মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করছে চীন: অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

প্রকাশিত:শুক্রবার, ১১ জুন ২০২১ ০২:০৬

মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করছে চীন: অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

নিউজ ডেস্কঃ  চীনে উইঘুরসহ অন্যান্য মুসলিমদের ওপর চালানো নির্যাতনের বিষয়টি আবারও সামনে আনল লন্ডনভিত্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। তারা বলেছে, জিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর ও অন্যান্য মুসলিমদের মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে চীন। সেখানে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে সেখানকার পরিস্থিতি জাতিসংঘকে তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। সংগঠনটি বলেছে, উইঘুর, কাজাখ ও অন্যান্য মুসলিমদের গণহারে আটক করা হচ্ছে, তাঁদের ওপর নজরদারি চালানো হচ্ছে এবং নির্যাতন করা হচ্ছে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মহাসচিব অ্যাগনেস ক্যালামার্ড মনে করেন, চীন সরকার সেখানে একটি ভয়ংকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। তিনি বলেন, চীন তার উদ্দেশ্য সাধনের জন্য সেখানকার জনসাধারণের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে, ভুল বোঝাচ্ছে। এ ছাড়া তাঁদের বিভিন্ন অস্থায়ী শিবিরে নিয়ে ভয়ংকর নির্যাতন চালাচ্ছে। এ ছাড়া লাখ লাখ মানুষের ওপর নজরদারি করছে চীন। ফলে তাঁরা ভয়ের মধ্যে রয়েছেন।

এদিকে চীনের উইঘুরদের রক্ষায় পর্যাপ্ত পদক্ষেপ না নেওয়ায় জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের সমালোচনা করেছেন ক্যালামার্ড। তিনি বলেন, গুতেরেস তাঁর দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছেন।

বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ক্যালামার্ড বলেন, আন্তোনিও গুতেরেস সেখান পরিস্থিতির জন্য চীনের নিন্দা জানাননি। এ ছাড়া সেখানকার পরিস্থিতি জানতে আন্তর্জাতিক তদন্তেরও কোনো আহ্বান জানাননি।

গতকাল বৃহস্পতিবার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ১৬০ পৃষ্ঠার ওই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এ জন্য জিনজিয়াংনে বন্দিশিবিরে একসময় ছিলেন এমন ৫৫ জনের সাক্ষাৎকার নিয়েছে সংগঠনটি।

উইঘুরদের পরিস্থিতি নিয়ে এর আগেও বিভিন্ন সংগঠন প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এর আগে গত এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। তারা বলেছিল, মানবতার বিরুদ্ধে যে অপরাধ সেখানে সংঘটিত হচ্ছে তার জন্য দায়ী চীন সরকার।

এই সংবাদটি 1,229 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •