নেপালে বাংলাদেশের বক্তা কিশোর তানযীল

প্রকাশিত:শুক্রবার, ০৬ অক্টো ২০১৭ ০১:১০

নেপালে বাংলাদেশের বক্তা কিশোর তানযীল

বাংলাদেশের বন্দরনগরী চট্টগ্রামের ছেলে তানযীল রশীদ। গত ১ সেপ্টেম্বর অংশগ্রহণ করেছিলেন আন্তর্জাতিক কিশোর সম্মেলনে। নেপালের রাজধানী কাঠমুন্ডুর পাঁচ তারকা হোটেল সল্টি ক্রাউনি প্লাজায় বিশ্বের ১২টি দেশের কিশোরদের সাথে বসার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি।

 

তানযীল রশীদ উপস্থিত কিশোরদের শোনালেন তার গল্প, চিন্তা-ভাবনা, তুলে ধরলো মাতৃভূমি বাংলাদেশকে। কেননা আন্তর্জাতিক কিশোর সম্মেলন ২০১৭ তে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি। প্লোবাল প্রাইভেট লিমিটেডের আয়োজনে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হওয়া আন্তর্জাতিক কিশোর সম্মেলনে উদ্যোক্তা প্যানেলের বক্তা হিসেবে আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন তানযীল।

 

তানযীল রশীদ জানান, আমন্ত্রণ পাওয়ার জন্য সারা বিশ্ব থেকে নিবন্ধন করেছিল ৩২০ কিশোর। কিন্তু সুযোগ পেয়েছিল ১২টি দেশের মাত্র ১২ কিশোর। ইয়ুথ এলায়েন্স ইন্টারন্যাশনালের কো-ফাউন্ডার শাহ ইমতিয়াজ হোসাইনের মাধ্যমে আবেদনের সময় শেষ হওয়ার ৩ ঘণ্টা আগে জানতে পারেন তিনি। তবে প্রথমে খুব ভয়েই ছিলেন আন্তর্জাতিক এমন প্রোগ্রামে নিজেকে তুলে ধরতে পারবেন কি না? সব দ্বিধা কাটিয়ে ইমতিয়াজের পরামর্শে ‘উদ্যোক্তা প্যানেলে স্পিকার ক্যাটাগরি’তে নিবন্ধন করে ফেলেন।

 

 

 

আরও পড়ুন- টার্কি পালনে উদ্যোক্তা মিরাজের সফলতা

তানযীল আরো জানান, বাংলাদেশ থেকে যারা নিবন্ধন করেন; স্কাইপে তাদের ইন্টারভিউ নেওয়া হয়। তারপর তাকে জানানো হয় আন্তর্জাতিক কিশোর সম্মেলনে উদ্যোক্তা প্যানেলের বক্তা হিসেবে তিনি নেপাল যাচ্ছেন।

 

খবর পেয়েই নিজেকে প্রস্তুত করতে শুরু করেন তানযীল। কিন্তু বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় নেপালের টিকিট। যাওয়ার দুই দিন আগে সমস্যার কথা জানান টেন মিনিট স্কুলের চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রধান সানজিদুল আলম সিবান শানকে। শুনে তিনি ব্যবস্থা করে দেন টিকিটের। সে জন্য তার প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানান তানযীল।

 

অনুষ্ঠানে তানযীলকে কয়েকটি প্রশ্ন করা হয়। সেগুলোর উত্তর দিয়ে নিজের দেশকে প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি। অনুষ্ঠানের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে তানযীল রশীদ বলেন, ‘সেখানে কথা বলার সুযোগ পাওয়া খুবই গর্বের বিষয়। এছাড়া অন্য দেশের মানুষের সঙ্গে এবারের ঈদ উদযাপনে নতুন মাত্রা যুক্ত হয়েছে। বিশ্বের ট্যালেন্টেড কিশোরদের সঙ্গে মেলবন্ধনটা কাজের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ভবিষ্যতে সুযোগ পেলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশকে আরও তুলে ধরার চেষ্টা করবো।’

 

 

 

তানযীল রশীদ নবম শ্রেণিতে পড়াকালীন ডিবেটিংয়ে যুক্ত হন। কলেজিয়েট স্কুল ডিবেটিং সোসাইটির পর ডিবেটিং ক্লাব অব মহসিন কলেজের হয়ে বিভিন্ন বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া এই কিশোর প্রতিষ্ঠা করেন ‘অগ্রগ্রাহী’ নামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এছাড়াও কর্ণফুলী রেজিমেন্টে ক্যাডেট হিসেবে প্রশংসা এবং জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। তিনি বার্ষিক ক্যাম্পে নিজের ৪টিসহ বিতর্ক, পাবলিক স্পিকিংয়ে মোট ৭টি পদক লাভ করেন।

 

এই সংবাদটি 1,230 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •