বাণিজ্যিকীকরণের মাধ্যমে কৃষককের জন্য কৃষিকে লাভজনক খাত হিসেবে গড়ে তুলতে চাই                        ——- কৃষি মন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার, ১০ অক্টো ২০২১ ০৫:১০

বাণিজ্যিকীকরণের মাধ্যমে কৃষককের জন্য কৃষিকে লাভজনক খাত হিসেবে গড়ে তুলতে চাই                        ——- কৃষি মন্ত্রী
মেহেদী হাসান, গাজীপুর :
কৃষি মন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, এমপি, বলেন, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীরা যেভাবে কাজ করে চলেছেন তা জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হচ্ছে। কৃষির সার্বিক উন্নয়ন ও আধুনিকায়নে এই প্রতিষ্ঠান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। কৃষিক্ষেত্রে আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে মানুষকে নিরাপদ ও পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার দিতে চাই। তাই সেটি করতে আমরা কৃষিকে আধুনিকায়ন করতে চাই, কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণে নিয়ে যেতে চাই। কৃষির বাণিজ্যিকীকরণের মাধ্যমে কৃষককের জন্য কৃষিকে লাভজনক খাত হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।
রবিবার দুপুরে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি)’র ‘কেন্দ্রীয় গবেষণা পর্যালোচনা ও কর্মসূচি প্রণয়ন কর্মশালা-২০২১’ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ইনস্টিটিউটের কাজী বদরুদ্দোজা মিলনায়তনে  কৃষিমন্ত্রী কৃষিবিদ ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, এমপি, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এসব কথা বলেন। কর্মশালায় ‘এসডিজি-২০৩০ ও ভিশন ২০৪১ অর্জনে বারি’র গবেষণা কৌশল: একটি রোডম্যাপ’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর মহাপরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলাম। কর্মশালার কারিগরি অধিবেশন ১১, ১২, ১৭, ১৮, ১৯ অক্টোবর ২০২১ দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হবে।
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল (বিএআরসি) এর নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, সাবেক সচিব ও বিএআরসি’র প্রাক্তন নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. জহুরুল করিম।
কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, আমরা গাজীপুরের মানুষ নিজেদের ভাগ্যমান মনে করি কারণ এখানে বারি ও ব্রি’র মতো প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এখানকার বিজ্ঞানীরা ইতোমধ্যে তাদের কাজের মাধ্যমে দেশে ও বিদেশে সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। তারা ফসলের বিভিন্ন উচ্চফলনশীল জাত আবিস্কারের পাশাপাশি বিভিন্ন আধুনিক প্রযুক্তি আবিস্কার করছেন। আমরা সবার কাছে খাবার পৌছে দিতে চাই।
অনুষ্ঠানে সম্মানিত বিশিষ্ট বিজ্ঞানী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বারি’র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক (অব.) ও এমেরিটাস সায়েন্টিস্ট, এনএআরএস, ড. কাজী এম বদরুদ্দোজা। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য এবং বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের গবেষণা কার্যক্রম, সাফল্যের উপর সংক্ষিপ্ত উপস্থাপনা উপস্থাপন করেন বারি’র পরিচালক (গবেষণা) ড. মো. তারিকুল ইসলাম এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন পরিচালক (সেবা ও সরবরাহ) ড. মো. কামরুল হাসান।
এর আগে মাননীয় কৃষি মন্ত্রী এবং মাননীয় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী সহ আগত অতিথিবৃন্দ বারি’র নবনির্মিত উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব ও মৃত্তিকা বিজ্ঞান ল্যাব এবং বারি উদ্ভাবিত বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রদর্শনীর স্টল পরিদর্শন করেন। এছাড়া কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বারি কর্তৃক প্রকাশিত মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে ‘মুজিব শতবর্ষে বিএআরআই’ শীর্ষক স্মরণিকা; ‘Technologies Developed in the Mujib Centenary’ শীর্ষক প্রযুক্তির বই এবং ‘আমের জাত ও আধুনিক উৎপাদন প্রযুক্তি’ শীর্ষক তিনটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ।
কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে কৃষি মন্ত্রণালয়ের এপিএ পুলের সদস্যবৃন্দ, বারি’র অবসরপ্রাপ্ত মহাপরিচালকবৃন্দ, পরিচালকবৃন্দ, মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন পর্যায়ের স্টেকহোল্ডার তথা পলিসিমেকার, জনপ্রতিনিধি, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, নার্সভুক্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, বিএডিসি, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান, সরকারি প্রতিষ্ঠান, এনজিও ও কৃষিসংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং বারি’র বিভিন্ন বিভাগের বিজ্ঞানী/কর্মকর্তাবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

এই সংবাদটি 1,226 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ