রোনালদোর জোড়া গোলেও জিতলো না জুভেন্টাস

প্রকাশিত:রবিবার, ০৩ ফেব্রু ২০১৯ ০৪:০২

রোনালদোর জোড়া গোলেও জিতলো না জুভেন্টাস

স্পোর্টস ডেস্ক ::জোড়া গোল করলেন রোনালদো নিজে। তবুও তার দল জুভেন্টাসকে জেতাতে পারলেন না সিআর সেভেন। নিজেদের মাঠে পারমার সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র করে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নিতে হয়েছে জুভদের।

ড্র করলেও অবশ্য জুভেন্টাসের বড় ধরনের কোনো ক্ষতি হয়নি। সর্বোচ্চ দুটি পয়েন্ট হারাতে হয়েছে তাদের। কিন্তু ২২ ম্যাচ শেষে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে ঠিকই সবার ওপরে রয়েছে জুভরা। সমান সংখ্যক ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ন্যাপোলি। ২১ ম্যাচে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে ইন্টার মিলান।

রোনালদোর জোড়া গোল এবং ড্যানিয়েলে রুগানির গোলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ার দ্বারপ্রান্তে চলে গিয়েছিল জুভেন্টাস। যদিও ৬৪ এবং ৭৪ মিনিটে দুই গোল করে জুভেন্টাসের অনেকটা কাছে চলে আসে পারমা। তবে জুভদের জয় কেড়ে নেয়ার কাজটি প্রতিপক্ষরা করে একেবারে শেষ মুহূর্তে।

ম্যাচের ইনজুরি সময়ে, অর্থ্যৎ যোগ করা তৃতীয় মিনিটে গার্ভিনহোর গোলে সমতায় ফিরে আসে পারমা। এরপর আর জয়ের কোনো সুযোগই পেলো না জুভেন্টাস। শেষ পর্যন্ত ৩-৩ গোলে ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে রোনালদোর জুভেন্টাসকে।

জোড়া গোল করে ইতালিয়ান সিরি-এ-তে রোনালদোর মোট গোলসংখ্যা দাঁড়ালো ১৫টি। ১৬টি নিয়ে শীর্ষে রয়েছেন সাম্পদোরিয়ার ফ্যাবিও কুয়াগলিয়ারেলা। আটলান্টার ডুভান জাপাতার নামের পাশেও রয়েছে ১৫ গোল।

ম্যাচের ৩৬ মিনিটে রোনালদোর গোলেই এগিয়ে যায় জুভেন্টাস। ব্লাইজ মাতুইদির পাস থেকে বল পেয়ে বক্সের বাম পাশ থেকে ডান পায়ের দারুণ এক শটে পারমার জালে বল জড়িয়ে দেন রোনালদো।

প্রথমার্ধ ১-০ গোলেই শেষ হয়। দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য ম্যাচের বাকি ৫ গোল দেখে তুরিনের দর্শকরা। ম্যাচের ৬২ মিনিটে স্বাগতিক জুভেন্টাসের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ড্যানিয়েল রুগানি। রোনালদোর কাছ থেকে বল পেয়ে বক্সের সামনে প্রায় ৬ গজ দুর থেকে বাম পায়ের শট নেন রুগানি। সেটাই জড়িয়ে যায় পারমার জালে।

৬২ মিনিটে জুভেন্টাসের গোলটা হওয়ার দুই মিনিট পরই একটি গোল শোধ করে দেয় পারমা। জুরাজ কুচকার ক্রস থেকে ভেসে আসা বলে দারুণ এক হেড করেন আন্তোনিও বারিলা। সেটিই জড়িয়ে যায় জুভেন্টাসের জালে।

এর দুই মিনিট পর (৬৬ মিনিটে) আবারও গোল। এবার গোল করলেন রোনালদোই। এবার হেড থেকে। মারিও মানজুকিচের ক্রস থেকে ভেসে আসা বলে মাথা লাগিয়ে পারমার জালে বল জড়ান সিআর সেভেন। ম্যাচের ৭৪ মিনিটে সেই জুরাজ কুচকার ক্রস থেকে বল পেয়ে একেবারে বক্সের সামনে থেকে ডান পায়ের শট নেন গার্ভিনহো। সেটিই জড়িয়ে যায় জুভেন্টাসের জালে।

তবুও ৩-২ ব্যবধান নিয়ে ম্যাচ শেষ করার একেবারে দ্বারপ্রান্তে চলে এসেছিল জুভেন্টাস। কিন্তু ইনজুরি সময়ে (৯০ +৩ মিনিট) এসে সর্বনাশটা ঘটান সেই গার্বিনহোই। বক্সের সামনে বল পেয়ে ডান পায়ের শটে জুভেন্টাসের জালে সেটা জড়িয়ে দেন গার্ভিনহো।

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •