‘জঙ্গি দমন যুদ্ধের ভেতরেই সমাজতন্ত্রের সংগ্রাম’

প্রকাশিত:রবিবার, ১৫ অক্টো ২০১৭ ১২:১০

‘জঙ্গি দমন যুদ্ধের ভেতরেই সমাজতন্ত্রের সংগ্রাম’

দেশে জঙ্গি দমন যুদ্ধের ভেতরেই সমাজতন্ত্রের সংগ্রাম জারি রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ (একাংশ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

 

তিনি বলেছেন, জঙ্গি থেকে গণতন্ত্রকে নিরাপদ করা আর বৈষম্যের অবসানে সমাজতান্ত্রিক সংগ্রাম চলবে সমানতালে।

 

রোববার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে ‘অক্টোবর সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবে’র শতবর্ষ উপলক্ষে জাসদ আয়োজিত লাল পতাকা সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

 

ইনু বলেন, বৈষম্যের অবসানে সমাজতন্ত্রই একমাত্র পথ। সমাজতন্ত্রই শ্রমিক-কৃষক-গরীব-শোষিত মানুষের মুক্তি সংগ্রামের চিরন্তন দর্শন।

 

স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস টেনে তিনি বলেন, ৩০ লক্ষ শহীদের রক্ত দিয়ে সংবিধানে রাষ্ট্রীয় মূলনীতি হিসাবে সমাজতন্ত্র অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল। কিন্তু সামরিক ও স্বৈরশাসকরা সংবিধান থেকে সমাজতন্ত্র বাদ দিয়ে দেশকে তথাকথিত বাজার অর্থনীতির হাতে তুলে দিয়ে অন্ধকারে ঠেলে দিতে চেয়েছে। শেখ হাসিনার সরকার সমাজতন্ত্রকে পুণরুদ্ধার করে সংবিধানে প্রতিস্থাপিত করেছে। মেহনতী মানুষকে মর্যাদা ফিরিয়ে দিয়েছে।

 

‘এখন দেশে যে বিস্ময়কর উন্নয়ন ঘটছে তার সুফল সাধারণ মানুষের ঘরে পৌঁছাতে হলে সংবিধানের পাতা থেকে সমাজতন্ত্রকে জীবনের পাতায় কার্যকর করতে হবে, তবেই বৈষম্যের অবসান ঘটবে’।

 

জাসদের ঢাকা মহানগর সমন্বয়ক মীর হোসাইন আখতারের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, হাবিবুর রহমান শওকত, আফরোজা হক রীনা, নুরুল আখতার, নাইমুল আহসান জুয়েল, রোকনুজ্জামান রোকন, শফিউদ্দিন মোল্লা, শহীদুল ইসলাম, মাইনুর রহমান, মহিবুর রহমান মিহির, মাহবুবা আক্তার লিপি, মীর্জা আনোয়ারুল হক প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে লাল পতাকায় সুসজ্জিত জাসদের বর্ণাঢ্য মিছিল নগরীর রাজপথ প্রদক্ষিণ করে জিরো পয়েন্টে গিয়ে সমাপ্ত হয়।

 

এই সংবাদটি 1,226 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ