ফুলতলা থেকে বুষ্টার পাম্পের মাধ্যমে ভূগর্ভস্থ পানি নেয়ার প্রতিবাদে পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির স্মারকলিপি

প্রকাশিত:শনিবার, ২৪ এপ্রি ২০২১ ০৭:০৪

ফুলতলা থেকে বুষ্টার পাম্পের মাধ্যমে ভূগর্ভস্থ পানি নেয়ার প্রতিবাদে পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির স্মারকলিপি

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি
খুলনা ওয়াশা কর্তৃক ফুলতলা থেকে ভূগর্ভস্থ পানি পাইপ যোগে টেনে নেয়ার প্রতিবাদে ফুলতলা উপজেলা পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির উদ্যোগে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিক্ষোভ মিছিল সহকারে ইউএনও সাদিয়া আফরিন এবং ওজোপাডিকো’র আবাসিক প্রকৌশলী উৎপল চন্দ্র দে এর নিকট স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। প্রদত্ত স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয় ফুলতলার চৌদ্দমাইল থেকে পথের বাজার এলাকা পর্যন্ত ২০টি বুষ্টার পাম্পের মাধ্যমে দৈনিক ১ কোটি গ্যালন ভূগর্ভস্থ সুপেয় পানি খুলনা মহানগরীতে নিয়ে গেলে ফুলতলা এলাকায় মরুকরণের সৃষ্টি হবে। ফলে এ এলাকায় কৃষি, মৎস্য, নার্সারীতে বিরুপ প্রভাব তথা জনজীবন বিপন্ন হবে । এছাড়া ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাওযায় ইতোমধ্যে অনেক নলকুপ অকেজো হয়ে পড়েছে বলে স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়। বুষ্টার পাম্প চালুর জন্য ইতোমধ্যে গত ২৫ জানুয়ারী পথের বাজার, দামোদর হাইস্কুল ও মসজিদ এলাকায় ১৫ কিলোওয়ার্ট এর বৈদ্যুতিক সংযোগ দেয়া হয়েছে বলে বিদ্যুৎ অফিস সূত্র জানিয়েছে।
স্মারকলিপি প্রদানের পুর্বে স্থানীয় আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে উপজেলা পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির আহবায়ক কম. আনছার আলী মোল্যার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেন। সদস্য সচিব সরদার শাহাবুদ্দিন জিপ্পীর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আসলাম খান, মৃনাল হাজরা, আবু তাহের রিপন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কে এম জিয়া হাসান তুহীন, ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মাদ ভূঁইয়া শিপলু, কামরুজ্জামান নান্নু, প্রেসক্লাব সভাপতি তাপস কুমার বিশ্বাস, উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি শামসুল আলম খোকন, সাংবাদিক শেখ মনিরুজ্জামান, মোঃ নেছার উদ্দিন, ওয়ার্কার্স পার্টি নেতা মাষ্টার সন্দিপন রায়, আরিফুজ্জামান বাবলু, আঃ মজিদ মোল্যা, প্রভাষক গৌতম কুন্ডু, রেজোয়ান রাজা, ইসমাইল হোসেন বাবলু, শেখ আনছার আলী, আঃ রউফ, ডাঃ সরোজ কুমার সুর, মুক্তিযোদ্ধা সুবোধ কুমার বসু, নূর হোসেন, শাহিনুর আলম প্রমুখ।

এই সংবাদটি 1,231 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •