বস্ত্র খাতে প্রণোদনা বাড়াতে হবে

প্রকাশিত:শুক্রবার, ৩০ এপ্রি ২০২১ ০৬:০৪

বস্ত্র খাতে প্রণোদনা বাড়াতে হবে

সম্পাদকীয়:

আসন্ন ঈদে শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও বোনাস প্রদান এবং করোনার নেতিবাচক প্রভাব মোকাবিলায় সহজ শর্তে ছয় হাজার কোটি টাকার ঋণ চেয়েছেন বস্ত্র ও পোশাক খাত শিল্পমালিকরা।এ বিষয়ে ইতোমধ্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন তিন ব্যবসায়ী নেতা। উল্লেখ্য, গত বছর করোনার নেতিবাচক প্রভাব মোকাবিলার লক্ষ্যে রপ্তানিমুখী শিল্প খাতের শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধে সরকারের পক্ষ থেকে এ খাতের শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোকে দুই দফায় সর্বমোট আট হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দেওয়া হয়েছিল এবং এতে সার্ভিস চার্জ নেওয়া হয়েছিল মাত্র ২ শতাংশ। গত বছরের চেয়ে এবার পরিস্থিতি বেশি জটিল। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের অভিঘাতে একদিকে শিল্প-কারখানার উৎপাদন ব্যয় যেমন বেড়েছে; অন্যদিকে বিদেশি ক্রেতারা করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের শিকার হয়ে পণ্য বিক্রি করতে না পারায় রপ্তানিকৃত পণ্যের কোনো বিলও দেশে আসছে না। এর ফলে রপ্তানিকারকরা স্বভাবতই রয়েছেন আর্থিক সংকটে। এ অবস্থায় শিল্প-কারখানা চালু রাখার স্বার্থে আসন্ন ঈদুলফিতরের আগে শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-বোনাস দিতে জরুরি ভিত্তিতে গত বছরের মতো একই শর্তে ও সুদে অর্থের জোগান দেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করি আমরা।

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •