• ২১ জানুয়ারি, ২০২২ , ৭ মাঘ, ১৪২৮ , ১৭ জমাদিউস সানি, ১৪৪৩

‘কেলেংকারি’ স্বীকার করলেন বরিস, চাইলেন ক্ষমা

newsup
প্রকাশিত জানুয়ারি ১৩, ২০২২
‘কেলেংকারি’ স্বীকার করলেন বরিস, চাইলেন ক্ষমা

নিউজ ডেস্কঃ মদের পার্টিতে যোগদান করেছেন কি না এনিয়ে প্রচণ্ড চাপের মুখে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। অবশেষে স্বীকার করলেন তিনি পার্টিতে যোগদান করেছেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বরিস জনসন স্বীকার করেছেন তিনি সরকারি বাসভবন ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে ‘ব্রিং ইউর ওন বুজ’ বা ‘আপনার নিজের মদ আনুন’ পার্টিতে যোগদান করেছেন। বরিস বলেছেন, তিনি ২৫ মিনিটের জন্য পার্টিতে ছিলেন। আমি বৃটিশ জনগণের কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা প্রার্থী।

বুধবার পার্লামেন্টে বরিস বলেন, আমি বুঝি আমার নেতৃত্বের সরকারকে নিয়ে তারা আমার প্রতি ক্ষুব্ধ, কেননা তারা ভাবছে যখন ডাউনিং স্ট্রিটে নিয়মগুলো যারা তৈরি করে তারাই তা সঠিকভাবে মানছে না।

তবে বিরোধী দল তার পদত্যাগের যে দাবি করেছে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন বরিস।

পার্লামেন্টে বরিস আরো বলেন, আমি ২০২০ সালের ২০ মে ওই গার্ডেনে সন্ধ্যা ৬ টার পর গেছিলাম স্টাফদের ধন্যবাদ দিতে। সেখানে তিনি ২৫ মিনিট অবস্থান করেন বলে জানান এরপর তিনি তার কার্যালয়ে ফিরে যান তার কাজ চালিয়ে যেতে।

বিরোধী নেতা কেইর স্টারমার বলেন, জনসনের এখন অবশ্যই পদত্যাগ করা উচিত এবং জনগণ এখন ভাবে তিনি একজন মিথ্যাবাদী।

২০২০ সালে বরিস জনসন লকডাউন ভেঙ্গে যে পার্টি করেছেন সম্প্রতি ফাঁস হওয়া এক মেইলে এই তথ্য জানা গেছে। বৃটিশ আইটিভি এই মেইল প্রকাশ করে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই পার্টিতে অন্তত ১০০ জনকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। তবে সে দিন প্রায় ৪০ জন অংশ নেন। যাদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এবং তার স্ত্রী ক্যারি সিমন্ডসও উপস্থিত ছিলেন। ২০২০ সালের ২০ মে আয়োজন করা হয় ওই পার্টির। সে সময় দেশটিতে একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করা নিষিদ্ধ ছিল।

আইটিভির খবর, দেশটির প্রধানমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল প্রাইভেট সেক্রেটারি মার্টিন রেনল্ডস ডাউনিং স্ট্রিটের ওই পার্টিতে অংশ নিতে ১০০ এর বেশি জনকে মেইল করেন। এসবের মধ্যে রয়েছেন বরিসের উপদেষ্টা, বক্তৃতা লেখক এবং দরজার স্টাফ।

এই সংবাদটি 1,230 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •