মিরপুরের উইকেট নিয়ে প্রশ্ন তুললেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক - BANGLANEWSUS.COM
  • নিউইয়র্ক, বিকাল ৩:০১, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


 

মিরপুরের উইকেট নিয়ে প্রশ্ন তুললেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক

newsup
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৯, ২০২৩
মিরপুরের উইকেট নিয়ে প্রশ্ন তুললেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক

নিউজ ডেস্ক: সদ্য শেষ হওয়া মিরপুর টেস্টে হোম কন্ডিশনের সুবিধা নিতে নিজেদের পছন্দের উইকেট তৈরি করেও জিততে পারেনি স্বাগতিক বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

ঢাকা টেস্টের প্রথম দিনে ‍বুধবার পুরো তিন সেশন খেলা হলেও বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনে বৃষ্টির কারণে বল মাঠেই গড়ায়নি। শুক্রবার তৃতীয় দিনে খেলা হয়েছে মাত্র ৩৩ ওভার। শনিবার চতুর্থ দিনে লাঞ্চের ঠিক আগে ১৩৭ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৩৯.৪ ওভারেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড।

বৃষ্টি বৃঘ্নিত ঢাকা টেস্টে দুই দল মিলে খেলেছে মাত্র ১৭৮.১ ওভার। টেস্ট ক্রিকেটে গত ১০০ বছরের ইতিহাসে ন্যূনতম ৩৬ উইকেট পড়েছে, এমন ম্যাচগুলোর মধ্যে বলের হিসাবে এই ম্যাচ তৃতীয় সংক্ষিপ্ততম। ৩৬ উইকেটের মধ্যে মাত্র ৫টি উইকেট পেয়েছেন পেসাররা।

মিরপুর টেস্টে নিউজিল্যান্ড জয় পেলেও উইকেট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন দলটির অধিনায়ক টিম সাউদি।

শনিবার বাংলাদেশকে ৪ উইকেটে হারিয়ে নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টিম সাউদি বলেন, ‘হয়তো আমার ক্যারিয়ারে দেখা সবচেয়ে বাজে উইকেট। ব্যাট ও বলের মধ্যে ভারসাম্যের যে ব্যাপারটা, সেখানে বোলারদের পক্ষেই পাল্লা ভারী ছিল। পুরো ম্যাচে খেলা হয়েছে ১৭৮.১ ওভার, এতেই বিষয়টি পরিষ্কার হয়। সেদিক থেকে আমাদের জন্য এই জয়টা তৃপ্তির।’

সাউদি আরও বলেন, ‘অবশ্যই উইকেট কঠিন ছিল। রান করা খুবই কঠিন ছিল। ওই ছোট ছোট জুটিগুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কন্ডিশনে ভারসাম্য থাকলে ওই ছোট ছোট মুহূর্তগুলো হয়তো চোখে পড়ে না। আমাদের এখানে লড়াই করা, টিকে থাকাটা বেশ সন্তোষজনক ছিল।’

মিরপুর টেস্টে ১ম ও ২য় ইনিংসে বাংলাদেশ ৬৬.২ ওভারে ১৭২ আর ৩৫ ওভারে ১৪৪ রান করে। নিউজিল্যান্ড ১ম ও ২য় ইনিংসে ৩৭.১ ওভারে ১৮০ আর ৩৯.৪ ওভারে ১৩৯/৬ রান করে ৪ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে।

দলের জয়ের পর সাউদি বলেন, ‘কঠিন উইকেটে আমাদের ছেলেরা খুব ভালো ক্রিকেট খেলেছে। অবশ্যই গ্লেন ফিলিপস, পুরো ম্যাচেই সে দারুণ ছিল। প্রথম ইনিংসে তার ব্যাটিং আমাদের ম্যাচে টিকিয়ে রেখেছে। স্পিন বোলার হিসেবে সে নতুন, তবু ম্যাচে তার বোলিং প্রভাব বিস্তার করেছে। হ্যাঁ, আমরা যেমন রান করতে চেয়েছিলাম, তা পারিনি। কিন্তু এখানে ২০-৩০ রানের জুটিই অনেক বড় হয়ে যায়। আর এজাজ এই স্পিন–সহায়ক উইকেটে ভালো করেছে, ৬ উইকেট নিয়েছে।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।