চিম্বুকে ‘পাঁচতারা হোটেল প্রকল্প’ বাতিলের দাবিতে লংমার্চ

প্রকাশিত:রবিবার, ০৭ ফেব্রু ২০২১ ০৮:০২

চিম্বুকে ‘পাঁচতারা হোটেল প্রকল্প’ বাতিলের দাবিতে লংমার্চ

 

বান্দরবান প্রতিনিধি
২ ফেব্রুয়ারি ২০২১

বান্দরবানেচিম্বুকপাহাড়েকাপ্রু ¤্রাে পাড়ায়নির্মানাধীনএকটিপাঁচতারা হোটেলপ্রকল্পবাতিলের দাবিজানিয়েছেন ¤্রাে জনগোষ্ঠী। রোববারসকালেচিম্বুকপাহাড় থেকে বান্দরবান জেলাশহরেঅভিমুখেলংমার্চ কর্মসূচিপালনকরে এ দাবিজানানতারা।

রোববারসকাল ৯টার দিকেচিম্বুক-থানচিসড়কেরামরিপাড়া থেকেচিম্বুকবাসীব্যানারেলংমার্চ শুরুহয়। প্রায় ৩০ কিলোমিটারপদযাত্রা শেষে জেলাশহরেরাজারমাঠেএসে শেষ হয়লংমার্চ। সেখানেসংক্ষিপ্তসমাবেশআয়োজনকরেতারা।

লংমার্চে অংশ নেওয়া ক্রাতপুং ¤্রাে জানান, পদযাত্রায়চিম্বুকপাহাড়েনয়মাইল ও শৈলপ্রপাতপর্যটনএলাকায় দুই দফায়পুশিলেবাধারমুখেপরে

সমাবেশেএকটিলিখিত বক্তব্য দেন করেনসিংপাত ¤্রাে। সিংপাত ¤্রাে লিখিত বক্তব্যে অভিযোগকরেবলেন, চিম্বুকেরনাইতংপাহাড়েসিকদারগ্রুপ ও সেনাকল্যাণসংস্থা ‘ম্যারিয়েট হোটেল এন্ড রিসোর্ট’নামেএকটিপাঁচতারা হোটেল ও বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগনিয়েছে।‘‘এরফলেআনুমানিক ১ হাজারএকর ভোগদখীয় ও চাষেরভূমি বেদখলহওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়া ৬টি পাড়াসরাসরি ও ১১৬টি পাড়ারআনুমানিক ১০ হাজারবাসিন্দার ঐতিহ্যবাহীজীবিকা, চাষেরজমি, ফলজবাগান, শশ্মানঘাট ও পানিরউৎসব্যাপকভাবেক্ষতিগ্রস্তহবে।’’

‘‘গত বছর অক্টোবরে জেলাপ্রশাসকেরমাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীবরাবর স্মারকলিপিপ্রদানকরাহয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষেরকাছে কোনধরনেরসাড়ানা পেয়েনভেমম্বরমাসেকালচারাল শোডাউনেরমাধ্যমে প্রতিবাদ জানানোহয়েছে।’’

এরপরও স্থানীয় ¤্রােদের হোটেলনির্মান কর্তৃপক্ষ স্থানীয় ¤্রােদেরনানাভাবেহয়রানিকরাহচ্ছেঅভিযোগকরেসিংপাত ¤্রাে জানান, এ পাঁচতারা হোটেল ও বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণচলছে।

পরেপাঁচ দফা দাবিতুলেধরেনতিনি। দাবিগুলোহলোচিম্বুকেরনাইতংপাহাড়েপাঁচতারকা হোটেল ও বিনোদন কেন্দ্র স্থাপনেরপ্রকল্পবাতিলকরা, প্রতিবাদকারীপাড়াবাসী, জনপ্রতিনিধি, ছাত্রজনতকেহয়রানি ও হুমকিপ্রদানবন্ধকরা, চিম্বুকের ¤্রােদের ভোগদখলীয়ভূমিতে কোনধরণেরপর্যটন কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগগ্রহণবিরত থাকতেহবে, নীলগিরিপর্যটনকেন্দ্র সম্প্রসারনের উদ্যোগগ্রহণকরাযাবেনা ও যে উদ্দেশ্যে চিম্বুকপাহাড়েভূমিব্যবহারকরা হোকনা কেন পাড়াবাসীদের সাথে আলোচনাকরতেহবে।

সমাবেশে রেংচং ¤্রাে বলেন, যে সব মানুষেরপায়েস্যান্ডেলনাই, যে মানুষরাজানেনাশিক্ষাকিজিনিস ও ঠিকমত বেঁচে থাকারজন্য যে সমস্ত মৌলিকউপাদান দরকার। সে মৌলিকঅধিকার থেকে শতবছরবঞ্চিত। তারাআজভূমিরক্ষার আন্দোলনে নেমেছে।

‘‘এ ভূমিঅধিকার আন্দোলনতাদের ন্যায়সঙ্গত। সে আন্দোলনব্যাহতহবেনা। আজীবনচিম্বুকপাহাড়আগলেরাখবেতারা।’’

দশ দিনেরআলটিমেটামদিয়ে রেংচং ¤্রাে বলে, এই সময়েরমধ্যে যদি ইতিবাচক পদক্ষেপগ্রহণনাকরাহয়এবংচিম্বুকবাসীদের দাবি-দাওয়া পদদলিতকরার চেষ্টাকরাহয়। পাড়াবাসীআর থেকে থাকবেনা।তখন কোন শক্তি দিয়েতাদের দমানোযাবেনা।

সমাবেশেসংহতিজানিয়েসংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন বন ও ভূমিঅধিকারসংরক্ষণ আন্দোলনের জেলাসভাপতিজুয়ামলিয়ানআমলাই।

চিম্বুকপাহাড়ে ৪৫টি পাড়াপ্রায় দেড় হাজার ¤্রাে জনগোষ্ঠী এই লংমার্চ কর্মসূচিতে অংশ নেন জানিয়েছেনতারা।

এই সংবাদটি 1,236 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ