খুলে দেয়া হচ্ছে রংপুর চিড়িয়াখানা : আনা হয়েছে নতুন অতিথি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টো ২০২০ ০৮:১০

খুলে দেয়া হচ্ছে রংপুর চিড়িয়াখানা : আনা হয়েছে নতুন অতিথি

জালাল উদ্দিন, রংপুর
করোনা মহামারির কারণে মার্চ থেকে বন্ধ থাকা রংপুর বিনোদন উদ্যান ও চিড়িয়াখানা খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এজন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন ইজারাদাররা। স্বাস্থ্যবিধিসহ বেশ কিছু শর্ত সাপেক্ষে দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হবে রংপুর বিভাগের একমাত্র সরকারি বড় বিনোদন উদ্যানটি।
এদিকে করোনাকালে রংপুর চিড়িয়াখানার কোলাহলমুক্ত সবুজ স্নিগ্ধ পরিবেশে বেশ কিছু প্রাণীর সংখ্যাও বেড়েছে। খাঁচাবন্দি জীবদ্দশায় মানুষের আনাগোনা না থাকায় ফুরফুরে মেজাজে থাকা পশু-পাখির বংশবৃদ্ধিও বেড়েছে । সাথে চিড়িয়াখানায় আরো কিছু নতুন অতিথি আনা হয়েছে। যা বিনোদন প্রেমীদের আরও নজর কাড়বে।
গতকাল রবিবার দুপুরে আজকের বিজনেস বাংলাদেশ এর প্রতিবেদককে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর বিনোদন উদ্যান ও চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর আমবর আলী তালুকদার।
তিনি জানান, রংপুর অঞ্চলের বিনোদন প্রেমীদের জন্য রংপুর চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ ঢাকা চিড়িয়াখানা থেকে নতুন করে বেশ কিছু পশু-পাখি নিয়ে এসেছেন। এর মধ্যে একটি মেয়ে জলহস্তি, তিন জোড়া নীল ময়ূর, এক জোড়া সাদা ময়ূর, বিশটি ওয়াক পাখি (রাত চোরা) আনা হয়েছে। নতুন এসব প্রাণীকে স্ব স্ব খাঁচায় রাখা হয়েছে।
এর আগে ১৭ আগস্ট ঢাকা চিড়িয়াখানা থেকে একটি পুরুষ প্রজাতির জলহস্তি নিয়ে আসা হয়। এই নিয়ে চিড়িয়াখানায় জলহস্তির সংখ্যা দাঁড়ালো তিনে। এর মধ্যে দুইটি পুরুষ ও একটি মেয়ে প্রজাতির। এছাড়াও বর্তমানে রংপুর চিড়িয়াখানায় বাঘ, সিংহ, চিত্রাহরিণ, বানর, গাধা, ঘোড়া, জলহস্তিসহ বিভিন্ন প্রজাতির ২শ’১৩টি পশু/ পাখি রয়েছে।
রংপুর জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঝুঁকি রোধে গত ২০মার্চ থেকে সরকারি এই চিড়িয়াখানাটিসহ জেলার সকল বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ করে দেয়া হয়। বন্ধ থাকার পরও প্রতিদিন চিড়িয়াখানার গেটে অসংখ্য দর্শনার্থীরা ভিড় দেখাগেছে। শিশু-কিশোরদের নিয়ে আসা অভিভাবকরা অনেকেই হতাশা নিয়ে ফিরে যাচ্ছেন।
রংপুর চিড়িয়াখানার ইজারাদার হযরত আলী জানান, মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অনুমতি সাপেক্ষে শিগগিরই রংপুর বিনোদন উদ্যান চিড়িয়াখানা খোলা হবে। এজন্য ৫ অক্টোবর চিঠি দিয়ে ইজারাদারদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে শর্ত সাপেক্ষে খোলার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে রংপুর চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর আমবর আলী তালুকদার বলেন, প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের আদেশ মিললে রংপুর চিড়িয়াখানা খুলে দেয়া হবে। এজন্য গত ২০ সেপ্টেম্বর প্রাণী সম্পদ অধিদফতরের পরিচালকের কাছে চিঠি দেয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো নির্দেশনা আসেনি। তবে চিড়িয়াখানা খোলার জন্য প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

এই সংবাদটি 1,233 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •