ব্যাংকে ভর করে বাড়ল সূচক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টো ২০১৭ ০৬:১০

ব্যাংকে ভর করে বাড়ল সূচক

টানা দরপতনের পর দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক কোম্পানিগুলোর শেয়ার মূ্ল্যে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দিয়েছে। ব্যাংকখাতের কোম্পানিগুলোর শেয়ার দাম বাড়ায় সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার বেশির ভাগ কোম্পানির দরপতনেও মূল্য সূচক বেড়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ।

 

এদিন প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ১৪ পয়েন্ট। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স বেড়েছে ২১ পয়েন্ট। আর ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৭২ কোটি টাকার ওপর এবং সিএসইতে বেড়েছে ৩৭ কোটি টাকার ওপরে।

 

মূল্য সূচক ও লেনদেন বাড়লেও ডিএসইতে যে পরিমাণ কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে তার থেকে বেশিসংখ্যক কোম্পানির শেয়ার দাম। একই অবস্থা সিএসইতে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৫২ শতাংশ এবং সিএসইতে ৫৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের দাম আগের দিনের তুলনায় কমেছে।

 

মূলত ব্যাংকখাতের কোম্পানিগুলোর দাম বাড়ার কারণেই উভয়বাজারে মূল্য সূচক বেড়েছে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ২১টি ব্যাংকের শেয়ার দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে মাত্র তিনটি ব্যাংকের শেয়ারের দাম। আর সিএসইতে মাত্র ১৭টি ব্যাংকের শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে পাঁচটি ব্যাংকের শেয়ার দাম।

 

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়— বৃহস্পতিবার ডিএসইতে মূল্য সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন শুরু হয় এবং দিনের শেষ পর্যন্ত এ ঊর্ধ্বমুখিতা অব্যহত থাকে। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৪ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৩৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১০ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১৮৮ পয়েন্টে অবস্থা করছে। আর ডিএসই শরিহ্ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩২৯ পয়েন্টে।

 

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ১২৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ১৭২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির দাম। লেনদেন হয়েছে ৬০০ কোটি ৭১ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৫২৮ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৭২ কোটি ১৮ লাখ টাকা।

 

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ইফাদ অটোস’র শেয়ার। এদিন কোম্পানির ৪৭ কোটি ৬৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৩২ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২৪ কোটি ৮৬ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে আইডিএলসি।

 

লেনদেনে এরপর রয়েছে আমরা নেটওয়ার্ক, ব্র্যাক ব্যাংক, বিবিএস কেবলস, সিটি ব্যাংক, বিডি ফাইন্যান্স, ট্রাস্ট ব্যাংক এবং শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক।

 

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সিএসসিএক্স সূচক ২১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ হাজার ৩২৯ পয়েন্টে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৬৩ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৫০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৮৯টির দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ১৪০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টির দাম।

 

এই সংবাদটি 1,227 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •