পৃথিবীর শেষ রাস্তা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ১৮ নভে ২০২১ ০১:১১

পৃথিবীর শেষ রাস্তা

নিউজ ডেস্কঃ বরফে ঢাকা দীর্ঘ এক পথ। পৃথিবীর রাস্তা এখানে শেষ। এরপর আর যাওয়া যাবে না। নরওয়েতে অবস্থিত ‘দ্য লাস্ট রোড অফ দ্য ওয়ার্ল্ড’ বলে তার পোশাকি নাম ‘ই সিক্সটিনাইন হাইওয়ে’।

পৃথিবীর শেষ রাস্তা ই সিক্সটিনাইন হাইওয়ে অবস্থিত উত্তর গোলার্ধে অর্থাৎ নিরক্ষরেখার উপরের দিকে। এ পথের সৌন্দর্য মনোমুগ্ধকর। শীতকালে তাপমাত্রা এখানে বছরের ছ’মাস দিন ছ’মাস রাত্রি।  এ অঞ্চলে অনেক সময় তাপমাত্রা মাইনাস ৪৩ ডিগ্রি পর্যন্ত নেমে যায়। গ্রীষ্মকালে তাপমাত্রা শূন্য ডিগ্রির আশেপাশে থাকে।

এই রাস্তাটি উত্তরমেরুর সঙ্গে নরওয়েকে যুক্ত করেছে। অপূর্ব প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর একটি দেশ নরওয়ে। সারা পৃথিবী থেকে মানুষ উত্তর মেরু দেখতে আসেন। এ যেন এক ভিন্নতর জগৎ। অস্তমান সূর্য এবং মেরুজ্যোতির সৌন্দর্যে মুগ্ধ হন মানুষ। গাঢ় নীল আকাশে সবুজ এবং গোলাপি আলোর খেলা!

উত্তর মেরুর গা ঘেঁষে চলে গেছে এই পথটি। আর এই পথটি উত্তর ইউরোপের নর্ডক্যাপকে সংযুক্ত করেছে নরওয়ের ওল্ডারফিউওর্ড গ্রামের সঙ্গে। ইউরোপের ই সিক্সটিনাইন হাইওয়ে বা পৃথিবীর শেষ রাস্তাটি অবস্থিত নরওয়েতে। ই সিক্সটিনাইন পেরোতে গেলে পাঁচটি টানেল পেরোতে হয়। এগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দীর্ঘ টানেলটির নর্থ কেপ-এর দৈর্ঘ্য ৬.৯ কিলোমিটার। আর এটি গিয়ে পৌঁছোয় সমুদ্রতলের প্রায় ২১২ মিটার নীচে।

১২৯ কিমি দীর্ঘ এক হাইওয়ের অংশ এটি। এর পর আর কোনও রাস্তা নেই। এর পর শুধুই বরফ আর সমুদ্র। অর্থাৎ সড়কপথে আপনি এর পর আর যেতে পারবেন না। নরওয়ের ই সিক্সটিনাইন রাস্তাটি ১৪ কিমি দীর্ঘ। তবে এই রাস্তায় কারও একা যাওয়ার অনুমতি নেই। একাধিক ব্যক্তি একসঙ্গে এই রাস্তায় যেতে পারবেন। এই রাস্তায় বেশিরভাগটাই বরফের চাদরে মোড়া। ফলে চারপাশ অনেকটা একইরকম দেখতে। তাই রাস্তা হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা বেশি। সেই জন্যই এই রাস্তায় কারও একা যাওয়ার অনুমতি নেই।

এই সংবাদটি 1,228 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •