• ২১ জানুয়ারি, ২০২২ , ৭ মাঘ, ১৪২৮ , ১৭ জমাদিউস সানি, ১৪৪৩

ধর্মনিরপেক্ষ ভারত গড়ার লক্ষ্য মমতার

newsup
প্রকাশিত নভেম্বর ৩০, ২০২১
ধর্মনিরপেক্ষ ভারত গড়ার লক্ষ্য মমতার

এসব লক্ষ্য নিয়ে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর দক্ষিণ কলকাতার বাসভবন কালীঘাট দপ্তরে তৃণমূলের ওয়ার্কিং কমিটির এক বৈঠকে বসেন। বৈঠকের উদ্দেশ্য ছিল দেশব্যাপী তৃণমূলের বিস্তার ঘটানোর লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণ। বৈঠকে তৃণমূল কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির ২১ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। আরও উপস্থিত ছিলেন বিহারের বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশোবন্ত সিনহা, মেঘালয়ের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া মুকুল সাংমা, হরিয়ানার কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া অশোক তানোয়ার, বিহারের সংযুক্ত জনতা দলের পবন বর্মা, ভারতের সাবেক টেনিস তারকা লিয়েন্ডার পেজ প্রমুখ।

এর আগে অবশ্য তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন গোয়ার সাবেক মুখ্যমন্ত্রী লুইজিনহো ফেলেইরো, আসাম কংগ্রেসের সাবেক সাংসদ সুস্মিতা দেবসহ আরও বেশ কজন কংগ্রেস ও বিজেপি নেতা। গতকাল কলকাতায় এসেছেন গোয়ার এনসিপি দলের বিধায়ক আলেমাও চার্চিল। তাঁর আজ মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূলে যোগদানের কথা রয়েছে।

এই বৈঠকে মমতা জানিয়ে দেন তৃণমূল এখন বড় হচ্ছে। বৈঠক সূত্র জানায়, বৈঠকে মমতা বলেন, ‘দেশের মানুষ এখন তৃণমূলকে চাইছে। তাই এখন দেশব্যাপী তৃণমূল কংগ্রেসের বিস্তার ঘটাতে আমাদের উদ্যোগী হতে হবে। রাজ্যে রাজ্যে গঠন করতে হবে তৃণমূল কংগ্রেস।’

ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক শেষে তৃণমূলের কেন্দ্রীয় মুখপাত্র ও রাজ্যসভার তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, ‘বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমাদের দলের আরও শক্তি বাড়াতে হবে। দেশব্যাপী তৃণমূলের বিস্তার ঘটাতে হবে। দল এখন বড় হচ্ছে। আমরা গ্রোয়িং পার্টি। ২০২৪ সালে গোটা দেশকে পথ দেখাবে তৃণমূল। ওই বছরই হবে দেশের পরবর্তী লোকসভার নির্বাচন। তাই সর্বদলীয় স্তরে তৃণমূলের শক্তি বাড়ানোর লক্ষ্যে এখন আমাদের দল তৃণমূলকে মাঠে নেমে পড়তে হবে।’

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •