নিউইয়র্কে মামুন’স টিউটরোরিয়ালের শিক্ষার্থী ফাহিন অর্নবের অসামান্য সাফল্য

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ০৬ ফেব্রু ২০২০ ০১:০২

নিউইয়র্কে মামুন’স টিউটরোরিয়ালের শিক্ষার্থী ফাহিন অর্নবের অসামান্য সাফল্য

নিউইয়র্কে কমিউনিটির অন্যতম সেরা টিউটরোরিয়াল মামুন’স টিউরোরিয়ালের শিক্ষার্থী ফাহিন অর্নব অসামান্য সাফল্য অর্জন করেছে। ফাহিন অর্নব সপ্তম গ্রেডের গণিত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করেছে। এ বিরল কৃতিত্বের জন্য সে পুরষ্কার হিসেবে পেয়েছে ল্যাপটপ, ট্রফি এবং ১৫০ ডলারে চেক। ছেলের অসাধারণ সাফল্যে আবেগ আপ্লুত অর্নবের বাবা-মা। ছেলে ফাহিন অর্নবের অসাধারণ সাফল্যের সে সুখবর জানাতে ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে তার বাবা সম্প্রতি এসেছিলেন মামুন’স টিউরোরিয়ালে। ছেলের এ সাফল্যের জন্য অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানান এর নেপথ্য কারিগর প্রফেসার শেখ আল মামুনকে। বাবা বললেন, এ অনুভূতি ভাষায় ব্যক্ত করার মতো নয়। তিনি শিক্ষা প্রদানে মামুন’স টিউটোরিয়ালের ভুমিকার প্রশংসা করে বলেন, তার ছেলের এ কৃতিত্বের জন্য মামুন’স টিটোরিয়ালের অবদান অনস্বীকার্য। অর্নবের বাবা মামুন’স টিটোরিয়ালকে সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, অর্নব কঠোর অধ্যাবসায়ী। পড়াশোনায় অত্যন্ত মনোযোগী। টিউরোরিয়ালের কর্নধার শেখ আল মামুনও উষ্ণ অভিনন্দন জানান তাদের। এসময় অর্নব জানাল তার সাফল্যের পেছনে বাবা-মা এবং মামুন’স টিউটোরিয়ালের ভূমিকার কথা। বললো মামুন’স টিউটোরিয়ালের টিচাররা যতœসহকারে পড়িয়েছেন। তাই ভাল ফলাফল সম্ভব হয়েছে।
মামুন’স টিউরোরিয়ালের কর্নধার শেখ আল মামুন বলেন, অর্নব তার টিউটোরিয়ালের নিয়মিত ছাত্র। সে খুবই হার্ড ওয়ার্কিং। ফলো করেছে আমাদের সকল গাইড লাইন। তাই আশানুরূপ সাফল্য পেয়েছে।
তিনি বলেন, এ কৃতিত্ব ছাত্র এবং তার অভিভাবকদের। আমরা শুধু গাইড লাইন দিয়ে যাই। সময়োপযোগী ও আধুনিক শিক্ষার মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থীর সর্বোচ্চ মেধা বিকাশের চেষ্টা করি। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় যাতে তারা সফল হতে পারে। ছেলে-মেয়েদের পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করতে নিয়মিত পড়া-শোনা, হোমওয়ার্ক করার পরামর্শ দেন তিনি।
শেখ আল মামুন জানালেন, প্রত্যেক বছর জানুয়ারীর শেষ সপ্তাহে সপ্তম গ্রেডের গণিত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। তীব্র প্রতিযোগিতামূলক এ পরীক্ষায় ৫০টি প্রশ্ন থাকে। এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হয় ডিসেম্বর মাসে।

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •