ধর্ম

গৃহিণীদের কাজে সহযোগিতা করাও ইবাদত

গৃহিণীদের কাজে সহযোগিতা করাও ইবাদত

ধর্ম
পরিবারের নারীদেরকে এই সামান্য সহযোগিতাও ইবাদত। পারস্পরিক সহযোগিতা ও সহমর্মিতা একটি স্বতন্ত্র ও অনেক বড় নেক আমল। আর মাহে রমজানে তো যে কোনো নেক আমলের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অন্য মাসের চেয়ে বেশি। এই মর্মে কোরআন বলছে, “তোমরা সৎকর্ম ও তাকওয়ার ক্ষেত্রে একে অন্যকে সহযোগিতা করবে। গুনাহ ও জুলুমের কাজে একে অন্যের সহযোগিতা করবে না। আল্লাহকে ভয় কর। নিশ্চয়ই আল্লাহর শাস্তি খুবই কঠিন।”(সূরা মায়েদা, আয়াত ২) রমজানে দুপুরের সময়টা খুবই ক্লান্তির সময়। এসময় বড় ধরনের কাজ না থাকলে পরিবারের পুরুষ সদস্যরা একটু আরাম করে থাকেন। নিয়মিত যাদের অফিস করতে হয় তাদের কথা ভিন্ন। কিন্তু এসময়টাতেই নারীদের সবচেয়ে বেশি ব্যস্ততা। ইফতারির আয়োজন থেকে নিয়ে ঘরবাড়ি পরিস্কার করা পর্যন্ত সমস্ত কাজ গৃহিণীকেই দেখতে হয়। রোজার দীর্ঘ উপবাসের কারণে শারীরিক অবসাদ ও ক্লান্তিবোধ পুরুষের যেমন হয় নারীদেরও হয়। এসময় নারীরা অন্যের একটু সাহায্য-সহযোগিতা ও
আজ ইরানে সবচেয়ে ব্যয়বহুল কুরআন উন্মোচন হবে

আজ ইরানে সবচেয়ে ব্যয়বহুল কুরআন উন্মোচন হবে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরানের প্রেসিডেন্ট ডক্টর হাসান রুহানি আজ বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল প্রকল্পে তৈরি পবিত্র কুরআনের সংস্করণটি উন্মোচন করবেন। আগামীকাল সোমবার তেহরানে ২৪ তম আন্তর্জাতিক কুরআন প্রদর্শনীতে এই কুরআন প্রদর্শন করা হবে। এই প্রকল্পের অন্যতম উদ্যোক্তা মেহেরদাদ জান ফাজা জানিয়েছেন, ইরানি শিল্পীদের আকর্ষণীয় ক্যালিগ্রাফি বা শৈল্পিক লিপি ও নক্সা থাকার কারণেই এই কুরআন বিশ্ব ইতিহাসে কুরআনের এক অনন্য ও সবচেয়ে ব্যয়বহুল সংস্করণ হিসেবে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তিনি জানান, কুরআনের কপি তৈরির এই প্রকল্প সম্পন্ন করতে ১৮ বছর লেগেছে এবং এতে খরচ হয়েছে ৬০ বিলিয়ন রিয়াল বা ১৭ লাখ মার্কিন ডলার সমমূল্যের অর্থ (সাড়ে ১৩ কোটি টাকা)। কুরআনের এই অমূল্য সংস্করণটি তৈরির খরচ যুগিয়ে জানা-ফাজা’র পরিবার। এই কুরআনের প্রদর্শনীর আয় থেকে অর্জিত অর্থ দাতব্য খাতে এবং ইস্পাহানের একটি ইয়াতিমখানা নির্মাণের কাজে ব্যয় কর
সেহেরি ও ইফতারের ফজিলত

সেহেরি ও ইফতারের ফজিলত

হালাল দ্রব্য দ্বারা নির্দিষ্ট সময়মতো ইফতার করা মহা সওয়াবের কাজ। এ সময় মহান মাবুদের দরবারে রোজাদার ব্যক্তির দোয়া-ফরিয়াদ কবুল হয়। নিজে একাকী ইফতার করায় যেমন সওয়াব রয়েছে তেমনি অন্যদের ইফতার করানোতে আরো বেশি ফজিলত ও পুণ্য রয়েছে। রোজা শব্দটি ফার্সি ও উর্দু ভাষায় ব্যবহার হয়। রোজার আরবী পরিভাষা হলো সাওম। সাওম শব্দের অর্থ বিরত থাকা বা বিরত রাখা। মাহে রমজানুল মোবারকের সঙ্গে যে দুটো বিষয় সরাসরি সম্পর্কিত তার একটি হলো সেহেরি, দ্বিতীয়টি হলো ইফতার। এখানে এ দুই বিষয় নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো। সেহেরি : সেহেরি আরবি শব্দ। অর্থ শেষ রাত, দিবসের পূর্ব মুহূর্তে, দিনের প্রথমাংশসহ ইত্যাদি। ইসলামী শরিয়তের পরিভাষায় মাহে রমজানের রোজা রাখার নিয়তে শেষ রাত বা সুবেহ সাদিকের পূর্ব মুহূর্তের পানাহারকে সেহেরি বলে। সেহেরি খাওয়া সুন্নাত এবং উত্তম কাজ। মহানবী হজরত (সা.) বলেন, ‘হে আমার উম্মতগণ! তোমরা সেহেরি খাবে। কে
কোন দেশে কত ঘণ্টা রোজা

কোন দেশে কত ঘণ্টা রোজা

ডেস্ক রিপোর্ট : বিশ্বব্যাপি পবিত্র রমজান মাস শুরু হয়েছে। কিন্তু সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের সময়ের মধ্যে ব্যবধানের কারণে বিভিন্ন দেশে রোজা পালনে সময়ের তারতম্য রয়েছে। সারাবিশ্বে কোন দেশ কত ঘণ্টা রোজা পালন করছে তার একটি চিত্র তুলে ধরেছে আরব আমিরাতের জাতীয় দৈনিক খালিজ টাইমস। এতে বলা হয়েছে, সবচেয়ে দীর্ঘসময় রোজা পালন করতে হচ্ছে সুইডেন ও ডেনমার্কের মুসলিমদেরকে। অন্যদিকে, সবচেয়ে কম সময় রোজা পালন করছেন আজেন্টিনা ও অস্ট্রেলিয়ার মুসিলমরা। চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক; কোন দেশের মুসলিমরা কত ঘণ্টা রোজা পালন করছেন... ডেনমার্ক : এই দেশের মুসলিমরা সবচেয়ে বেশি সময় ধরে রোজা পালন করছেন। সেহরি খাওয়ার পর থেকে ইফতার পর্যন্ত মোট ২১ ঘণ্টা রোজা পালন করছেন দেশটিতে থাকা মুসলিমরা। আইসল্যান্ড, সুইডেন ও নরওয়ে : এই তিন দেশের মুসলিমদেরকে ২০ রোজা পালন করতে হচ্ছে। নেদারল্যান্ড ও বেলজিয়াম : এই দুই দেশে সাড়ে ১৮ ঘণ্টা র
জেনে নিন যেসব কারণে রোজা মাকরুহ হয়

জেনে নিন যেসব কারণে রোজা মাকরুহ হয়

ধর্ম
►    যদি এমন অসুস্থ হয়ে পড়ে যে রোজা রাখার শক্তি নেই বা রোজা রাখার দ্বারা অসুস্থতা বেড়ে যাবে, তাহলে তার জন্য রোজা না রাখার অনুমতি রয়েছে। তবে হ্যাঁ, যখনই সুস্থ হয়ে যাবে, তখনই তার ওপর রোজা কাজা করে নেওয়া ওয়াজিব। (আপকে মাসায়েল : খ. ৩, পৃ. ২০২) ►     যে ব্যক্তি এমন দুর্বল হয়ে যায় যে রোজা রাখার শক্তি নেই। (আপকে মাসায়েল : খ. ৩, পৃ. ২০৩) ►    এমন ক্ষুধা বা পিপাসা লাগে যে প্রাণ চলে যাওয়ার উপক্রম হয়ে যায়। (আলমগিরি : খ. ১, পৃ. ২০৭) ►     গর্ভধারিণী বা স্তন্যদানকারিণী মহিলা যদি নিজের অথবা নিজের বাচ্চার প্রাণপাতের আশঙ্কা করেন, তাহলে তাঁর জন্য রোজা ভেঙে ফেলা জায়েজ আছে। (আলমগিরি : খ. ১, পৃ. ২০৭) ►     রোজা থাকার কারণে যদি জীবনযাপনের সামগ্রী উপার্জন করতে দুর্বল হয়ে যায়, তাহলে তার জন্য রোজা ভেঙে ফেলার অনুমতি রয়েছে। তবে তা পরে কাজা করে নিতে হবে। তা-ও সম্ভব না হলে ফিদিয়া আদায় করবে এবং প্রতি র
সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি

ধর্ম
ডেস্ক রিপোর্ট : ‘চাঁদ দেখে রোজা রাখ; চাঁদ দেখে রোজা খোল’ রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ হাদিসের আলোকে রোজা রাখা মানে হলো ভোর রাতে সেহরি খাওয়া এবং খোলা মানে হলো সুর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে ইফতার করা।আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে যথা সময়ে সেহরি ও ইফতার করার তাওফিক দান করুন। আমিন।
তারাবিহ নামাজ : যেভাবে পড়বেন

তারাবিহ নামাজ : যেভাবে পড়বেন

ধর্ম
রমজান মাস মুসলিম উম্মাহর জন্য এক মহা অনুগ্রহের মাস। এ মাসের মর্যাদা অন্য মাসের তুলনায় অধিক। এ মাসের গুরুত্বপূর্ণ ইবাদাত হলো তারাবিহ নামাজ। রমজান মাসে বিভিন্ন মসজিদে মহল্লায় তারাবিহ নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরিলক্ষিত হয় যে, যে মসজিদে তারাবিহ নামাজ তাড়াতাড়ি হয়, অনেক মুসল্লি সে মসজিদ খুঁজে বের করে সেখানে গিয়েই নামাজ আদায় করে। অথচ তারাবিহ নামাজ ধীর স্থিরভাবে আদায় করাই নিয়ম। প্রতিযোগিতা করে তারাবিহ নামাজ আদায় করা সুন্নাতি নিয়মের পরিপন্থী। তাই আসুন, তারাবিহ নামাজ তাড়াতাড়ি না ধীরস্থির হবে তা জেনে নিই- তারাবিহ তারাবিহ শব্দের অর্থ বিশ্রাম করা। প্রতি চার রাকাআত নামাজ শেষ করে যাতে একটু বিশ্রাম গ্রহণ করা যায় তাই একে তারাবিহ বলা হয়। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের তারাবিহ ছিল অতি দীর্ঘ। এমনকি কিয়াম, রুকু, সিজদা সবাই ছিল খুব লম্বা ও ধীরস্থির। হাদিসে এসেছে- হজরত সাঈর ইবনে ইয়াযিদ রাদি
আজ সোমবার হতে, সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যে রমজান শুরু

আজ সোমবার হতে, সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যে রমজান শুরু

ডেস্ক রিপোর্ট :  সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে রমজান মাস শুরু হচ্ছে সোমবার থেকে। রোববার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি এ তথ্য জানিয়েছে। সাধারণত সৌদি আরবের একদিন পর বাংলাদেশে পবিত্র রমজানের রোজা শুরু হয়। আগামীকাল সোমবারই দেশের চাঁদদেখা কমিটির বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। বৈঠক থেকেই রমজান মাসের শুরুর দিন তারিখ ঘোষণা করা হবে। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় (বাদ মাগরিব) ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেলে নিচের টেলিফোন ও ফ্যাক্স নম্বরে অথবা অন্য কোনো উপায়ে জানানোর জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। টেলিফোন নম্বর: ৯৫৫৯৪৯৩, ৯৫৫৯৬৪৩, ৯৫৫৫৯৪৭, ৯৫৫৬৪০৭ ও ৯৫৫৮৩৩৭। ফ্
সোমবার চাঁদ দেখা গেলে মঙ্গলবার রোজা

সোমবার চাঁদ দেখা গেলে মঙ্গলবার রোজা

ধর্ম
রমজানের রোজা কবে থেকে শুরু হবে তা নিশ্চিত হবে আগামীকাল। বাংলাদেশের আকাশ সীমার কোথাও আগামীকাল (সোমবার) চাঁদ দেখা গেলে মঙ্গলবার থেকে যথাযোগ্য মর্যাদার মাধ্যমে পবিত্র রমজানের রোজা শুরু হবে। এবং সোমবার রাত থেকে তারাবিহ নামাজ আদায় করা হবে। এ উপলক্ষে আগামী কাল সন্ধ্যা ৭টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররামে অবস্থিত ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভা কক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির চাঁদ দেখা পর্যালোচনা বৈঠক বসবে। আগামীকাল (সোমবার) চাঁদ দেখা না গেলে শাবান মাস ৩০ দিন পূর্ণ হবে। পরদিন বুধবার পবিত্র রমজানের রোজা শুরু হবে। সে ক্ষেত্রে আর চাঁদ দেখার আবশ্যকীয়তা থাকবে না। ধর্মপ্রাণ মুসলমানের জন্য আবশ্যকীয় হলো- আগামীকাল থেকেই পবিত্র রমজানকে বরণ করে নিতে এবং তারাবিহ নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নিয়ে রাখা। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে পবিত্র রমজানের রোজা, তারাবিহ, ইবাদাত-বন্দেগি যথাযথ পালনের তাওফিক দান করুন। আমিন।
যে পাহাড়ের পাথর দিয়ে বাইতুল্লাহ নির্মিত

যে পাহাড়ের পাথর দিয়ে বাইতুল্লাহ নির্মিত

ধর্ম
সমগ্র মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ের স্পন্দন, নিরাপদ ও শান্তির সম্মিলনস্থল বাইতুল্লাহ নির্মাণ করে হজরত ইবরাহিম ও হজরত ইসমাইল আলাইহিস সালাম। কোনো কোনো বর্ণনায় এসেছে, একটি মেঘখণ্ড বাইতুল্লাহ`র স্থানে ছায়া ফেলে; হজরত ইবরাহিম আলাইহিস সালাম সে ছায়ার পরিমাপ মোতাবেক কা`বা নির্মাণ করেন। এ কা`বা নির্মাণে হজরত ইবরাহিম আলাইহিস সালাম কোন কোন পাহাড়ের পাথর ব্যবহার করেছেন, তার একটি বর্ণনা তুলে হলো- হজরত ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহ বলেন, ‌হজরত ইবরাহিম আলাইহিস সালাম পাঁচটি পাহাড়ের পাথর দিয়ে বাইতুল্লাহ নির্মাণ করেছেন- ১. তুরে সাইনা; যে পাহাড়ে আল্লাহ তাআলা হজরত মুসা আলাইহিস সালামের সঙ্গে কথা বলেন। ২. তুরে যীতা; ৩. লুবনান (সিরিয়ার একটি পাহাড়); ৪. জুদী (এটি আরব উপদ্বীপের একটি পাহাড়) এবং ৫. হিরা পাহাড়ের পাথর দিয়ে ভিত্তি স্থাপন করেন। হিরা মক্কার একটি পাহাড়। আল্লাহ তাআলা মর্যাদাপূর্ণ পাঁচটি পাহাড়ের পাথর দিয়েই মুস