রংপুরের সাংবাদিক পেটানোর বিচার না পেয়ে রাজপথে সাংবাদিক সমাজ

প্রকাশিত:রবিবার, ২৯ নভে ২০২০ ১১:১১

রংপুরের সাংবাদিক পেটানোর বিচার না পেয়ে রাজপথে সাংবাদিক সমাজ

 

জালাল উদ্দিন, রংপুর ॥
রংপুরে সাংবাদিক পেটানোর ঘটনার ১১দিনেও দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি মেট্রোপলিটন পুলিশ। তাদের রহস্যজনক ভূমিকা নিয়ে জনমনে উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে সাংবাদিক পেটানোর ঘটনায় বিচার না পেয়ে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে সাংবাদিক সমাজ।
রবিবার সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (টিসিএ), রংপুরের উদ্যোগে অবস্থান কর্মসূচী পালন করা হয়। এতে রংপুর প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ক্লাব, সিটি প্রেসক্লাব, সাংবাদিক ইউনিয়ন, রিপোর্টার্স ইউনিটি, টিসিএ, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, তাজহাট প্রেসক্লাব, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকরা অংশ গ্রহণ করেন।
টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (টিসিএ) সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হক সুমনের সঞ্চালনায় দু’ঘন্টা ব্যাপী অবস্থান কর্মসূচী চলাকালে বক্তব্য রাখেন, রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ্ বায়েজিদ আহমেদ, সাংবাদিক লিয়াকত আলী বাদল, আফতাব হোসেন, নজরুল ইসলাম রাজু, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সরকার মাজহারুল মান্নান, কৃষক সংগ্রাম পরিষদের নেতা অ্যাড. পলাশ কান্তি নাগ, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি বাবলু নাগ, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আদর রহমান, টিসিএ’র সভাপতি শাহ্ নেওয়াজ জনি।
বক্তারা বলেন, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে প্রখর রোদকে উপেক্ষা করে সাংবাদিকরা ন্যায় বিচার প্রাপ্তির লক্ষ্যে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন কর্মসূচী চালিয়ে যাচ্ছে। মানবিক পুলিশিংয়ের বুলি ছড়ানো মেট্রোপুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা নিজ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রহস্যজনকভাবে নীরব রয়েছেন। মানবাধিকার নিয়ে কাজ করা সংবাদ কর্মীরা এখন নিজের অধিকার প্রতিষ্ঠায় মাঠে নেমেছে।
বক্তারা আরও বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন কর্মসূচী পালন করে পুলিশ প্রশাসন দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুযোগ করে দিচ্ছি। এরপরেও যদি মেট্রোপুলিশের কর্মকর্তারা কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ না করেন তবে সাংবাদিক সমাজ কঠোর আন্দোলন দিলে, জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হলে এর দায়ভার মেট্রোপুলিশকেই নিতে হবে। পরে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দরা জেলা প্রশাসক আসিব আহসানের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর কাছ স্মারকলিপি প্রদান করেন।
উল্লেখ্য, গত ১৭নভেম্বর সিটি কর্পোরেশনের উচ্ছেদ অভিযানে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে সংঘবদ্ধভাবে ১০/১৫ জন পুলিশ সদস্য প্রকাশ্যে রাস্তায় ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন টিসিএ’র সদস্য লিমন রহমানকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন।

এই সংবাদটি 1,231 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ