যে মসজিদের কল্যাণে গ্রাম আলোকিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টো ২০১৭ ১১:১০

যে মসজিদের কল্যাণে গ্রাম আলোকিত

গ্রামের নাম তাদমামেত (Tadmamet)। তথ্যপ্রযুক্তি যুগের আধুনিক সব সুবিধা থেকে বঞ্চিত এ গ্রামটি। এটি উত্তর আফ্রিকার দেশ মরক্কোর এক অজপাড়াগাঁয় অবস্থিত।

 

গ্রামটির ৪০০ জনসংখ্যার বেশিরভাগই আধুনিক সুযোগ-সুবিধাবঞ্চিত। অনেকেরই নেই গাড়ি বা মোবাইল। নেই ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগও। এক সময় ছিল না বিদ্যুৎ সুবিধাও।

 

প্রযুক্তির ছোঁয়া থেকে দূরে থাকা ডাল, আলু ও আপেল চাষী জনগণ একটি মসজিদের কল্যাণে বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত।

 

 

 

উত্তর আফ্রিকার দেশ মরক্কোর অ্যাটলাস পর্বতমালার অজপাড়াগাঁয় অবস্থিত মসজিদটির ছাদে বসানো হয়েছে সোলার প্যানেল। এসব সোলার প্যানেল থেকে উৎপাদিত সৌরবিদ্যুৎ মসজিদের চাহিদা মিটিয়ে অতিরিক্ত সৌরবিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়েছে গ্রামটির বেশিরভাগ ঘরে।

 

৩ কোটি মানুষের দেশ মরক্কোতে মসজিদ রয়েছে ৫১ হাজার। তিন বছর আগে মরক্কো সরকার কর্তৃক গৃহীত গ্রীন মসজিদ প্রকল্প। এ প্রকল্পের আওতায় সৌর প্যানেলের মাধ্যমে আলোকিত হয় মসজিদ ও গ্রাম। এ মসজিদ ভবনেই পরিচালিত হয় প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা। তাদমামেত গ্রামে এটিই একমাত্র পাবলিক ভবন।

 

 

 

তাদমামেত গ্রামের প্রধান ইব্রাহিম বলেন, ‘মসজিদ ভবনে পরিচালিত স্কুলে আগে আলোর ব্যবস্থা ছিল না। সৌর সিস্টেমের ফলে এখন আলো থাকে। তাই এখন শিক্ষার্থীদের পড়ালেখায় কোনো অসুবিধা হয় না।’

 

এ মসজিদ সম্পর্কে জার্মানির সরকারি সংস্থা জার্মান কর্পোরেশন ফর ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশনের (জিআইজেড) কর্মকর্তা জ্যান-ক্রিস্টোফার কুন্টজ জানান, এটা মরক্কোর প্রথম পরিবেশবান্ধব শক্তিচালিত মসজিদ।

 

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •