উলিপুরে ব্রিজ ভোগান্তিতে ১৫ গ্রামের মানুষ

প্রকাশিত:শনিবার, ০২ মে ২০২০ ০৮:০৫

উলিপুরে ব্রিজ ভোগান্তিতে ১৫ গ্রামের মানুষ

 

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) :
কুড়িগ্রামের উলিপুরে একটি ব্রিজের অভাবে চরম ভোগান্তিতে পৌরসভাসহ ২টি ইউনিয়নের প্রায় ১৫ গ্রামের মানুষজন। গত বর্ষা মৌসুমে বুড়িতিস্তা নদীর উপর পাতিলাপুর নামকস্থানে শতবর্ষী ব্রিজটি ভেঙ্গে গেলে চলাচলে দূর্ভোগ পোহাতে হয় ওই এলাকার মানুষজনকে। পরে স্থানীয় লোকজনের উদ্যোগে চলাচলের জন্য বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হলেও তা কয়েক মাস আগে ভেঙ্গে গিয়ে চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে দীর্ঘদিন ধরে এলাকাবাসী পানিতে ভিজে সীমাহীন দূভোর্গে নদী পারাপার করে আসছেন। জনগনের চলাচলের জন্য সাময়িকভাবে বাশেঁর সাঁকো নির্মানের উদ্যোগ নেয় উলিপুর পৌরসভা।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯২৫ সালের উপজেলার পাতিলাপুর গ্রামে তৎকালীন সরকার মানুষের যাতাযাতের জন্য বুড়িতিস্তা নদীর উপর ৩৫ ফুট দৈর্ঘ্যরে একটি ব্রিজ নির্মাণ করেন। দীর্ঘদিন ধরে ঝুঁকি নিয়ে ব্রীজটির উপর দিয়ে যান চলাচল করলেও সম্প্রতি বুড়িতিস্তা নদী খনন করা হলে তা আরো ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যায়। গত বছরের বন্যার পানির তোড়ে ব্রিজটির নীচের মাটি সরে গিয়ে গভীর গর্তের সৃষ্টি হলে ফেøারের পাঁকা অংশ ধসে যায়। পরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিকল্প রাস্তা তৈরি না করেই কোটেশনের মাধ্যমে নিলামে বিক্রি করে ব্রিজটি অপসারণ করেন। ফলে উলিপুর পৌরসভাসহ দলদলিয়া ও থেতরাই ইউনিয়নের মিয়াপাড়া, পাতিলাপুর, ঘাটিয়াল পাড়া, টাপু, কিশোরপুর, অর্জুনসহ ১৫ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ দূর্ভোগের মধ্যে পড়েন। পরে স্থানীয় মানুষের উদ্যোগে বাঁশের সাঁকো তৈরি করে চলাচল করা হয়। কিন্তু সম্প্রতি বাঁশের সাঁকোটি ভেঙ্গে গেলে চরম ভোগান্তিতে পড়ে এলাকাবাসী। স্থানীয় কাউন্সিলর আবুল কাশেমের উদ্যোগে পৌরসভার অর্থায়নে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করে দেয়া হয়।
পৌর মেয়র তারিক আবুল আলা বলেন, ব্রিজের অভাবে ওই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের অসুবিধা ছিল। জনস্বার্থে সেখানে একটি বাঁশের সাঁকো তৈরি করে দেয়া হচ্ছে।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সিরাজুদ্দৌল্লা বলেন, প্রকল্প প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে। অনুমোদন হলে ব্রিজটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হবে।

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •