বাংলাদেশ থেকেই ঘুরে আসুন কাঞ্চনজঙ্ঘা

প্রকাশিত:রবিবার, ০৭ নভে ২০২১ ০৮:১১

বাংলাদেশ থেকেই ঘুরে আসুন কাঞ্চনজঙ্ঘা

দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের সীমান্তবর্তী তেঁতুলিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিবারের মতো এবারও খালি চোখে কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ সৌন্দর্য দেখা যাচ্ছে। তেঁতুলিয়ার বিভিন্ন এলাকা থেকে ছবির মতো ভেসে ওঠা শুভ্র কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ দৃশ্য ছাড়াও দেখা যাচ্ছে দার্জিলিংয়ের বিভিন্ন পাহাড়ি অঞ্চল। দেশের সীমানা পেরিয়ে যাদের এই পর্বত দেখার সুযোগ হয় না, তারা এ দৃশ্য উপভোগ করতে তেঁতুলিয়ায় ছুটে আসছেন।

দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা মানুষের পঞ্চগড় ভ্রমণের পাশাপাশি কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখার আগ্রহ সেখানকার পর্যটনে নতুন এক মাত্রা যোগ করেছে।

 

তবে শুধুমাত্র তেঁতুলিয়ায় (বাংলাদেশের একমাত্র স্থান) অক্টোবর, নভেম্বর, ডিসেম্বর মাসেই কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখতে পাবেন। তেঁতুলিয়ার ডাকবাংলো থেকে খালি চোখেই দেখা যায় অপরূপ সব দৃশ্য। কাঞ্চনজঙ্ঘা ও হিমালয়ের নাম না জানা দুয়েকটি চূড়ার মিলনমেলা আপনাকে মুগ্ধ করবে।

সকাল ৬টা থেকে ১০টা এবং বিকাল ৪টা থেকে ৫টা এই সময়ে মধ্যে দেখা মেলে কাঞ্চনজঙ্ঘার। আকাশ মেঘাচ্ছন্ন না থাকলে বরফে আচ্ছাদিত শুভ্র পর্বতের সাক্ষী হতে পারবেন।

তেঁতুলিয়ার ডাকবাংলো ছাড়াও জেলার বিভিন্ন ফাঁকা জায়গা থেকে দেখতে পারবেন কাঞ্চনজঙ্ঘা। বাইনোকুলার ছাড়াই খালি চোখে এই সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন। সূর্যের মিহি আলোতে পিরামিড ঢংয়ের হিমালয়ের একটি চূড়ার সঙ্গে কাঞ্চনজঙ্ঘার পরিবর্তিত রূপ আপনাকে মুগ্ধ করবেই। সঙ্গে চারপাশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য থাকবে বোনাস হিসেবে।

পঞ্চগড়ে কাঞ্চনজঙ্ঘা বাদে ঘুরার জন্য আরও কয়েকটি আকর্ষণীয় স্থান রয়েছে। ব্রিটিশ আমলে তৈরি তেঁতুলিয়া ডাকবাংলোতে বসেই ভারতের অংশ দেখতে পাবেন। কাঞ্চনজঙ্ঘার সৌন্দর্য বহুগুণে বাড়িয়ে দেবে রাতের জোছনা। এটি জীবনের সেরা মুহূর্তগুলোর একটি হতে পারে।

 

 

এছাড়া তেঁতুলিয়াতে পাবেন সমতল ভূমির চা বাগান। মহানন্দা নদীর পাড়ে বসে চা খাওয়ার সঙ্গে গলা ছেড়ে গান গাওয়া আর আড্ডার মজাই আলাদা।এর সঙ্গে ভারত ও বাংলাদেশের সীমান্ত নির্ধারণ করে দেওয়া মহানন্দা নদী ও দেখতে পারবেন।

 

ঢাকা থেকে যেভাবে যাবেন

ঢাকা থেকে তিনভাবে যেতে পারবেন। বাস, ট্রেন ও বিমানপথে।

১। রাজধানীর গাবতলি, কল্যাণপুর থেকে নাবিল পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, বরকত ট্রাভেলস পরিবহনের মাধ্যমে পঞ্চগড়, তেঁতুলিয়া ও বাংলাবান্ধায় যেতে পারবেন। ঢাকা থেকে পঞ্চগড় বাস ভাড়া নন এসি ৫৫০ থেকে ৭০০ টাকা এবং এসি ৮০০ থেকে ১৬০০ টাকা।

২। ট্রেনে ঢাকার কমলাপুর থেকে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস, একতা ও দ্রুতযান এক্সপ্রেসে পঞ্চগড় যেতে পারবেন। শ্রেণিভেদে টিকেটের ভাড়া জনপ্রতি ৩৬৫ থেকে ১২৫৪ টাকা।

৩। এছাড়া বিমানে প্রথমে ঢাকা থেকে সৈয়দপুর পরে সৈয়দপুর থেকে প্রাইভেট বা মাইক্রোবাসে পঞ্চগড়ে যেতে পারবেন।

পঞ্চগড় থেকে তেঁতুলিয়া

পঞ্চগড় থেকে তেঁতুলিয়ায় লোকাল বাসের মাধ্যমে যেতে পারবেন। বাস ভাড়া ৫০ থেকে ৬০ টাকা।

খাওয়া ও থাকার ব্যবস্থা

চাইলে তেঁতুলিয়া বা পঞ্চগড়ে থাকতে পারবেন। তেঁতুলিয়া জেলা পরিষদের ডাকবাংলোতে থাকতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অনুমতি নিতে হবে। এখান থেকে সরাসরি কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখা যায়। ডাকবাংলোতে একদিন থাকতে খরচ করতে হবে ৬০০ টাকা। কম খরচে থাকতে চাইলে ডাকবাংলোর পাশে পিকনিক স্পট আছে। সেখানে ৩০০-৫০০ টাকায় রুম ভাড়া পাওয়া যায়। খাবারের জন্য রয়েছে বিভিন্ন হোটেল। তবে খাবারের জন্য বাংলা হোটেল সবচেয়ে পুরনো হোটেল।

কখন যাবেন না

তেঁতুলিয়া থেকে সব সময় কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখা যায় না। সাধারণত অক্টোবরের মাঝামাঝি থেকে নভেম্বরের মাঝামাঝি ব্যতিত অন্য সময় যাবেন না। আকাশে মেঘ ও কুয়াশা থাকলে কাঙ্ক্ষিত সময়েও কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখতে পারবেন না।

এই সংবাদটি 1,228 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •