ হিজরি। ২১ সেপ্টেম্বর পালিত হবে পবিত্র আশুরা। সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান। ধর্ম সচিব জানান, সকল জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর, মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ও দূর অনুধাবন কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের আকাশে কোথাও নতুন আরবি বছর তথা হিজরি ১৪৪০ সনের পবিত্র মহররম মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। সে হিসেবে মঙ্গলবার জিলহজ মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হবে এবং বুধবার থেকে শুরু হবে নতুন আরবি বছর। ১০ মহরম হচ্ছে ২১ সেপ্টেম্বর। ওই দিন শুক্রবার দেশে পবিত্র আশুরা পালিত হবে। ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমানে
হজে মক্কার ইমামের খুতবায় ভুল ধরেছিলেন সিলেটের আল্লামা মুশাহিদ বায়ামপুরী

হজে মক্কার ইমামের খুতবায় ভুল ধরেছিলেন সিলেটের আল্লামা মুশাহিদ বায়ামপুরী

ধর্ম
    আল্লামা মুশাহিদ বায়ামপুরী ১৩২৭ হিজরি মোতাবেক ১৯০৭ সালে মহররম মাসে শুক্রবার দিনে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার বায়ামপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। বায়মপুর বর্তমান কানাইঘাট পৌরসভার অন্তর্গত। তাঁর বাবার নাম কারী আলিম বিন কারী দানিশ মিয়া। আর মাতার নাম হাফেজা সুফিয়া বেগম। তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনি ছিলেন দ্বিতীয়। ছোটবেলায় তাঁর বাবা মারা যান। মায়ের তত্ত্বাবধানে লালিত-পালিত হন। মায়ের কাছেই তাঁর পড়াশোনার হাতেখড়ি। মাত্র সাত বছর বয়সে মায়ের কাছে কোরআন পড়া শিখেন। সঙ্গে বাংলা ও উর্দুও পড়েন।   শিক্ষাজীবন   আল্লামা বায়ামপুরী সাত বছর বয়সে গ্রামের পাঠশালায় ভর্তি হন। কানাইঘাট ইসলামিয়া মাদরাসা, যা বর্তমানে দারুল উলুম কানাইঘাট সেখান থেকে মাত্র ১০ বছর বয়সে তিনি প্রাথমিক পড়াশোনা সম্পন্ন করেন। মাধ্যমিক পর্যায়ের পড়াশোনাও এখানেই সম্পন্ন করে