বাংলাদশে হাইকমশিন কানাডার উদ্যোগে ক্যালগরেতিে বাংলাদেশ-কানাডার দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বিষয়ক সেমিনার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ২৭ আগ ২০২০ ০৮:০৮

বাংলাদশে হাইকমশিন কানাডার উদ্যোগে ক্যালগরেতিে বাংলাদেশ-কানাডার দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বিষয়ক সেমিনার

বাংলাদেশ হাই কমিশন, অটোয়া, কানাডার উদ্যোগে আলর্বাটা প্রদেশের ক্যালগরেতিে অভিজাত ফাহাদ রস্টেুরন্টেরে ব্যাংকুয়টে হলে বাংলাদেশ ও কানাডার আলর্বাটা প্রদেশের মধ্যে দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি বিষয়ক সেমিনার ২১ আগস্ট অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারের মূল প্রতিপাদ্য ছিল “Bangladesh:Your Destination for Investment and Trade”। সেমিনারে কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর হাই কমিশনার জনাব মিজানুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জাসরাজ সিং হালান, এম পি, ক্যালগেরি, ড. আনিস হক, অধ্যাপক, প্রকৌশল অনুষদ, ক্যালগেরি বিশ্ববিদ্যালয়, ড. তাসফিন হোসেন, সহকারী অধ্যাপক, বিসেট স্কুল অব বিজনেস, মাউন্ট রয়েল ইউনিভার্সিটি, মোঃ রশিদ, প্রেসিডেন্ট, ডাঃ গুলশান আক্তার, ভাইস-প্রেসিডেন্ট, জয়ন্ত বসু, সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশ-কানাডা এসোসিয়েশন অব ক্যালগেরি। মোঃ শাকিল মাহমুদ, কাউন্সেলর, বাণিজ্যিক এর সঞ্চালনায় অত্র প্রদেশের ব্যবসায়ী, উদ্যোক্তা, চিকিৎসক, আইনজীবী, প্রকৌশলী ও বিভিন্ন পেশার ব্যক্তিবর্গ এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক কর্মীগণ এ সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন।
সেমিনারের শুরুতেই বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও উন্নয়নের চিত্র, বিনিয়োগ ইত্যাদির উপর একটি প্রামাণ্য ভিডিও চিত্র পরিবেশিত হয়। অতঃপর কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মিজানুর রহমান তাঁর স্বাগত বক্তব্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে এবং বাংলাদেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরিত করার লক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন-২০২১ ও ভিশন-২০৪১ সম্পর্কে এবং বিগত ১১ বছরের চলমান বাংলাদেশের ধারাবাহিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের চিত্র সভায় উপস্থিত সকলের নিকট তুলে ধরেন| তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ বিরাজ করছে এবং বিনিয়োগ বান্ধব র্বতমান সরকার বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণে বিনিয়োগকারীদের জন্য যে সকল প্রণোদনা ও সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে সে বিষয়েও তিনি বিস্তারিত তুলে ধরেন। বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে আলর্বাটা প্রদেশের বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের জন্যও তনিি আহ্বান জানান। খনজি সম্পদ, জ্বালানি ও গ্যাস, ভৌত অবকাঠামো, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, ঔষুধ, ক্ষুদ্র ও মাঝারি ধরণের ইঞ্জিনিয়ারিং যন্ত্রাংশ, তথ্য-প্রযুক্তি, সফটওয়্যার, শক্ষিা, স্বাস্থ্য, কৃষি ইত্যাদি বিষয়ে এ প্রদেশের সাথে বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণজ্যি সম্প্রসারণের জন্য উভয় দশেরে ব্যবসায়ীদরে এগয়িে আসার জন্য তিনি অনুরোধ করেন।
আলর্বাটা প্রদেশ, ক্যালগেরির সাংসদ জাসরাজ সিং হালান এম পি, তাঁর বক্তব্যে বলেন, বর্তমানে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সারা বিশ্বব্যাপী ব্যবসা-বাণিজ্যে বিরূপ প্রভাব পড়েছে। এ সময়ে তিনি দু’দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় করে তোলার আহ্বান জানান। সেমিনারে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেসনের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও আলর্বাটা প্রদেশের মধ্যে দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য ও বনিয়িোগ সম্পর্কিত তথ্যাদি উপস্থাপন করনে হাই কমিশনের কাউন্সেলর (বাণিজ্যিক) মো: শাকিল মাহমুদ। অধ্যাপক আনিস হক তাঁর উপস্থাপনায় বলেন, শিক্ষা খাতে বিনিয়োগ দীর্ঘমেয়াদি সফলতা বয়ে আনতে পারে। বাংলাদেশ এবং কানাডার সোলার এনার্জির দ্রুত প্রসারের কথা মাথায় রেখে বাংলাদেশে সোলার সেল ম্যানুফ্যাকচার করার কোন প্লান্ট যৌথ উদ্যোগে তৈরি করা যায় কিনা সে বিষয়েও তিনি আলোকপাত করেন। ড. তাসফিন হোসেন তাঁর উপস্থাপনায় তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ে বাংলাদেশের কারিগরি এবং আই টি সেক্টরের শিক্ষার মান, সফলতা এবং বাংলাদেশে আই টি সেক্টরে বিনিয়োগের অপার সম্ভাবনা চিত্র তুলে ধরেন। ক্যালগেরির আলবার্টা প্রদেশের অংশগ্রহণকারীদের মধ্য হতে বিশিষ্ট সংগঠক বিনয় দে এবং উদ্যোক্তা জনাব পুনেট করন সিং ঠাগগুর তাদের উপস্থাপনায় এ প্রদেশে ব্যবসা-বাণিজ্যের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার কথা তুলে ধরেন। ডাঃ গুলশান আক্তার তাঁর উপস্থাপনায় কানাডাতে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের চিকিৎসা বিষয়ে অধ্যায়ন ও কর্মক্ষেত্রের সম্ভাবনার বিষয়ে আলোচনা করেন। মোঃ রশিদ তাঁর বক্তব্যে প্রবাসী বাংলাদেশীদের এ ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। সেমিনারের শেষ পর্যায়ে প্রশ্নোত্তর পর্বে বক্তাগণ অংশগ্রহণকারী অতিথিদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন। সেমিনার শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি ঘটে।

এর পাশাপাশি বাংলাদেশ হাইকমিশন অটোয়া, কানাডার উদ্যোগে আলবার্টা প্রদেশের ক্যালগেরিতে বাংলাদেশ সেন্টার, ওয়েস্ট উইন্ডস এ মোঃ সাখাওয়াৎ হোসেন, কাউন্সেলর (পাসপোর্ট ও ভিসা)  এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ হাইকমিশনের কনস্যুলার টিম প্রবাসী বাংলাদেশীদের জন্য তিন দিনব্যাপী কনস্যুলার সেবা প্রদান করেন। আর এ সেবা গ্রহণে প্রবাসীদের মাঝে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা পরিলক্ষিত হয়। সার্বিক সেবা কার্যক্রমে সকলেই সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

এই সংবাদটি 1,228 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •